বিজ্ঞাপন

এত সফলতার পরেও কেন ডিজনি ছাড়লেন বব আইগার!

February 27, 2020 | 5:32 pm

বিনোদন ডেস্ক

হুট করেই ডিজনির প্রধান নির্বাহীর পদ থেকে সরে দাঁড়ালেন বব আইগার। ২০০৫ সালে দায়িত্ব নেওয়ার পর ডিজনিকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যান তিনি। দায়িত্ব ছিল ২০২১ সাল পর্যন্ত। দুই বছর আগেই কেন সরে দাঁড়ালেন তাই নিয়ে হলিউডপাড়ায় শুরু হয়েছে আলোচনা।

বিজ্ঞাপন

গত দশকের সবচেয়ে ব্যবসাসফল ২০ টি চলচ্চিত্রের ১৩টিই ডিজনির। এদের মধ্যে ৩ টি সিনেমার প্রতিটি বিশ্বব্যাপি দুই বিলয়ন ডলারের বেশি ব্যবসা করে। অ্যাভাতারকে ছড়িয়ে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি আয় করা সিনেমার খাতায় নাম লেখায় ডিজনির অ্যাভেঞ্জারস:এন্ডগেম চলচ্চিত্রটি।

বব আইগারের সময়ে ডিজনি অ্যানিমেশন স্টুডিও পিক্সার, কমিক বুক কোম্পানি মারভেল, স্টার ওয়ার্সের জন্মদাতা প্রতিষ্ঠান লুকাস ফিল্ম এবং রুপার্ট মারডকের ২১ সেঞ্চুরি ফক্স স্টুডিও কিনে নেয়। এসব প্রতিষ্ঠানের আত্তিকরণ ছাড়াও বিশ্বব্যাপি ছড়ানো এমিউজমেন্ট পার্কসহ বিভিন্ন বিষয় মিলিয়ে ডিজনির ব্যবসা পাঁচগুন বেড়ে যায়।

বিজ্ঞাপন

গতবছর ‘রাইড অফ এ লাইফটাইম’ নামক একটি স্মৃতিকথা প্রকাশ করেন আইগার। এই বইতে তার গত পনেরো বছরের চড়াই উৎরাই উঠে এসেছে। হলিউডের অন্যতম শক্তিশালী এই ব্যাক্তিত্ব বিভিন্ন সময়ে অবসরে যাওয়ার পরিকল্পনার কথা বলেছেন।

আইগারের স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন বব চ্যাপেক। ১৯৯৩ সালে ডিজনিতে যোগদান করা চ্যাপেক ডিজনির পার্কস এন্ড প্রোডাকশন বিভাগের প্রধান ছিলেন।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/আরএফ/পিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন