বিজ্ঞাপন

রাজত্ব করবেন সাকিব— আগেই ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন কোচ সালাউদ্দিন

May 24, 2020 | 2:11 am

স্পোর্টস ডেস্ক

জাত জহুরী তিনি। রত্ন চিনতে ভুল করেন না। সাকিবের বেলায় তার ভবিষ্যদ্বাণী মিলেছে কাটায় কাটায়। সাকিব যে বিশ্ব ক্রিকেটে রাজত্ব করতে যাচ্ছেন সেটা তিনি অনেক আগেই বলেছিলেন। সাকিব আল হাসানের গুরু কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিনের কথা হচ্ছে। তিনি যে রত্ন চিনেন, এটা ওয়াকিবহাল মহলের আগে থেকেই জানা। এবার  ডিজিটাল প্লাটফর্ম র‌্যাবিটহোলের আয়োজন 'ক্রিকাড্ডা'য় যুক্ত হয়ে জানালেন, সাকিব যে বিশ্ব ক্রিকেট মঞ্চ কাঁপানে এটা বহু  আগেই ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

করোনাভাইরাসের ক্রিকেটহীন সময়ে ক্রীড়াসাংবাদিক তায়িব অনন্তের উপস্থাপনায় দেশের জনপ্রিয় র‌্যাবিটহোলবিডির প্লাটফর্মে আয়োজিত হচ্ছে ক্রিকেটার্স গসিপ শো ‘গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স প্রেজেন্টস-ক্রিকাড্ডা উইথ অনন্ত’। দেশের ক্রিকেট সংশ্লিষ্টদের নিয়ে নিয়মিত চলছে এই আয়োজন। ‘ক্রিকাড্ডা’য় যুক্ত হয়ে ক্রিকেট এবং ব্যক্তিগত বিভিন্ন ইস্যুতে কথা বলার পাশাপাশি সাকিবকে নিয়েও বলেছেন দেশের তরুণ ক্রিকেটার গড়ার কারিগর কোচ সালাউদ্দিন।

২০০৬ সালের আগস্টে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অভিষেক সাকিবের, বছর তিনেক না যেতেই প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার বনে যান। ২০১৫ সালের জানুয়ারিতে প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে তিন ফরম্যাটেই বিশ্বসেরা ক্রিকেটার হন সাকিব। এর আগেই অবশ্য সাকিব বিশ্ব ক্রিকেটে সুপারস্টার বনে যান। ভারতের জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকার হার্শা ভোগলে একবার বলেছিলেন, 'সাকিবের মতো ক্রিকেটার দুনিয়ায় একবারই আসে'। এবার ক্রিকাড্ডায় বাংলাদেশের খ্যাতনামা কোচ সালাউদ্দিন বলেছেন, এমনটা তিনি আগেই জানতেন। অনেককে বলেছেনও।

বিজ্ঞাপন

বিকেএসপিতে তরুণ সাকিবকে কোচিং করিয়েছেন সালাউদ্দিন। ‘ক্রিকাড্ডা’য় সাকিব প্রসঙ্গ উঠতেই নামকরা এই কোচ ফিরে গেলেন সেই সময়গুলোতে। তিনি বলেন, ‘সাকিব যখন অনূর্ধ্ব-১৭ তে খেলত তখন আমার খুব কাছের বন্ধু রাবিদ ইমাম আমাকে জিজ্ঞেস করল, এমন একটা ছেলের নাম বলো যে পাঁচ বছর পর বিশ্ব ক্রিকেটে প্রভাব বিস্তার করবে। আমি তখন বলেছিলাম, সাকিব আল হাসান। রাবিদ বলল, ও তো সবে অনূর্ধ্ব-১৭ তে খেলে। কিন্তু পাঁচ বছর পর সাকিব ওয়ানডে ক্রিকেটে বিশ্বের এক নম্বর অলরাউন্ডার হয়ে যায়।’

গত বিশ্বকাপে সাকিবের পারফরম্যান্স ছিল বিস্ময়কর। ২ সেঞ্চুরি ৫ হাফ সেঞ্চুরিতে ৮ ম্যাচে ৬০৬ রান করেন। বল হাতে উইকেট নিয়েছেন ১১টি। বিশ্বকাপের আগে ভারতে সালাউদ্দিনকে নিয়ে একান্তে অনুশীলন করেছিলেন সাকিব। আইপিএলে সেবার সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের সেরা একাদশে নিয়মিত জায়গা হচ্ছিল না সাকিবের। ওই সময়টাতে সালাউদ্দিনকে ডেকে নিয়ে নিজেকে আরও ঝালিয়ে নেন তিনি।

সেই সময়টার গল্প শুনিয়েছেন সালাউদ্দিন,‘আমি মনে করি এখানে আমার আসলে কোন অবদান নেই। সে তখন মনে করেছে অনুশীলনে আমি থাকলে তার জন্য স্বাচ্ছন্দ্য হবে। আইপিএলে আসলে অনুশীলনের জন্য অনেক সুযোগ সুবিধা। আপনি ওখানে যা চান তাই পাবেন। সে সেটা কাজে লাগাতে চেয়েছে। হয়তো মনে করেছে সেই সময় আমি পাশে থাকলে সে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করবে তাই আমাকে ডেকে নিয়েছিল। আর আমরা আসলে নতুন কিছু করি না। রুটিন বিষয়গুলোই অনুশীলন করা হয়। কোন বেসিক জিনিসে গ্যাপ হয়ে গেল কিনা সেটা খতিয়ে দেখা হয়। সবচেয়ে বড় কথা বিশ্বকাপের আগে ও নিজেকে দারুণভাবে প্রস্তুত করতে চাইছিল। সেই কারণেই হয়তো বিশ্বকাপে তার অতো ভালো পারফরম্যান্স।’

সাফল্যের দিক দিয়ে কোচ হিসেবে দেশিদের মধ্যে অনেকটাই এগিয়ে সালাউদ্দিন। বিপিএলে বিদেশি কোচদের ভিড়ে দেশিদের মধ্যে তিনিই নিয়মিত। তার অধীনে গত বিপিএলে শিরোপা জিতেছে কুমিল্লা। বিপিএলে কোচিংয়ের মন্ত্র জানতে চাইলে সালাউদ্দিন বলেন, ‘আমি মনে করি বিপিএলে কোচিং করানো অনেক সহজ আবার অনেক কঠিন। কারণ এখানে কোচদের আসলে তেমন কিছু করার থাকে না। অধিনায়কের বড় ভূমিকা এখানে। আমি সাধারণত বিদেশি প্লেয়ারদের সঙ্গে দেশিদের একটা সেতুবন্ধন গড়ার চেষ্টা করি। বিদেশিদের মধ্যে খুব একটা কর্তৃত্ব খাটাতে চাই না, তাদের সম্মান করি, তাদেরকে বুঝার চেষ্টা করি। সেই কারণেই হয়তো সবাইকে একসঙ্গে নিয়ে কাজ করাটা সহজ হয়ে যায়।’

এবারের প্রিমিয়ার লিগে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের কোচের দায়িত্ব পালন করছেন সালাউদ্দিন। করোনাভাইরাসের কারণে লিগ আপাতত বন্ধ। অভিজ্ঞ এই কোচ বললেন, এবার দারুণ ব্যালেন্স টিম গঠন করেছে গাজী গ্রুপ।

আড্ডার মধ্যে বাংলাদেশ ক্রিকেটের আরেক মহাতারকা মোহাম্মদ রফিকের নামও উঠে এলো। আড্ডার এক পর্যায়ে সঞ্চালকের প্রশ্ন ছিল, আপনার হাতে যদি সুযোগ থাকে, বর্তমান জাতীয় দলে অতীতের যে কোন একজন ক্রিকেটারকে সংযুক্ত করতে পারবেন তাহলে কাকে বেছে নেবেন? সালাউদ্দিন এক কথাতেই নিলেন রফিকের নাম।

তিনি বলেন, ‘রফিক ভাই যে বোলিংটা করতেন সেটা আসলে আমাদের দেশের উইকেটের জন্য খুবই কার্যকর ছিলো। প্রতিটা বল স্ট্যাম্পে পড়ত, বলে পেস ছিল। আমাদের উইকেটের জন্য খুবই কার্যকর ছিল সেটি। দেশে বামহাতি স্পিনার দিন দিন কমে যাচ্ছে। দলেও ভালো মানের বামহাতি স্পিনার নেই। সেই কারণেই আমি মনে করি রফিক ভাই থাকলে ভালো হতো।’

জাতীয় দলের ক্রিকেটার, বিভিন্ন বয়সভিত্তিক দলের সদস্য ও ক্রিকেট ব্যক্তিত্বদের নিয়ে এই আয়োজনটি প্রচারিত হয় রাত সাড়ে ১১ টায় র‍্যাবিটহোলবিডি ফেসবুক পেইজে (facebook.com/rabbitholebd) এবং র‍্যাবিটহোলবিডি স্পোর্টস ইউটিউব চ্যানেলে (Rabbitholebd Youtube Channel)।

সারাবাংলা/এসএইচএস/আইই

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন