বিজ্ঞাপন

‘সিটি নির্বাচনের ভোট গণতন্ত্রের জন্য অশনিসংকেত’

February 6, 2020 | 8:42 am

স্পেশাল করেসপন্ড্টে

সংসদ ভবন থেকে: ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রদত্ত ভোট গণতন্ত্রের জন্য অশনিসংকেত বলে দাবি করেছে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি। পার্টির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, নির্বাচনে যে ভোট পড়েছে, তা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। ভোটাররা কেন ভোট প্রদানে আগ্রহ হারিয়ে ফেলছে সেটা গুরুত্বের সঙ্গে দেখতে হবে।

বিজ্ঞাপন

বুধবার (৫ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় সংসদ ভবনের শপথ কক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এ মন্তব্য করা হয়। এ সময় বক্তৃতা করেন ওয়াকার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা, পলিটব্যুরো সদস্য অ্যাডভোকেট মুস্তফা লুৎফুল্লাহ ও সংরক্ষিত সংসদ সদস্য লুৎফুন নেছা খান এবং বাংলাদেশ পার্লামেন্ট জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন (বিপিজেএ)’র সভাপতি সিনিয়র সাংবাদিক উত্তম চক্রবর্তী প্রমুখ।

মতবিনিময়কালে পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হাসান বাদশা বলেন, ‘সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার স্বার্থে আমরা আওয়ামী লীগের সঙ্গে ঐক্য করেছিলাম। তারপরও জনগণের স্বার্থে অনেক কিছুতেই সরকারের বিরোধিতা করেছি এবং আগামীতেও করতে চাই। সম্প্রতি সিটি করপোরেশন নির্বাচন নিয়ে যা হয়েছে তা রাজনীতির জন্য অশনিসংকেত। গণতন্ত্রের স্বার্থে এ বিষয়ে পদক্ষেপ নিতে হবে।

বিজ্ঞাপন

তিনি আরও বলেন, ‘আগামী চার বছর দেশের রাজনীতিতে অনেক কিছু ঘটবে। সে বিষয়গুলো আপনাদের তুলে ধরতে হবে।’

এর আগে ওয়ার্কার্স পার্টির পক্ষ থেকে জাতীয় সংসদের খবরগুলো গুরুত্বের সঙ্গে দেশের মানুষের কাছে পৌঁছাতে গণমাধ্যমকর্মীদের সহযোগিতা চাওয়া হয়।

বিজ্ঞাপন

পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেন, ‘আগে সংসদের একটি খবরে পুরো দেশে আন্দোলন হতো। সংসদে টুকিটাকি নামে অনেক খবর লেখা হতো। এখন সেগুলো দেখা যায় না। সংসদের খবরগুলো একটু গুরুত্বসহাকারে দিলে দেশ ও দেশের মানুষ সংসদ সম্পর্কে আরো বেশি জানতে পারবে।’

এক্ষেত্রে গণমাধ্যমকর্মীরা আরও সক্রিয় হবেন বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এএইচএইচ/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন