বিজ্ঞাপন

ফাইনালের পথে নজর থাকবে যে পাঁচ টাইগারদের দিকে

February 6, 2020 | 11:04 am

স্পোর্টস ডেস্ক

বাংলাদেশ সময় দুপুর ২টায় ফাইনালের লক্ষ্যে নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। এই নিয়ে টানা দুই আসরে সেমি ফাইনাল খেলছে টাইগার যুবারা। প্রথমবার ব্যর্থ হলেও এবারে ফাইনাল খেলতে মরিয়া আকবর আলীর নেতৃত্বের দলটি। আর এই লক্ষ্য অর্জনে বাংলাদেশ দল ভরসা রাখছে দলের সেরা পাঁচ পারফর্মার তানজিদ হাসান তামিম, তৌহিদ হৃদয়, শামিম হোসেন, রাকিবুল হাসান এবং তানজিম হাসান সাকিবের উপর।

বিজ্ঞাপন

ব্যাট হাতে শেষ দু'বছরই উজ্জ্বল টাইগার অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ব্যাটসম্যানরা। তাই তো অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকায় তিন নম্বরে উঠে এসেছেন তৌহিদ হৃদয়। সেটিও বাংলাদেশের ইতিহাসের নয়; পুরো বিশ্বের ইতিহাসেই। এছাড়াও সেরা ২০ এর ভেতরে আছে আরও ৪ টাইগার ক্রিকেটারের নাম।

তানজিদ হাসান তামিম চলতি বিশ্বকাপে ব্যাট হাতে দারুণ পারফরম্যান্স করছেন। কোয়ার্টার ফাইনালে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে মাত্র ৮৪ বলে ৮০ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলেন তিনি। এছাড়া নিউ জিল্যান্ডের যুবাদের বিপক্ষেও আছে তামিমের চোখ কপালে তুলে দেওয়ার মতো পরিসংখ্যান। কিউই যুবাদের বিপক্ষে গেল বছর পাঁচ ম্যাচের ওডিআই সিরিজ খেলে বাংলাদেশ দল। আর নিউজিল্যান্ডের মাটিতেই তাদের ৪-১ হারানোর পথে তামিম করেন ২৮০ রান।

বিজ্ঞাপন

এরপরেই আছে বাংলাদেশ যুবা দলের মিডল অর্ডারের ভরসার প্রতীক তৌহিদ হৃদয়। নামের পাশে যুক্ত করেছেন অনূর্ধ্ব-১৯ এর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ শতক। আর সেই সঙ্গে আছেন সর্বকালের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকার তৃতীয় স্থানে। তার আগে অবস্থান করছেন কেবল পাকিস্তানের সামি আসলাম (১৬৯৫) আর বাংলাদেশের নাজমুল হোসেন শান্ত (১৮২০)। আর হৃদয়ের সামনে থাকছে সামিকে টপকে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক বনে যাওয়ার। তবে তার আগে সামির সঙ্গে ১১১ রানের পার্থক্যটা কমিয়ে ফেলতে হবে।

ব্যাট হাতে দারুণ পারফরম্যান্স করেছেন শামিম হাসানও। অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে ব্যাট কিংবা বল দুই মিলিয়ে ফর্মের শীর্ষে আছেন শামিম। ব্যাট হাতে মাত্র ২৬ ইনিংসে নামের পাশে তুলেছেন ৫৯৩ রান। আর কার্যকরী ভূমিকা পালন করেন বল হাতেও। এখন পর্যন্ত বল হাতে শামিম নিয়েছেন ২৬টি উইকেটও। অর্থাৎ বল কিংবা ব্যাট উভয়তেই সমান পারদর্শী শামিম হাসান।

বিজ্ঞাপন

বল হাতে টাইগার যুবাদের অন্যতম ভরসার প্রতীক রাকিবুল হসান। চলতি বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত চার ম্যাচে নিয়েছেন ১০টি উইকেট। আর বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারিদের তালিকাতেও আছেন ১০ নম্বরে। তবে উইকেট শিকারটাই তার প্রধান কাজ নয়। প্রতিপক্ষের ব্যাটসম্যানদের চাপে ফেলাটাই তার প্রধান কাজ। তাই তো এই টুর্নামেন্টে এখন পর্যন্ত রান দিয়েছেন মাত্র ২ দশকিম ৯০ ইনোকনমি রেটে।

বাংলাদেশের পেস অ্যাটাকের মূল ভরসা ১৭ বছর বয়সী তানজিম হাসান সাকিবের ওপর। শেষ তিন ইনিংসে তিনিই ছিলেন সব থেকে বেশি কার্যকরি ভূমিকায়।

বিজ্ঞাপন

নিজেদের দিনে যেকোনো দলকেই ধরাশায়ী করার ক্ষমতা টাইগার যুবাদের রয়েছে। আর তাই তো টাইগার যুবারা মুখিয়ে আছে সেমি ফাইনালে নিউ জিল্যান্ডের ম্যাচ খেলার দিকে। যেখানে লক্ষ্য প্রথমবারের মতো দেশকে ফাইনালে তোলা।

সারাবাংলা/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন