বিজ্ঞাপন

জৈন্তাপুরে শেয়াল, বাঘডাশসহ ৯ বন্যপ্রাণী হত্যা, বন বিভাগের মামলা

May 31, 2020 | 1:30 am

হৃদয় দেবনাথ, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

সিলেট থেকে ফিরে: সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার ফতেহপুর ইউনিয়নের বালিপাড়া গ্রামে অন্তত ছয়টি শেয়াল, দুইটি বাঘডাশ ও একটি বেজিকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করেছে স্থানীয়রা। পরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে স্থানীয় বন বিভাগ ও পুলিশ। প্রাণী ও পরিবেশ অধিকারকর্মীরাও ছিলেন তাদের সঙ্গে। এ ঘটনায় বন বিভাগ মামলা দায়ের করেছে।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) সিলেটের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল করিম কিম সারাবাংলাকে বলেন, শুক্রবার (২৯ মে) ওই এলাকার টিলায় বসবাসরত এসব বন্যপ্রাণীকে স্থানীয়রা হত্যা করেছে। তবে বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে প্রশাসন ও বনবিভাগ যেভাবে কাজ করেছে, তাতে তাদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও যারা বিষয়টি নিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছেন, তাদেরও ধন্যবা জানান তিনি।

জৈন্তাপুরে শেয়াল, বাঘডাশসহ ৯ বন্যপ্রাণী হত্যা, বন বিভাগের মামলা

সিলেটের উপ-বন সংরক্ষক ও বিভাগীয় বন কর্মকর্তা এস এম সাজ্জাদ হোসেন সারাবাংলাকে বলেন, ‘তারা এমন নির্মমভাবে প্রাণীগুলোকে হত্যা করেছে, তা ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়। আমাদের বন বিভাগের পক্ষ থেকে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। দ্রুতই অপরাধীদের গ্রেফতার করে বিচারের মুখোমুখি করা হবে।’

বিজ্ঞাপন

জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ ফাউন্ডেশনের সভাপতি হৃদয় দেবনাথ ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে বন্যপ্রাণী আইনের কঠোর প্রয়োগের দাবি জানিয়ে বলেন, ‘আইনের সঠিক প্রয়োগ না হওয়ায় এবং সচেতনতার অভাবে বন্যপ্রাণী হত্যা বেড়ে চলছে। তাই এ বন্যপ্রাণী আইনের কঠোর প্রয়োগের দাবি জানাই।’

শনিবার সকালে প্রাণ-প্রকৃতি সংরক্ষণ কর্মকর্তা ফরেস্ট রেঞ্জার মোনায়েম হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সারাবাংলাকে জানান, এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে হত্যাকারীদের শনাক্ত করা হয়েছে। সেই সঙ্গে বন বিভাগ বন্যপ্রাণী/সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা আইন ২০১২ আইনে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে বন আইনে মামলা দায়ের করেছে।

মামলার তথ্য নিশ্চিত করে জৈন্তাপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শ্যামল বণিক সারাবাংলাকে বলেন, বন বিভাগসহ আমরা পুলিশ প্রশাসন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এ জঘন্য অপরাধের সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে বন আইনে মামলা হয়েছে। অপরাধীদের গ্রেফতার করা হবে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন