বিজ্ঞাপন

কাবা শরীফ ফের খুলে দেওয়া হয়েছে, তবে আংশিক

March 8, 2020 | 12:28 pm

ওমরাহ হজের জন্য মক্কার পবিত্র কাবা শরীফ আবারও খুলে দিয়েছে সৌদি কর্তৃপক্ষ। তবে কাবা ঘরের কালো গিলাফে ঢাকা মূল চৌকোনা ঘর এবং এতে বসানো হজরে আসওয়াত পাথর ছোঁয়ায় এখনও বারণ রয়েছে। কাবার আঙিনায় একটি নিরাপদ দূরত্বে বেরিকেট তৈরি করা হয়েছে। তার বাইরে মাতাফ অংশ (যে অংশ দিয়ে কাবা শরীফ প্রদক্ষীণ করা হয়) খোলা রাখা হয়েছে। এই অংশ থেকেই এখন ওমরাহ হজযাত্রীরা তাদের তাওয়াফ করতে পারছেন।

বিজ্ঞাপন

শনিবার ভোর থেকে পবিত্র কাবা শরীফ খুলে দেওয়া হয়। এর আগে তিন দিন গোটা কাবা শরীফ জনগণের জন্য বন্ধ রাখা হয়েছিলো। বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার প্রেক্ষাপটেই এই সিদ্ধান্ত নেয় সৌদি কর্তৃপক্ষ। পবিত্র আঙ্গিনাকে সম্পূর্ণ জীবানুমুক্ত করতেই এই উদ্যোগ ।

সৌদি বাদশাহ সালমানের নির্দেশে মাতাফ অংশ কাবা প্রদক্ষীণের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির সরকারি বার্তা সংস্থা সৌদি প্রেস এজেন্সি (এসপিএ)। এরপর থেকে শতশত ধর্মপ্রাণ মুসলিম সেই অংশ দিয়েই পবিত্র কাবা শরীফে তাওয়াফ শুরু করেছেন। তবে সাফা-মারওয়া পাহাড়ের মাঝখানে সাতবার যাওয়া আসা করার অংশটি এখনও বন্ধ রয়েছে। আর সোনালি হরফে আরবি লেখা ও ক্যালিওগ্রাফ খচিত কালোকাপড়ে ঢাকা মূল কাবাঘর ও তাতে স্থাপিত হজরে আসওয়াত পাথর এখন ছোঁয়া যাচ্ছে না।

বিজ্ঞাপন

এর আগে বৃহস্পতিবার কর্তৃপক্ষ পুরো কাবা অঙ্গণ জনশূন্য করে ফেলে। এতে ওমরাহ প্রার্থীরা আর কাবা ঘরে ঢুকতে পারছিলেন না। কেবল নামাজের জন্যই মুসল্লিরা চত্তরের বাইরের দিকটায় যেতে পারছিলেন।

হঠাৎ করে উমরাহ বন্ধ হয়ে যাওয়ায়, আসছে জুলাইয়ে মুসলমানদের প্রধানতম ধর্মীয় আচরণ পবিত্র হজ পালন নিয়েও জনমনে তৈরি হয়েছিলা শঙ্কা। তবে তিন দিনের মাথায় কাবা শরীফ আংশিকভাবে খুলে দেওয়ার পর সে শঙ্কা কিছুটা হলেও কাটতে শুরু করেছে। শত শত ধর্মপ্রাণ মুসলিম এরই মধ্যে কাবা শরীফের যে অংশে তাদের ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে সেখান থেকে তাওয়াফ শুরু করেছেন। এবং ক্রমেই তাদের সংখ্যা বাড়ছে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এমএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন