বিজ্ঞাপন

ঢামেকে ৯ দিনে ৯১ জনের মৃত্যু: করোনায় ৭ জন, ৮৪ জন সাসপেকটেড

May 11, 2020 | 1:27 am

ঢাকা: ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিট যেন মৃত্যুপুরী। ২ মে সেখানে করোনা আক্রান্ত ও সাসপেকটেড রোগী ভর্তি শুরু হয়। রোববার (১০ মে) পর্যন্ত সেখানে ৮৯ জন ভর্তি রোগী মারা গেছে। আর দুজন মারা গেছে জরুরি বিভাগে। মোট মৃতের সংখ্যা ৯১। এদের মধ্যে সাতজন কোভিড-১৯ আক্রান্ত ছিল।

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে ঢামেকের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন বলেন, ‘মৃত্যুর সংখ্যাটি আমি বলতে পারব না। তবে মৃত্যুর হার নয়দিনে অনেক। এদের মধ্যে করোনা সাসপেকটেডের সংখ্যা অনেক বেশি। পাশাপাশি কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়েও মারা গেছে কয়েকজন।’

তিনি জানান, হার্টের সমস্যা, শ্বাসকষ্ট নানাধরনের অসুখ নিয়ে রোগীরা সরাসরি কোভিড ইউনিটে ভর্তি হচ্ছে। অনেক হাসপাতাল ঘুরে এখানে আসছে। যে রোগীগুলো মারা গেছে তাদের সবার অবস্থা খুব খারাপ ছিল।

বিজ্ঞাপন

ঢামেক কোভিড-১৯ ইউনিটের ওয়ার্ড মাস্টার মোহাম্মদ রিয়াজ জানান, গত নয় দিনে ঢামেকের নতুন কোভিড-১৯ হাসপাতালে মারা গেছে ৯১ জন। গত ২ মে শুরু হয় বার্ন ইউনিটে কোভিড রোগী ভর্তির কর্যক্রম। সেদিন ভর্তি শুরু হতে না হতেই মারা যায় একজন। এরপর থেকে একে একে প্রতিদিনই মৃত্যুর সংখ্যা বাড়তে থাকে। সে অনুযায়ী রোববার পর্যন্ত ৯১ জন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে সাত জন করোনা পজিটিভ। বাকিরা সাসপেকটেড।

ওয়ার্ড মাস্টার মোহাম্মদ রিয়াজ আরও জানান, বর্তমানে হাসপাতালে রোগী ভর্তি আছে ১৯৫জন। এর মধ্যে আইসিউতে আছে ১০জন। এ কয়দিনে রোগী ভর্তি হয়েছিল প্রায় ৬০০ জন। অনেকেই চিকিৎসা নিয়ে বাসায় গেছেন। আবার অনেকেই হাসপাতালের কাউকে কিছু না বলে চলে গেছে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএস/আর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন