বিজ্ঞাপন

আমি সবার মানসিক অবস্থা বুঝতে পারছি : প্রধানমন্ত্রী

March 25, 2020 | 7:52 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে দেশের সাধারণ নাগরিকের উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার প্রতি সহমর্মিতা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বিজ্ঞাপন

বুধবার (২৫ মার্চ) সন্ধ্য সাড়ে ৭টায় জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমি জানি, আপনারা এক ধরনের আতঙ্ক ও দুশ্চিন্তার মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন। যাদের আত্মীয়স্বজন বিদেশে রয়েছেন, তারাও তাদের নিকটজনদের জন্য উদ্বিগ্ন রয়েছেন।  আমি সকলের মানসিক অবস্থা বুঝতে পারছি। কিন্তু এই সঙ্কটময় সময়ে আমাদের ধৈর্য্য এবং সাহসিকতার সঙ্গে পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে হবে।’

বিজ্ঞাপন

শেখ হাসিনা বলেন, ‘এই ভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের উপদেশ আমাদের মেনে চলতে হবে। আমাদের যতদূর সম্ভব মানুষের ভিড় এড়িয়ে চলতে হবে। যারা করোনাভাইরাস-আক্রান্ত দেশ থেকে স্বদেশে ফিরেছেন, সেসব প্রবাসী ভাইবোনদের কাছে অনুরোধ - আপনাদের হোম কোয়ারেন্টাইন বা বাড়িতে সঙ্গ-নিরোধসহ যেসব নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে সেগুলো অক্ষরে অক্ষরে মেনে চলুন।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘মাত্র ১৪দিন আলাদা থাকুন। আপনার পরিবার, পাড়াপ্রতিবেশি, এলাকাবাসী এবং সর্বোপরি দেশের মানুষের জীবন বাঁচানোর জন্য এসব নির্দেশনা মেনে চলা প্রয়োজন।  কয়েকটি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে করোনাভাইরাস প্রতিরোধ সহজ হবে। ঘনঘন সাবান-পানি দিয়ে হাত ধুতে হবে। হাঁচি-কাশি দিতে হলে রুমাল বা টিস্যু পেপার দিয়ে নাক-মুখ ঢেকে নিবেন। যেখানে-সেখানে কফ-থুথু ফেলবেন না।’

করমর্দন বা কোলাকুলি থেকে বিরত থাকুন। যতদূর সম্ভব ঘরে থাকবেন। অতি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে যাবেন না।  বাইরে জরুরি কাজ সেরে বাড়িতে থাকুন। মুসলমান ভাইয়েরা ঘরেই নামাজ আদায় করুন এবং অন্যান্য ধর্মের ভাইবোনদেরও ঘরে বসে প্রার্থনা করার অনুরোধ জানাচ্ছি।

শেখ হাসিনা আরও বলেন, ‘আপনাদের কাছে অনুরোধ হোম কোয়ারেনটাইনসহ যে সব স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার কথা বলা হয়েছে তা অক্ষরে অক্ষরে মেনে চলুন। মাত্র ১৪ দিন ঘরে থাকুন। অতি প্রয়োজন ছাড়া বাইরে যাবেন না।’

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘খেয়াল রাখুন, আপনার কারণে যেন প্রতিবেশী সংক্রমিত না হোন। এছাড়া পরিবারের সংবেদনশীল মানুষটির দিকে খেয়াল রাখুন। তাকে ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে রক্ষায় প্রয়োজনীয় যত্ন নিন।’

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন