বিজ্ঞাপন

এসএসসি’তে জিপিএ-৫ না পেয়ে শরীয়তপুর ও ময়মনসিংহে আত্মহত্যা

June 1, 2020 | 9:42 pm

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

এসএসসি'তে জিপিএ-৫ না পেয়ে আত্মহত্যা করেছে শরীয়তপুর ও ময়মনসিংহ জেলার দুই জন শিক্ষার্থী। রোববার (৩১ মে) তারা আত্মহত্যা করে বলে খবর পাওয়া গেছে।

বিজ্ঞাপন

এদিন শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলায় মোছাদিমা রহমান বর্ষা (১৭) নামে এক কিশোরী জিপিএ-৫ না পেয়ে ফ্যানের সঙ্গে গলায় ওড়না জড়িয়ে আত্মহত্যা করেছেন। রোববার সকাল পৌনে ১১টার দিকে উপজেলার গোসাইরহাট ইউনিয়নের বটনা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

মোছাদিমা রহমান বর্ষা উপজেলার গোসাইরহাট ইউনিয়নের বটনা গ্রামের আব্দুল মতিন সরকারের মেয়ে। তিনি ইদিলপুর সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এ বছর এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে জিপিএ- ৪.৫০ পেয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

ইদিলপুর সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এমদাদুল হক বলেন, বর্ষা পড়ালেখায় বেশ ভালো ছিল। সে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছিল। প্রকাশিত এসএসসি ফলাফলে দেখা যায়, বর্ষা তিনটি বিষয়ে ৭৮ নম্বর পেয়েছে আর বাকি সব বিষয়ে ৮০-এর উপর। অল্পের জন্য জিপিএ-৫ পায়নি সে। তাই শুনেছি আত্মহত্যা করেছে।

গোসাইরহাট থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোল্লা সোহেব আলী ঘটনা নিশ্চিত করে বলেন, সকাল পৌনে ১১টার দিকে নিজ ঘরে ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে সে। পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে জানতে পারি বর্ষা এবারের এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পায়নি। এ কারণে সে আত্মহত্যা করেছে।

এদিকে ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়ায় এসএসসিতে জিপিএ-৫ না পেয়ে আবির হোসেন চাঁদন (১৬) নামে এক শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে । নিহত চাঁদন উপজেলার বাকতা ইউনিয়নের স্কুল শিক্ষক ইউসুফ আলীর ছেলে। তিনি ফুলবাড়িয়া সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এবার জিপিএ ৪.৯৪ পেয়ে এসএসসি পাস করেন।

ফুলবাড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিজুর রহমান জানান, পৌরসভার পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন ভাড়া বাসা থেকে প্যান্টের বেল্ট গলায় পেঁচিয়ে ঘরের ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় ওই ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এসএসসিতে জিপিএ-৫ না পাওয়ায় অভিমানে আত্মহত্যা করতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

সারাবাংলা/আইই

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন