বিজ্ঞাপন

এএফসির কোটা কমার শঙ্কায় বাংলাদেশ!

May 18, 2020 | 11:17 am

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট
ঢাকা: স্থগিত বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) বাতিলের সিদ্ধান্তের পর থেকেই শঙ্কাটা তৈরি হয়েছে। লিগ পরিত্যক্ত ঘোষণা করায় আগামী মৌসুমের এএফসি কাপ নিয়ে ‍দৃশ্যত জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে। এশিয়া অঞ্চলের ক্লাব পর্যায়ের অন্যতম জনপ্রিয় এই আসরটিতে কোটা কমার সমূহ সম্ভাবনা আছে বাংলাদেশের!

বিজ্ঞাপন

অর্থাৎ দুটো স্লট থেকে একটি স্লট হারাতে পারে বাংলাদেশ!

সেটা কিভাবে?

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশের হয়ে দুটি ক্লাব অংশ নিতে পারে এএফসি কাপ ফুটবলে। প্রিমিয়ার লিগে চ্যাম্পিয়ন হিসেবে একটি দল সরাসরি গ্রুপ পর্বে খেলতে পারে যেমনটি এবার খেলছে বসুন্ধরা কিংস। আর ফেডারেশন কাপে চ্যাম্পিয়ন হলে প্লে-অফ খেলার সুযোগ থাকছে যেমনটি এবার ঢাকা আবাহনী খেলেছে। তবে এবার লিগ পরিত্যক্ত ঘোষণা করে দেয়ায় চ্যাম্পিয়ন বা রানার্স আপ পাওয়ার সুযোগ থাকছে না। যার কারণে এএফসি কাপে সুযোগ পেতে যে নিয়ম অনুসরণ করতে হয় তা বাধাগ্রস্ত হওয়ার সম্ভাবনা প্রখর। যার ফলে আগামী মৌসুমের এএফসি কাপের ফুটবলে সরাসরি গ্রুপ পর্বে খেলার সুযোগ হারাতে পারে বাংলাদেশ।

এ বিষয়ে বাফুফের পেশাদার লিগ কমিটির চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম মুর্শেদী সারাবাংলাকে একটা পদ্ধতির কথা ব্যক্ত করে বলেন, ‘যেকোন ক্লাব চাইলে তো খেলতে পারবে না। যে সময়টা আসবে হয়তো তিন থেকে চার মাস পরে তখন বাস্তবতাই বলে কী সিদ্ধান্ত আসবে। তখন এমন হইতে পারে তিনটা ক্লাবের কারো প্রিপারেশন নাই হইতে পারে, চতুর্থ ক্লাব হয়তো প্রস্তুত খেলার ব্যাপারে। ক্লাবের অবস্থান বুঝে সিদ্ধান্ত নিবো। এমন দলকে দিবো না যারা ১০ টা গোল খেয়ে বসবে।’

বিজ্ঞাপন

কথাগুলো তিনি বলছিলেন এবার লিগের এএফসি কাপের দৌড়ে থাকা দলগুলোকে বিবেচনা করে। পরিত্যক্ত হওয়া লিগে ছয় রাউন্ড শেষে ঢাকা আবাহনী, চট্টগ্রাম আবাহনী, শেখ জামাল, সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব, মোহামেডান-বসুন্ধরা কিংসসহ শীর্ষ দলগুলো শিরোপার দাবিতে লড়াই করছে। পয়েন্ট টেবিলে এক দল আরেক দলের ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলছে। এই অবস্থায় বাতিলের ঘোষণা আসলো।

বাতিলের সিদ্ধান্ত কি এএফসির নিয়মের বিপরীতে অবস্থান করছে কী না প্রশ্নের জবাবে সালাম মুর্শেদী বলেন, ‘আমরা যা করি এএফসি গাইডলাইন মেনেই করি। এএফসির কাছে কিন্তু জানিয়েই করেছি বৈঠক করেছি। সিদ্ধান্ত নিয়েছি। যখন এএফসির টুর্নামেন্ট নিয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার সময় আসবে আমরা গাইডলাইন মেনেই দলের নাম পাঠাবো।’

বিজ্ঞাপন

করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়া সাপেক্ষে এ বিষয়ে নির্বাহী কমিটির মাধ্যমে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানান তিনি।

সারাবাংলা/জেএইচ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন