বিজ্ঞাপন

‘কনডেম সেলে মাজেদ, আনুষ্ঠানিকতা শেষ হলেই রায় কার্যকর’

April 7, 2020 | 7:11 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অন্যতম খুনি ক্যাপ্টেন (বরখাস্ত) আবদুল মাজেদকে কেরাণীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগারের কনডেম সেলে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক। তার রায় কার্যকর হওয়ার ক্ষেত্রে এখন কেবল আনুষ্ঠানিকতা বাকি বলেও জানান তিনি।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) সন্ধ্যায় গুলশানের নিজ বাসা থেকে পাঠানো এক ভিডিও বার্তায় তিনি এসব কথা বলেন।

আরও পড়ুন- রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণ ভিক্ষাই মাজেদের একমাত্র পথ

বিজ্ঞাপন

মন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, ক্যাপ্টেন আবদুল মাজেদের বিরুদ্ধে রায় কার্যকরের জন্য আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়ে গেছে। আনুষ্ঠানিকতা শেষ হলেই এই রায় কার্যকর করা হবে।

মন্ত্রী জানান, আদালতের নির্দেশেই আবদুল মজিদকে কেরাণীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগারে কনডেম সেলে রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন- খুনি মাজেদের দণ্ডাদেশ দ্রুত কার্যকর হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার রায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি ক্যাপ্টেন মাজেদ দীর্ঘ দিন পলাতক ছিলেন। তাকে ধরতে ইন্টারপোলের রেড অ্যালার্টও জারি করা হয়েছিল। সোমবার (৬ এপ্রিল) দিবাগত রাতে মিরপুর সাড়ে ১১ থেকে গ্রেফতার করা হয় তাকে।

এদিকে, মিরপুর এলাকায় করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বেশি হওয়ায় ওই এলাকা থেকে গ্রেফতার হওয়া আবদুল মজিদের মাধ্যমে কারাগারে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়তে পারে কি না— তা নিয়ে শঙ্কা তৈরি হয়।

বঙ্গবন্ধুর খুনি ক্যাপ্টেন মাজেদ ঢাকায় গ্রেফতার

আইনমন্ত্রী এ প্রসঙ্গে বলেন, আবদুল মজিদ কারাগারে করোনাভাইরাসের ঝুঁকি তৈরি করতে পারেন কি না, এমন প্রশ্ন আমার কাছেও এসেছে। তিনি ফাঁসির দণ্ডে দণ্ডিত একজন আসামি। আর ফাঁসির দণ্ডে দণ্ডিতদের সলিডারি কনফাইনমেন্টে রাখা হয়। তাকেও সলিডারি কনফাইনমেন্ট রাখা হবে। ফলে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকিও সেভাবে থাকবে না।

আব্দুল মাজেদকে গ্রেফতারের পর মঙ্গলবার সকালে তাকে আদালতে হাজির করা হয়। আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। সে অনুযায়ী কেরাণীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগারে রাখা হয়েছে ক্যাপ্টেন মজিদকে।

সারাবাংলা/এজেডকে/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন