বিজ্ঞাপন

ভোলায় সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ, গ্রেফতার ২

February 17, 2020 | 1:46 pm

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

ভোলা: ভোলা সদর উপজেলায় সপ্তম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া  গেছে। মেয়েটিকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এ ঘটনায় দায়ের করা মামলার দুই আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বিজ্ঞাপন

রোববার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত ওই মেয়েটিকে উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রোববার রাতেই মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে সদর থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে আজ সোমবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে অভিযান চালিয়ে দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার হওয়া আসামি মো. রায়হান ওই ইউনিয়নের মো. সেলিমের ছেলে। সে স্থানীয় চরসামাইয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্র। আরেক আসামি রায়হানের ভগ্নিপতি মো. হেলাল।

বিজ্ঞাপন

ভোলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মহসিন আল ফারুক জানান, ভোলা সদর উপজেলার একটি মাদরাসায় সপ্তম শ্রেণিতে পড়ে ওই শিক্ষার্থী। রাতে তাকে ঘরে একা রেখে মা দোকানে যান। এ সময় তাদের প্রতিবেশী রায়হান তার ভগ্নিপতি হেলালের সহায়তায় ঘরে ঢুকে ওই শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ করে। ওই শিক্ষার্থীর চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন ছুটে এলে রায়হান পালিয়ে যায়।

পরে মেয়েটিকে উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানকার আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) মো. তৈয়বুর রহমান জানান, মেয়েটিকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। ধর্ষণের আলামতও সংগ্রহ করা হয়েছে। যথাসময়ে তা আদালতে তা পাঠানো হবে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ভোলা সদর মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. রাসেল জানান, রোববার রাতেই রায়হান ও হেলালকে আসামি করে মেয়েটির বাবা থানায় মামলা দায়ের করেছিলেন। অভিযান চালিয়ে তাদের দুই জনকেই গ্রেফতার করা হয়েছে। পরে তাদের আদালতে পাঠানো হয়েছে।

সারাবাংলা/এসএমএন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন