বিজ্ঞাপন

করোনা মোকাবিলায় সহযোগিতা চেয়ে বিপাকে যুবরাজ

April 1, 2020 | 4:01 pm

স্পোর্টস ডেস্ক

করোনাভাইরাসের প্রকোপ দিনে দিনে বেড়েই চলেছে। ইউরোপে প্রতিদিন বাড়ছে লাশের সারি। দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে করোনার প্রভাব এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি পড়েছে সম্ভবত প্রতিদিনের উপার্যননির্ভর মানুষগুলোর উপর। প্রায় প্রতিটি দেশেই ‘লকডাউন’ চলছে বলে খেটে খাওয়া মানুষদের উপার্যন বন্ধ হয়ে গেছে। পাকিস্তানে এসব মানুষদের নিয়ে কাজ করছেন শহিদ আফ্রিদি।

বিজ্ঞাপন

পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক তার ‘শহিদ আফ্রিদি ফাউন্ডেশন’ থেকে অসহায়দের সহায্যে সহযোগিতা করে যাচ্ছেন। অবশ্য শুধু আফিদি একা নন, বহু সেলিব্রেটি, বিত্তবানরাই অসহায় মানুষদের সহযোগিতায় এগিয়ে এসেছেন। কেউ অর্থ সাহায্য করছেন, কেউ সহযোগিতার জন্য ফান্ড গঠন করছেন, কেউবা সহযোগিতায় এগিয়ে আসার আহ্বান জানাচ্ছেন। এমনই এক আহ্বান জানিয়ে বিপাকে পড়েছেন যুবরাজ সিং।

বিজ্ঞাপন

ভারতের সর্বকালের অন্যতম সফলতম অলরাউন্ডার সম্প্রতি শহিদ আফ্রিদির উদ্যোগের প্রসংশা করেছেন। নিজে ‘শহিদ আফ্রিদি ফাউন্ডেশনে’র পক্ষে দাঁড়িয়ে অন্যদেরও সহযোগিতায় এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন। আর ভারত-পাকিস্তানের চিরশত্রুতার জেরে যুবরাজের এই আহ্বানে চটেছেন কিছু ভারতীয়। একজন ভারতীয় হয়ে পাকিস্তানিদের সহযোগিতায় এগিয়ে আসবেন যুবরাজ, এটা মানতেই পারছেন না অনেকে।

টুইটারে শ্রুতি টেন্ডন নামের একজন লিখেছেন, ‘যুবরাজ সম্ভবত মদ পান করেছে! আমাদের প্রধানমন্ত্রীর তহবিলে দান করতে বলা হয়েছিল। আর জনাব দান করেছে পাকিস্তানকে, খুবই হতাশাজনক। এর যথাযথ ব্যাখ্যা চাই। তুমি একজন ভক্ত হারালে।’

দ্বিপক গোধন নামের একজন লিখেছেন, ‘নিজের ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে ভারতীয়দের টাকা নিয়ে সেগুলো পাকিস্তানে পাঠিয়ে দিচ্ছে যুবরাজ। অথচ এই পাকিস্তান তাদের দেশের হিন্দুদের সাহায্য করবে না বলে দিয়েছে। নিপাত যাক এমন ক্রিকেটার।’

কদিন আগে ভারতের আরেক তারকা ক্রিকেটার হরভজন সিংও শহিদ আফ্রিদির কার্যক্রমের প্রসংশা করেছিলেন। সেটাও মনে করিয়ে দিলেন একজন। বিশাখা নামের একজন লিখেছেন, ‘অশা করছি এই সময়ে যুবরাজ ও হরভজন প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল ও দেশের অন্যান্য দাতব্য সংস্থায় অনুদান দিবেন।’

সারাবাংলা/এসএইচএস/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন