বিজ্ঞাপন

সাজেকে ৫০০০ স্বর্ণচাঁপার চারা বিতরণ

June 5, 2020 | 6:05 pm

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

রাঙ্গামাটি: বিশ্ব পরিবেশ দিবস উপলক্ষে রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেক ইউনিয়নের চারটি এলাকায় প্রায় ৫০০০ স্বর্ণচাঁপা ফুলগাছের চারা বিতরণ করা হয়েছে। গত বুধবার থেকে (৩ জুন) সড়ক ও জনপদ (সওজ) বিভাগের খাগড়াছড়ি জেলার উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী সবুজ চাকমা ও খাগড়াছড়ির স্থানীয় বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা (এনজিও) আলো’র নির্বাহী পরিচালক অরুণ চাকমা ব্যক্তি উদ্যোগে এসব চারা বিতরণ করেন।

বিজ্ঞাপন

সূত্রে জানা গেছে, পার্বত্য চট্টগ্রামের পাহাড়ের পরিবেশবিরোধী সেগুন গাছ সৃজনে স্থানীয়দের নিরুৎসাহিত করার জন্য তারা সাজেকের আটনাম্বার পাড়া, শনখোলা পাড়া, দুলনটাইন্ন্যা ও কিজিংপাড়া নামক এই চারটি এলাকায় ৪ হাজার ৮৪০টি স্বর্ণচাঁপা (স্থানীয় ভাষায় চম্পাফুল) ফুলগাছের চারা বিতরণ করেন।

এ গাছের বিশেষ বৈশিষ্ট্য হিসেবে তারা বলছেন, স্বর্ণচাঁপা গাছের বীজ পাখি খেয়ে থাকে এবং এ গাছটি অর্থনৈতিকভাবে দামি গাছ। এতে পাহাড়ের সাধারণ মানুষ সেগুন গাছের বাগান করা থেকে বিরত থাকবেন।

বিজ্ঞাপন

পাহাড়ের পাখি বিষয়ক আলোকচিত্রী ও খাগড়াছড়ি সওজের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী সবুজ চাকমা জানান, অবাধে বন উজাড় ও গাছ নিধনের ফলে প্রাণ-প্রকৃতি বিপন্ন হতে চলেছে। তাই এ বছর পরিবেশ রক্ষায় আমরা দুইজন ব্যক্তি উদ্যোগে পাহাড়ের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠির মাঝে ৪৮৪০টি পরিবেশবান্ধব স্বর্ণচাঁপা ফুলের চারা বিতরণ করেছি।

তিনি আরও বলেন, সেগুন বাগানে অন্য কোন গাছ বেড়ে উঠতে পারে না। যার ফলে মাটি ক্ষয় হয়ে নদী নালা, ছড়া ইত্যাদি ভরাট হয়ে যাচ্ছে। সেগুন গাছের পাতা অস্বস্তিকর ও গরম হওয়ার কারণে সেগুন গাছে পাখি বসতে চায় না। তাই পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর এ গাছটিকে পরিহার করে পরিবেশবান্ধব গাছ লাগানো আমাদেরই নৈতিক দায়িত্ব বলে মন্তব্য করেন এই আলোকচিত্রী।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এমও

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন