শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৫ ফাল্গুন ১৪২৬, ৩ রজব ১৪৪১

বিজ্ঞাপন

‘চীন থেকে কাউকে আনার সিদ্ধান্ত নেবে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়’

ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০২০ | ৪:৫০ পূর্বাহ্ণ

ঢাকা: স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, চীন থেকে বাংলাদেশি আর কাউকে দেশে আনা হবে কি-না, এর সিদ্ধান্ত পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের, এটা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বিষয় নয়। তবে তাদের দেশে আনা হলে প্রয়োজনীয় চিকিৎসাসেবা দিতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় প্রস্তুত রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরাতে (আইসিসিবি) বিমসটেক ট্র্যাডিশনাল হেলথ কেয়ার এক্সপোতে প্রধান অতিথির বক্তব্য শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে এ কথা বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিসেবে আমি করোনার চিকিৎসা এবং ব্যবস্থাপনার দিকে জোর দিয়ে থাকি। কাকে আনা হবে, সে বিষয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং উচ্চ পর্যায়ে যারা সিদ্ধান্ত নেন তারা বুঝবেন। আমি কিছু বলতে পারবো না। এ ক্ষেত্রে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কিছু করার নেই। তবে আনা হলে আমরা চিকিৎসা দিতে প্রস্তুত।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, চীনের উহান থেকে ফেরত আসা ৩১২ জন বর্তমানে কোয়ারেন্টাইনে আছেন। ১৪ ফেব্রুয়ারি তাদের ১৪ দিনের সময় শেষ হবে। শনিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর তাদের ছেড়ে দেওয়া হবে।

গুজবে কান না দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, বিভিন্ন জায়গায় নানা অসুখ নিয়ে রোগী ভর্তি হয়। কিন্তু পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে প্রমাণিত না হওয়া পর্যন্ত কিছু বলা উচিত না, যেন আতঙ্ক না ছড়ায়। বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত নতুন করোনা বা কভিড-১৯ আক্রান্ত কোনও রোগী শনাক্ত হননি। এখানে আর কোনো সমস্যা নেই, কেউ করোনাতে আক্রান্ত নন। তাই কেউ গুজবে কান দেবেন না। বিশেষ করে আমার অনুরোধ, মিডিয়া যেন শতভাগ নিশ্চিত না হয়ে এ ধরনের কোনো সংবাদ প্রকাশ না করে। এমনটা না করলে জনগণ আতঙ্কিত হবে। দেশে আসা প্রতিটি ব্যক্তিকে যথাযথ স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে।

করোনাভাইরাসের চিকিৎসাপ্রস্তুতি নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ইতোমধ্যেই করোনা প্রতিরোধের জন্য সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। তিনটি হাসপাতাল প্রস্তুত রাখা হয়েছে। সেখানে চিকিৎসক-নার্সদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট কুয়েত-মৈত্রী হাসপাতাল বিশেষভাবে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। সেখানে ১০টি আইসিইউ বেডও তৈরি করে রাখা হয়েছে।

সারাবাংলা/এসবি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন