সোমবার ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ২ পৌষ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৮ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

কঠোর সমালোচনা করলেন দেবাশীষ বিশ্বাস

ডিসেম্বর ৯, ২০১৭ | ৫:৩০ অপরাহ্ণ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

বিজ্ঞাপন

‘চল পালাই’ মুক্তির আগে দেবাশীষ বিশ্বাস পড়েছিলেন বিতর্কের মুখে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ছবিটি নিয়ে নেতিবাচক আলোচনা ছড়িয়েছেন অনেকেই। বিতর্ক ছড়ানো সে সব ফেসবুক গ্রুপের কঠোর সমালোচনা করেছেন দেবাশীষ।

‘চল পালাই’ নিয়ে সারাবাংলার সঙ্গে আলাপচারিতায় তিনি বলেছেন, ‘আমার বাবা (দীলিপ বিশ্বাস) বলেছিলেন, আমাদের দেশে কিছুদিন পর এমন একটা বেয়াদব গ্রুপের জন্ম হবে যারা কিছু না জেনেই বোদ্ধা হবেন। একটা মাধ্যম তৈরি হবে যেটার মাধ্যমে মানুষকে অপমান করা হবে। তখন তো বাবাও জানতেন না ফেসবুক নামে একটা দুনিয়া তৈরি হবে! বাংলা চলচ্চিত্র নামে একটা ইডিয়ট এবং স্টুপিড গ্রুপ আছে, যারা কিছু না জেনে না শুনে কমেন্ট করেন।’

একইসঙ্গে দেবাশীষ সতর্কবাণী উচ্চারণ করেন, ‘আমাদের নিয়ে কমেন্ট করলে বুঝে শুনে করবেন। কারণ এখানে আমরা জেনে বুঝেই এসেছি।’

বিজ্ঞাপন

দেবাশীষ চলচ্চিত্র নির্মাণ করছেন ২০০১ সাল থেকে। ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ’-এর পর ‘শুভ বিবাহ’ পেরিয়ে ‘ভালোবাসা জিন্দাবাদ’। ‘চল পালাই’-য়ে তার সঙ্গী শিপন, তমা মির্জা ও শাহরিয়াজ। শুক্রবার মুক্তি পাওয়া এ ছবিটিকে দেবাশীষ বলছেন ‘স্বল্প বাজেটের ছবি’। চলচ্চিত্র ব্যবসায় মন্দার এ সময়ে এমন ধরণের ছবিকেই আদর্শ মানছেন তিনি।

তার ভাষায়, ‘ছবি নির্মাণ করে লাভের মুখ দেখা এখন অনেক কঠিন। আমাদের সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি ইদানিং প্রাদেশিক ইন্ডাস্ট্রির মতো হয়ে গেছে। একটা দেশের ইন্ডাস্ট্রির যে অবস্থা থাকার কথা, সেটা কিন্তু আমাদের নেই। ফলে বাজেটটাও ওরকমই হওয়া উচিত। অনেক বেশি বাজেট দিয়ে ছবি বানিয়ে কে কতো লস করলো ওই হিসেবে না গিয়ে কম বাজেটে ছবি বানিয়ে কম লাভ উপার্জন করার মধ্যে আনন্দ বেশি।’

‘চল পালাই’ তিনি বানিয়েছেন মাত্র চল্লিশ লাখ টাকায়। ছবি মুক্তির আগেই লগ্নিকৃত পুরো অর্থ ঘরে তুলেছেন। ছবির গান আর স্যাটেলাইট স্বত্ব বিক্রি করে পেয়েছেন বিশ লাখ। আর বাকি অর্থ এসেছে সিনেমা হল থেকে। ছবিটি মুক্তি পেয়েছে ৮ ডিসেম্বর।

ছবি: নূর

সারাবাংলা/কেবিএন/পিএ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন