বিজ্ঞাপন

এবারই প্রথম নয়, অলিম্পিক থমকেছে অতীতেও!

মার্চ ২৪, ২০২০ | ১০:১০ অপরাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক

জাপানের টোকিওতে আগামী ২২ জুলাই থেকে শুরু হওয়ার কথা ছিল ‘দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’ নামে খ্যাত অলিম্পিক গেমস। তবে বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসের প্রকোপ থামকে দিল এই যাত্রা। করোনাভাইরাসের প্রকোপে অলিম্পিক স্থগিত করার বিষয়ে আলোচনা চলছিল বেশ আগে থেকেই। অলিম্পিক কমিটি ও জাপান সরকারের পক্ষ থেকে বিশ্বের বৃহত্তম টুর্নামেন্টটি স্থগিতের ইঙ্গিত দেওয়া হচ্ছিল। আজ এলো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত।

বিজ্ঞাপন

আজ মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) এক বিবৃতিতে অলিম্পিক স্থগিতের ঘোষণা দিয়েছে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি (আইওসি)। আগামী বছর অলিম্পিক অনুষ্ঠিত করার ব্যাপারেও আশাবাদ ব্যক্ত করেছে সংস্থটি।

অলিম্পিক থমকে যাওয়ার ঘটনা অবশ্য এই প্রথম নয়। এর আগে তিনবার তো বাতিলই হয়েছিল ‘দ্যা গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’।

বিজ্ঞাপন

প্রথম ঘটনা ১৯১৬ সালের-

১৯১৬ সালের অলিম্পিক অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল জার্মানির বার্লিনে। বিশ্বকে চমকে দেওয়ার জন্য প্রস্তুত হচ্ছিল জার্মানি। অলিম্পিক আয়োজনের জন্য ১৯১২ সাল থেকে ‘জার্মান স্টেডিয়াম’ নির্মাণ শুরু করে দেশটি। ১৮ হাজার দর্শক এক সঙ্গে বসে খেলা দেখতে পারবেন এমন পরিকল্পনা নিয়ে স্টেডিয়াম বানানো শুরু হয়। ১৯১৪ সালের জুলাইয়ে প্রথম বিশ্বযুদ্ধ শুরু হলেও নিজেদের প্রস্তুতি বন্ধ করেনি জার্মানরা। কারণ কেউ ধারণাই করতে পারেনি যে যুদ্ধ এত দীর্ঘ হবে।

কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত প্রথম বিশ্বযুদ্ধ দীর্ঘায়িত হয় ১৯১৮ সালের নভেম্বর পর্যন্ত। ইউরোপ, আফ্রিকা, মধপ্রাচ্য, চীন, ভারত উপমহাদেশ, দক্ষিণ ও উত্তর আমেরিকার উপকূল অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়ে এই যুদ্ধ। এমন পরিস্থিতিতে বাতিল হয়ে যায় ১৯১৬ সালের গ্রীষ্মকালীন অলিম্পকটি।

১৯৪০ ও ১৯৪৪ সাল-

১৯৪০ সালের গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকের আয়োজক ছিল জাপান। ওই বছরের সেপ্টেম্বরে টোকিওতে শুরু হওয়ার কথা ছিল অলিম্পিকের দ্বাদশ আসর। এশিয়া অঞ্চলের প্রথম শহর হিসেবে অলিম্পিক আয়োজনের সুযোগ পায় টোকিও।

কিন্তু জাপানিদের রোমাঞ্চ থামিয়ে দেয় দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ। ১৯৩৯ সাল থেকে ১৯৪৫ সাল পর্যন্ত চলতে থাকা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে জড়িয়ে পড়েছিল জাপানও। ১৯৩৭ সালে চীনে আক্রমণ করে জাপান। পরে পোল্যান্ড জার্মানি আক্রমণ করে বসলে বেধে যায় দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ। ইউরোপ, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, চীন, মধ্যপ্রাচ্য, উত্তর-দক্ষিণ আমেরিকা, আফ্রিকা, আটলান্টিক মহাসাগরের উপকূলীয় অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়া এই যুদ্ধের কারণে ১৯৪০ সালের অলিম্পিক নিয়ে তখন আগ্রহই দেখায়নি ক্রীড়াবিশ্ব, বাতিল হয়ে যায় অলিম্পিকের সেবারের আসর।

একই ঘটনা ঘটে ১৯৪৪ সালের অলিম্পিকেও। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের উত্তাপ তখন থেমে গেছে কোথাও কোথাও, কিন্তু বিপর্যস্ততা থামেনি। কিছু অঞ্চলে যুদ্ধ চলছিলই। যেদিকে যুদ্ধ থেমেছিল সেদিকে যুদ্ধপরবর্তী সময়ের বিধ্বস্ততা ফুটে উঠছিল। অমন পরিস্থিতিতে অলিম্পিক শুরু করতে পারেনি অলিম্পিক কমিটি। পূর্বসূচী অনুযায়ী ১৯৪৪ সালের অলিম্পিক অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল যুক্তরাজ্যের লন্ডনে।

শেষবার অলিম্পিক স্থগিত হওয়ার পর কেটে গেছে ৭৬ বছর। এর মধ্যে অনুষ্ঠিত হয়েছে ২৫টি অলিম্পিক গেমস। বিশ্বের নানা প্রান্ত ঘুরে ১৯৯৮ সালের পর আবারো অলিম্পিক পৌছে যায় জাপানে। ১৯৬৪ সালে সর্বপ্রথম অলিম্পিক গেমস আয়োজন করে জাপান। এরপর ১৯৭২ সালে দ্বিতীয় বার আর ১৯৯৮ সালে তৃতীয় বারের মতো দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ আয়োজন করে নিশীথ সূর্যের দেশ জাপান।

অবশ্য এর আগে ১৯৪০ সালেই প্রথমবার অলিম্পিক আয়োজন করার কথা ছিল জাপানের। তবে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কারণে বাতিল হয় সেবারের আসর। আর তার ঠিক ৮০ বছর পর আবারো অলিম্পিকের আসর জাপানে বসার কথা ছিল। তবে বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের মহামারীতে থমকে যাওয়া ক্রীড়াঙ্গনের কারণে তা পিছিয়ে গেল আরও এক বছর। আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি বলেছে ২০২১ সালে একই সময়ে বসতে পারে টোকিও অলিম্পিক।

সারাবাংলা/এসএইচএস/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন