বিজ্ঞাপন

তৃণমূল ২০০ কোচকে আর্থিক সহায়তা করলেন তরফদার

April 24, 2020 | 7:57 pm

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট
ঢাকা: বিশ্ব আজ ভয়াবহ পরিস্থিতির ভেতর দিয়ে যাচ্ছে। করোনার ভয়াল থাবা থেকে মুক্তির জন্য সবাই যুদ্ধ করে যাচ্ছে, সংগ্রাম করে যাচ্ছে। বাংলাদেশও এর ব্যতিক্রম না। প্রায় ১ মাস করোনার হাত থেকে বাঁচার জন্য ঘরে বসে সাধারণ মানুষ। লকডাউনের মধ্য দিয়ে দিন অতিবাহিত করছে সবাই। করোনার কারণে বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গন থমকে গেছে। শুধু বাংলাদেশ নয়; সারা পৃথিবীর ক্রীড়াঙ্গন আজ বন্ধ হয়ে গেছে। কোথাও কোনো খেলা হচ্ছে না।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশের মাঠে আজ ফুটবল নেই। খেলা না থাকায় ফুটবলার তৈরির যারা কারিগর, তাদেরও কোনো কাজ নেই। কোচ যারা আছেন; তৃণমূল পর্যায়ে যারা দিন-রাত পরিশ্রম করে, যারা ফুটবলার তৈরি করেন, তাদের কোনো কাজ নেই। আমাদের ফুটবলারদের কোনো কাজ নেই। সংগঠকদের কোনো কাজ নেই। সবাই একটা অর্থনৈতিক কষ্টের মধ্যে দিয়ে পার করছে।

এই সময়ে দেশের তৃণমূল কোচদের আর্থিক সহায়তা দিয়ে পাশে দাঁড়িয়েছেন বাংলাদেশ জেলা ও বিভাগীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (বিডিডিএফএ) সভাপতি এবং বাংলাদেশ ফুটবল ক্লাবস অ্যাসোসিয়েশনের (বিএফসিএ) মহাসচিব তরফদার রুহুল আমিন।

বিজ্ঞাপন

দেশের ৬৪ জেলার প্রায় ২০০ তৃণমূল কোচকে আর্থিক সহযোগিতা করে এই মানবিক উদ্যোগে সরিক হয়েছেন তিনি। তরফদার বলেন, ‘আমরা ইতোমধ্যে বাংলাদেশ জেলা ও বিভাগীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের (বিডিডিএফএ) এবং বাংলাদেশ ফুটবল ক্লাবস অ্যাসোসিয়েশন (বিএফসিএ) যে একাউন্ট আমরা করেছি করোনা দুর্যোগকে মাথায় রেখে যে ফান্ড আমরা রেইস করেছি সেখানে আমার নিজস্ব ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ২৫ লাখ টাকা রেইস করেছি। সেখান থেকে অলরেডি ৬৪টি জেলার ২০০শত কোচকে আর্থিক সহায়তা ইতোমধ্যে আমরা দিয়েছি।’

এই ধারা অব্যাহত রাখবেন বলে জানিয়েছেন তিনি, ‘আগামী সপ্তাহে ক্লাবগুলো নিয়ে কাজ করব। ইতোমধ্যে ক্লাবগুলোর কোচের তালিকা প্রায় সম্পন্ন হয়ে গেছে। তালিকা থেকে ঢাকার ক্লাবগুলোর কোচদের আমরা সহায়তা দেব।’

বিজ্ঞাপন

তৃণমূলক কোচদের আর্থিক সাহায্য করার পেছনে যুক্তি দিলেন তিনি, ‘কোচদের আমরা সার্পোট দিচ্ছি এই কারণে যে ক্রীড়াঙ্গনে যারা ফুটবলার তৈরি করেন; তাদেরকে আমাদের ঠিক রাখতে হবে। ওনারা ঠিক থাকলে ফুটবলার তৈরি হবে, নইলে হবে না। আজকে যারা প্রিমিয়ার লিগে যে সমস্ত ক্লাবে খেলে এবং যারা জাতীয় দলে খেলা তারা কিন্তু গ্রাম থেকে উঠে এসেছে, তৃণমূল পর্যায় থেকে এসেছে। তারাই কিন্তু বাংলাদেশের লাল-সবুজ পতাকা হাতে নিয়ে পৃথিবীর বিভিন্ন জায়গায় দেশের প্রতিনিধিত্ব করছে। অতএব আমাদের ফুটবলার তৈরির যারা কারিগর তাদের দিকে প্রথমে তাকাতে হবে।’

কোচ ছাড়াও ফুটবলার-সংগঠকরাও এ তালিকায় আছেন বলে জানিয়েছে তরফদার, ‘আমাদের এই পর্যায় থেকে সরকারে কাছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানাই আমাদের ক্রীড়াঙ্গনের জন্য যদি সুনির্দিষ্ট করে একটা প্যাকেজ ঘোষণা করা যায়, যেখান থেকে যারা ফুটবল তৈরির কারিগর, যারা কোচ আছেন, সংগঠক আছেন, যারা ফুটবলার আছে, রেফারি আছে তারা যদি ব্যাংক থেকে সহজ শর্তে দীর্ঘমেয়াদী ঋণ পায়, তাহলে তারা এই অবস্থা থেকে ঘুরে দাঁড়াবে। পরিস্থিতির অনেকটা উত্তরণ ঘটবে।’

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/জেএইচ

Tags: , ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন