বিজ্ঞাপন

প্রাণ আর প্রকৃতি রক্ষার লড়াইয়ে এক সাংবাদিক

April 24, 2020 | 7:16 pm

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

মৌলভীবাজার: পরিবেশ বিপর্যয়ে যখন নষ্ট হচ্ছে বাস্তুসংস্থান, নগরায়ন কিংবা বন উজাড়ের ফলে যখন বন্যপ্রাণি আশ্রয় হারাচ্ছে, মানব সৃষ্ট দুর্যোগে যখন পাখি নীড় হারাচ্ছে তখন প্রকৃতির যোদ্ধা হয়ে এগিয়ে এসেছেন সাংবাদিক হৃদয়। তার একান্ত চাওয়া সবুজ প্রাণ-প্রকৃতি সুরক্ষিত থাকুক।

বিজ্ঞাপন

পেশায় সংবাদকর্মী হৃদয় কাজ করছেন বেসরকারি জনপ্রিয় টেলিভিশন চ্যানেলে জিটিভি ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল সারাবাংলা ডট নেটের মৌলভীবাজার ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট হিসেবে। গণমাধ্যমে পরিবেশ ও জীববৈচিত্র নিয়ে নিয়মিত কাজ করেন হৃদয়। গণমাধ্যমে পরিবেশ ও জীববৈচিত্র নিয়ে অসংখ্য প্রতিবেদন করেছেন তিনি। তার ক্যামেরায় উঠে আসে প্রাণ-প্রকৃতি রক্ষার নানা দিক। তুলে ধরেন পরিবেশের সঙ্গে মানুষের বেঁচে থাকার সম্পর্কের কথা। তার প্রতিবেদনে রক্ষা পেয়েছে হাজারো প্রাণ, চাকরি হারিয়েছেন খোদ বন বিভাগের লোকজনও।

প্রাণ আর প্রকৃতি রক্ষার লড়াইয়ে এক সাংবাদিক

বিজ্ঞাপন

কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ বিভাগীয় পর্যায়ে প্রথম স্থান অর্জন করে বৃক্ষরোপণ ও সংরক্ষণে প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় পুরস্কার ২০১৮ সম্মানেও ভূষিত হন সাংবাদিক হৃদয়। পরিবেশ সচেতনতা বৃদ্ধিতেও তার অবদান রয়েছে।

হৃদয় বলেন, ‘প্রতিটি প্রাণি আমাদের প্রাকৃতিক পরিবেশ ও বাস্তুসংস্থানে গুরুত্বপূর্ণ। প্রাণ ও প্রকৃতি আঁকড়ে টিকে আছে আমাদের মানবসভ্যতা। তাই এগুলো রক্ষা করা মানে আমাদের নিজ সভ্যতা রক্ষা করা। প্রাণি ও প্রকৃতি রক্ষায় একটু হলেও জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে আমার প্রচেষ্টা।’

বিজ্ঞাপন

প্রাণ আর প্রকৃতি রক্ষার লড়াইয়ে এক সাংবাদিক

প্রকৃতি ও সংরক্ষণ বিভাগের রেঞ্জ কর্মকর্তা মোনায়েম হোসেন সারাবাংলাকে জানান, দীর্ঘদিন ধরে এমনকি এ করোনার ঝুঁকির মধ্যেও সাংবাদিক হৃদয় দেবনাথের নেতৃত্বে ‘জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ ফাউন্ডেশন টিমে’র প্রতিটি সদস্য একের পর এক সফল অভিযান চালিয়ে যাচ্ছেন, যা নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবিদার। পাশাপাশি জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ ফাউন্ডেশের প্রতিটি কাজে আমরা বনবিভাগ সবসময় ছিলাম এবং আছি।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এমও

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন