বিজ্ঞাপন

এএফসি ব্যর্থতার পর জয়ে বিপিএল শুরু আবাহনীর

February 16, 2020 | 10:04 pm

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ক’দিন আগেই এএফসি কাপের প্লেঅফ থেকে বিদায় নিয়ে এসেছে ঢাকা আবাহনী। গত ফেডারেশন কাপে রহমতগঞ্জের কাছে হারের পর দুই ম্যাচে জয়হীন আবাহনী বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের প্রথম ম্যাচেই জয় তুলে নিয়েছে। এএফসি ব্যর্থতার পর লিগের প্রথম ম্যাচে জয়ে স্বস্থিতে আকাশী-নীল বাহিনী। আবাহনীর কাছে হেরে বিপিএলের মিশন শুরু করেছে চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে চ্যাম্পিয়ন হয়ে বিপিএলে অভিষেক হওয়া বাংলাদেশ পুলিশের।

বিজ্ঞাপন

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে আজ রোববার লিগের তৃতীয় দিনের খেলায় গত লিগের রানার্স আপ দল ঢাকা আবাহনীর মুখোমুখি হয়েছিল নবাগত বাংলাদেশ পুলিশ। ফেডারেশন কাপেও বড় হারের পর লিগের প্রথম ম্যাচে আবাহনীর কাছে ২-০ ব্যবধানে হেরেছে পুলিশ।

ম্যাচের শুরু থেকে প্রেস করে খেলতে চেয়েছিল আবাহনী। তাতে গোলের সুযোগও তৈরি হয়েছিল প্রথম দশ মিনিটের ভেতরই। তবে সানডে গোলের সামনে থেকেও তখন হেড করেছিলেন বাইরে দিয়ে। প্রথমার্ধে আবাহনীর আক্রমণ পুরোটাই ছিল সানডে কেন্দ্রিক। ২৭ মিনিটে একবার গোলের ৩০ গজ দূর থেকে চেষ্টা করলেন, তখন লক্ষ্য মিস করে গেলেন অল্পের জন্য।

বিজ্ঞাপন

অনেকটা রক্ষণাত্মক ভঙ্গিতে খেলা পুলিশ সহসাই ভয়ংকর হয়ে উঠছিল পাল্টা আক্রমণে।ম্যাচের আধঘণ্টা পেরুনোর আগে পুলিশ দুইবার চেষ্টা চালালো। তাতে ভড়কেই গিয়েছিল আবাহনীর রক্ষণ। দুইবারই পুলিশ ফরোয়ার্ড আমিরুল ইসলাম ভালো জায়গা থেকে হেড করেছিলেন। আবাহনীর কপাল ভালো, একবারও লক্ষ্যে ছিল না আমিরুলের হেড।

গোলের জন্য মরিয়া মারিও লেমসের শিষ্যরা জালে সন্ধান পেয়েছে বিরতির ঠিক আগে। কেরভেন্স বেলফোর্ট মিডফিল্ড থেকে একাই দৌড়ে প্রতিপক্ষের তিন ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে দারুণ এক থ্রু পাস দিয়েছিলেন সানডেকে। বক্সের ভেতর ঢুকে নিচু শটে সানডেও বেলফোর্টের শ্রমের দাম রেখেছেন। বিরতির দুই মিনিট আগে তাতে ডাগ আউটে  স্বস্তি মিলেছে লেমোসেরও।

দ্বিতীয়ার্ধে অবশ্য পুলিশ এফসি আর সেভাবে আক্রমণেই ওঠেনি। খেলাও তাই হয়েছে একই ধারায়। আবাহনী বেশ কয়েকবার চেষ্টা করেও খালি হাতে ফিরছিল। সাদ উদ্দিনের শট একবার ক্লিয়ার হয়েছে গোললাইন থেকে, আরেকবার বেলফোর্ট গোলবঞ্চিত হলেন বারপোস্টের কারণে। সানডের শট ঠেকিয়ে দিয়ে পুলিশ গোলরক্ষক সাইফুল ইসলাম যোগ দিয়েছিলেন প্রতিরোধে। সব প্রতিরোধ ভেঙে ম্যাচ শেষের ৭ মিনিট বাকি থাকতে জয় নিশ্চিত হয়েছে আবাহনীর।

কিরগিজ মিডফিল্ডার এডগার তখন করেছেন আবাহনীর জার্সিতে নিজের প্রথম গোল। বক্সের ভেতর নাবিব নেওয়াজ জীবনের লে-অফ থেকে বাম পায়ের শটে লক্ষ্যভেদ করেন এডগার। লিগের প্রথম রাউন্ড শেষে তাই বাকি সব বড়দলগুলো মতো ৩ পয়েন্ট সঙ্গী হয়েছে আবাহনীরও।

এ জয়ে স্বস্থি ফিরেছে গত তিন ম্যাচে জয়হীন আবাহনী বাহিনীতে। তিন পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শক্ত অবস্থান নিয়ে বিপিএল শুরু করলো তারা। এখন দেখার বিষয় লিগের লম্বা দৌড়ে কতখন টিকে থাকে ‘ঘরের বাঘরা’।

সারাবাংলা/জেএইচ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন