বিজ্ঞাপন

বাড়বে বিআরটিসি বাসের ভাড়াও, প্রস্তাব এখন মন্ত্রণালয়ে

May 30, 2020 | 10:41 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বেসরকারি বাস মালিকদের প্রতি একাত্মতা জানিয়ে সরকারি পরিবহন প্রতিষ্ঠান বিআরটিসি’র ভাড়াও বাড়ছে। করোনা পরিস্থিতিতে অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলার কারণে বাস মালিকদের দাবির প্রেক্ষিতে বিআরটিএ ৮০ শতাংশ বৃদ্ধির সুপারিশ করেছে। এটি এখন মন্ত্রণালয় থেকে অনুমোদনের অপেক্ষায়।

বিজ্ঞাপন

বিআরটিএ এর ভাড়া পুনর্বিবেচনার এই কমিটিতে সরকারি প্রতিষ্ঠান বিআরটিসি’র একজন কর্মকর্তা ছিলেন।

বিআরটিসি’র চেয়ারম্যান এহসান ই এলাহী জানান, বিআরটিসি বিআরটিএ’র নির্ধারণ করা ভাড়ায় চলাচল করে। এখন বাস ভাড়া ৮০ শতাংশ বৃদ্ধির প্রস্তাব করা হয়েছে। বিআরটিসি সেটি অনুসরণ করবে। কারণ অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলে বাস পরিচালনায় ক্ষতি হবে, এমনিতেই করোনায় বাস না চলায় ক্ষতি হয়েছে।

তবে বাসভাড়া বৃদ্ধির সুপারিশ অগ্রহণযোগ্য ও সুবিবেচনাপ্রসূত হয়নি বলে জানিয়েছে কনজুমারস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) ।

বিজ্ঞাপন

ক্যাব সভাপতি গোলাম রহমান বলেন, ‘বাড়তি ভাড়া যাত্রীদের ওপর চাপিয়ে দেওয়ার প্রচেষ্টা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। যেহেতু প্রতিটি বাসে ৫০ শতাংশ সিট খালি রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে তাই বাস মালিকদের যেন আর্থিক ক্ষতির মুখোমুখি না হতে হয় সেজন্য সরকার অন্যান্য শিল্প-বাণিজ্যের ন্যায় গণপরিবহণের জন্যও আর্থিক প্রণোদনা বা ভর্তুকি এবং স্বল্প সুদে ব্যাংক ঋণের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বিগত কয়েক দশকের মধ্যে জ্বালানি তেলের দাম বিশ্ব বাজারে এখন সর্বনিম্ন পর্যায়ে নেমে এসেছে, তাই বিশ্ব বাজারের সাথে দেশে জ্বালানি তেলের দাম সমন্বয় করা হলে বাস ভাড়া বৃদ্ধি করার আদৌ প্রয়োজন হবে না।’

এদিকে বাস বৃদ্ধির এই প্রস্তাবকে যাত্রী কল্যাণ সমিতি প্রত্যাখ্যান করেছে। সড়কে চাঁদাবাজি বন্ধ না করে এবং তেলের দাম না কমিয়ে বাসভাড়া বৃদ্ধিকে ভালো চোখে দেখেনি সমিতি।

বিজ্ঞাপন

বাসভাড়া ৮০ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব

সমিতির মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী বলেন, ‘অতীতে বাস ভাড়া বৃদ্ধির পর আর কমানোর নজির নেই। এবারও সেই আশঙ্কা থেকে যাচ্ছে। অন্যদিকে সড়কে চাঁদাবাজি এবং তেলের দাম কমানো দরকার। চাঁদাবাজি ও তেলের দাম কমালে বাস ভাড়া বৃদ্ধি করতে হতো না।’ এমনিতেই জনসাধারণের আয় ইনকামের পথ বন্ধ এর মধ্যে ৮০ শতাংশ বাস ভাড়া বেড়ে গেলে সাধারণের ওপর অসাধারণ চাপ পড়বে বলে মন্তব্য করেন মোজাম্মেল হক।

তিনি আরও বলেন, ‘বাস মালিকরা সরকারের প্রণোদনা চান এবং প্রণোদনার সুবিধা বিভিন্ন উপায়ে নেবেন। তাহলে বাস ভাড়া কেন বাড়াতে হবে আর বিআরটিএ সেটি মেনে নিয়ে প্রস্তাব দিয়েছে।’

বিজ্ঞাপন

বিআরটিএ’র পরিচালক লোকমান হোসেন মোল্লা জানান, ‘অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলবে বাস। প্রতি সিটের পাশের সিট খালি থাকবে। এজন্য যাত্রীকে তার সিটের ভাড়ার পাশাপাশি আরেকটি সিটের ৮০ শতাংশ ভাড়া দিতে হবে।’

পরিবহন সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানায়, সারাদেশে এসি বাসের ভাড়া বিআরটিএ’র নির্ধারণ করা ছিল না। এই অবস্থায় সুযোগ পেয়ে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত বাসের ভাড়া বহুগুণ বেড়ে যাবে। এক্ষেত্রে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম যেতে একজন যাত্রীকে আগে যেখানে ১ হাজার টাকা দিতে হতো সেখানে এখন ১ হাজার ৭০০ থেকে ১ হাজার ৮০০ টাকা দিতে হবে।

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, ভাড়া নির্ধারণ কমিটি যে প্রস্তাব দিয়েছে তা মন্ত্রণালয় বিবেচনা করে দেখবে। আর এক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত নিতে সময় হাতে একদিন। শেষ পর্যন্ত মন্ত্রণালয়ে ৫০ শতাংশ ভাড়া বৃদ্ধির অনুমোদন দিতে পারে।

বিজ্ঞাপন

এদিকে বাংলাদেশ রেলওয়ে ট্রেনে অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চললেও ভাড়া বাড়াবে না বলে ঘোষণা করেছে। লঞ্চের ভাড়া বৃদ্ধির দাবি তুলেছেন লঞ্চ মালিকরা। এ নিয়ে এখনও সিদ্ধান্ত হয়নি। বাস বাড়ার সঙ্গে মিলিয়ে এখানেও ৮০ শতাংশ বৃদ্ধির প্রস্তাব বিবেচনায় নেয়া হচ্ছে বলে বিআইডব্লিউটিএ সূত্র জানিয়েছে।

বাংলাদেশ বাস-ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ও শ্যামলী এন আর ট্রাভেলস ম্যানেজিং ডিরেক্টর রাকেশ ঘোষ জানান, বাস ধোয়ামোছা শেষে এখন ছাড়ার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। ১ জুন প্রথম প্রহর থেকেই বাস চলা শুরু করবে। তার আগেই বাস বিভিন্ন গন্তব্যে পাঠিয়ে দেওয়া হবে যাতে শুরুর দিন থেকে সারাদেশে বাস চলাচল সক্রিয় হয়।’

এর আগে, আগামী ১ জুন থেকে সারা দেশে বাস চলাচল শুরু হবে বলে জানানো হয়। তবে বাসের ভাড়া বড়লেও বাড়বে না রেল ও নৌ পরিবহনের ভাড়া। আগের ভাড়াতেই রেল ও নৌ চলাচলের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

সারাবাংলা/এসএ/এমও

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন