বিজ্ঞাপন

জন্মদিন পালন করছেন না শাকিব

March 28, 2020 | 5:29 pm

এন্টারটেইনমেন্ট করেসপনডেন্ট

শাকিব খান— বাংলাদেশের সিনেমা ইন্ডাস্ট্রির বর্তমানে এক নম্বর তারকা। তার নামেই ছবি চলে, দর্শকের ঢল নামে সিনেমা হলের টিকেট কাউন্টারে। প্রযোজক, পরিচালকদের অন্যতম ভরসার জায়গা তিনি। শনিবার (২৮ মার্চ) তার জন্মদিন। সারাবাংলা পরিবারের পক্ষ থেকে ‘ঢালিউড কিং’ কে জন্মদিনের শুভেচ্ছা।

বিজ্ঞাপন

জন্মদিনে কী করছেন ঢালিউডে এক যুগ ধরে বক্স অফিসে রাজত্ব করা এ সুপারস্টার। শাকিব খান বললেন, ‘আমার ভক্ত, অনুরাগীরা রাত ১২টা বাজার আগ থেকেই শুভেচ্ছা জানানো শুরু করেছে। করোনাভাইরাসের কারণে দেশের সবকিছু বন্ধ। অন্য সময় কেকে ভরে যায় পুরো বাসা। কিন্তু এবার আমি নিজেই কোন কিছু করছি না। বাসায় শুয়ে বসে সময় কাটাচ্ছি।’

শনিবার থেকে শুরু হওয়ার কথা ছিলো ‘নবাব এলএলবি’ ছবির কাজ। ঈদের জন্য তৈরি করা হচ্ছিলো ছবিটি। কিন্তু শাকিব খান জানালেন, করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে আপাতত শুটিং স্থগিত করে রাখা হয়েছে। পরিস্থিতির যদি কোন উন্নতি হয় তাহলে শুটিং শুরু করা হবে।

বিজ্ঞাপন

শাকিব খানের প্রকৃত নাম মাসুদ রানা। জন্ম গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলায় ১৯৭৯ সালের ২৮ মার্চ। বাবা আবদুর রব ও মা নূরজাহান। সরকারি চাকরিজীবী বাবার সুবাদে বেড়ে উঠা নারায়ণগঞ্জে। ছোটবেলার স্বপ্ন ছিলো ডাক্তার বা ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার। কিন্তু হয়ে যান চলচ্চিত্রের নায়ক।

১৯৯৯ সালে ‘সবাইতো সুখী হতে চাই’—‘আফতাব খান টুলু পরিচালিত শাকিব অভিনীত প্রথম ছবি। কিন্তু প্রথম মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি সোহানুর রহমান সোহান পরিচালিত ‘অনন্ত ভালোবাসা’।

তার অভিনীত অন্যান্য উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্র হল সুভা, আমার প্রাণের স্বামী, প্রিয়া আমার প্রিয়া, বলবো কথা বাসর ঘরে, আদরের জামাই, ডন নাম্বার ওয়ান, পূর্ণদৈর্ঘ্য প্রেম কাহিনী, শিকারি, নবাব, রাজনীতি  ও সত্তা। ২০১১ সালে ‘মনের জ্বালা’ ছবিতে তিনি প্রথমবারে মতো তিনি প্লে-ব্যাক করেন।

২০১৪ সালে তিনি ‘হিরো: দ্যা সুপারস্টার’ ছবির মধ্য দিয়ে প্রযোজক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন।  পরবর্তীকালে পাসওয়ার্ড, বীর ছবিগুলোর প্রযোজনার সাথেও সম্পৃক্ত হন।

কর্মজীবনে একাধিক পুরস্কার অর্জন করেছেন শাকিব। যার মধ্যে রয়েছে চারটি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার, আটটি মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার, তিনটি বাচসাস পুরস্কার ও চারটি সিজেএফবি পারফরম্যান্স পুরস্কার। তিনি ২০১০ সালের ভালোবাসলেই ঘর বাঁধা যায় না, ২০১২ সালের খোদার পরে মা, ২০১৫ সালের আরো ভালোবাসবো তোমায় এবং ২০১৭ সালের সত্তা  চলচ্চিত্রের জন্য সেরা অভিনেতা হিসেবে ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান’।

ব্যক্তিজীবনে শাকিব খান ২০০৮ সালের ১৮ অপু বিশ্বাসকে বিয়ে করেন।  বিয়ের বিষয়টি গণমাধ্যমে গোপন রাখা হয়। পরে ২০১৭ সালে একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের সাক্ষাৎকারে বিয়ের করার কথা অপু বিশ্বাস জানান। ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর তাদের একটি ছেলে সন্তানের জন্ম হয়। যার নাম রাখা হয় আব্রাম খান জয়।

২০১৭ সালের ২২ নভেম্বর শাকিব খান তালাকের জন্য আবেদন করেন এবং ২০১৮ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি অপু বিশ্বাসের সাথে তার তালাক কার্যকর হয়।

সারাবাংলা/এজেডএস/

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন