বিজ্ঞাপন

‘দীর্ঘস্থায়ী সমাধানে বিদ্যুতের সাময়িক মূল্যবৃদ্ধি মেনে নিন’

February 28, 2020 | 7:31 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: দীর্ঘস্থায়ী সমাধানের জন্য বিদ্যুতের সাময়িক এই মূল্যবৃদ্ধি মেনে নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন মুজিববর্ষে ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ আরও সহজলভ্য করার জন্য সাময়িকভাবে একটু দাম বাড়নো হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

শুক্রবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে রাজধানীর হাতিরপুলের সোনারগাঁ রোডে ফিকামলি সেন্টারে শহীদ সেলিম-দেলোয়ার দিবসের আলোচনা সভায় তিনি এ আহ্বান জানান।
১৯৮৪ সালের এইদিনে ছাত্রমিছিলে তৎকালীন স্বৈরশাসকের লেলিয়ে দেওয়া ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে রাজধানীর ফুলবাড়িয়ায় শহীদ হন ছাত্রনেতা সূর্যসেন হলের ইব্রাহিম সেলিম ও জহুরুল হক হলের কাজী দেলোয়ার হোসেন। দিনটি উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মিলাদের আয়োজন করা হয়।

আলোচনা সভায় ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিদ্যুৎ আর পানির সেবা পেতে আপনাদের কোনো অসুবিধা হচ্ছে না। শেখ হাসিনা সরকারের আমলে এই শহরে পানি আর বিদ্যুতের কোন হাহাকার নেই। এই হাহাকার যেন আর কোনোদিন না হয়।’

বিজ্ঞাপন

তিনি আরও বলেন, ‘শেখ হাসিনা অঙ্গীকার করেছেন, এই মুজিববর্ষে শতভাগ মানুষের ঘরে ঘরে আমরা বিদ্যুৎ পৌঁছে দেবো। ক্রাইসিস অ্যাডজাস্টমেন্ট করার জন্যই উৎপাদন খরচ মিটিয়ে বিদ্যুৎ ব্যবস্থাকে আপনাদের কাছে সহজলভ্য করার জন্য দাম কিছুটা বাড়াতে হচ্ছে। শতভাগ মানুষের কাছে বিদ্যুৎ পৌঁছানোর জন্য আপনাদের সাময়িক একটু কষ্ট হবে।’

এরপরও সরকারকে সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা ভতুর্কি দিতে হবে বলেও জানান ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘এই ভতুর্কি কমানো ও বিদ্যুতের উৎপাদন খরচ মেটানোর জন্য সাময়িকভাবে এই দুর্ভোগটা আপনারা মেনে নেবেন বলে আমি আশা করি। দীর্ঘস্থায়ী সমাধানের জন্য সাময়িক এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।’

বিজ্ঞাপন

এর আগে বিএনপি-জামায়াত জোটের শাসনামলে বিদ্যুৎ সরবরাহের ঘাটতিসহ বারবার দাম বাড়ানো হয়েছিল- সে কথাও স্মরণ করেন তিনি।

শহীদ ছাত্রনেতাদের সহকর্মী ডা. মোহাম্মদ ওয়াদুদের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, আওয়ামী লীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সদস্য মমতাজ উদ্দিন মেহেদী ও মুক্তিযোদ্ধা রুহুল আমিন মজুমদার।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এনআর/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন