বিজ্ঞাপন

এক মাসের মধ্যে নতুন টাইগ্রেস কোচ

June 6, 2020 | 3:03 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভরাডুবি ও দলের ভেতরে অযাচিত কর্তৃত্ব ফলানোর অভিযোগে টাইগ্রেস কোচ আনজু জেইনের সঙ্গে মার্চে শেষ হয়ে যাওয়া চুক্তির মেয়াদ আর বাড়ায়নি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবি। বিসিবি’র মনোভাব বুঝতে আনজুরও বিন্দুমাত্র বেগ পেতে হয়নি। ‘এখানেই সব শেষ’ ধরে নিয়ে নিজে থেকেই সটকে পড়েছেন। ভারতের বারদা ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন এখন ভারতীয় বংশোদ্ভুত এই কোচের নতুন ঠিকানা।

বিজ্ঞাপন

অদ্ভুত ব্যাপর হলো, তিনি চলে যাচ্ছেন এই খবরটি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের কাউকেই জানানোর প্রয়োজন অনুভব করেননি। তাতে অবশ্য বিসিবিরও খেদ নেই। ‘যে যাবার সে চলে যাক, তাকে আর বসিয়ে রেখ না’-এই শ্বাস্বত বাক্যটি ধারণ করে তারাও নতুন কোচ খুঁজতে শুরু করেছে। আর এক্ষেত্রে তাদের পছন্দের শীর্ষে বিদেশী কোচ। ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি নামও তারা পেয়ে গেছেন। লাল সবুজের বোর্ডের শর্তের সঙ্গে বনিবনাত হলে তাদের ভেতর থেকে একজন বেছে নিয়ে আগামি এক মাসের মধ্যেই নিয়োগ চূড়ান্ত হবে বলে আশা করছেন বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট উইং।

শনিবার (৬ জুন) সারাবাংলাকে এখবর নিশ্চিত করেছেন নারী ক্রিকেট উইংয়ের চেয়ারম্যান শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল।

সালমা-রুমানাদের নতুন কোচ নিয়োগ প্রসংগে তিনি জানিয়েছেন, ‘আনজুর সঙ্গে আমরা চুক্তি বাড়াবো না এটা আগেই নিশ্চিত ছিল। অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপের পর থেকেই আমরা কোচ খোঁজা শুরু করি। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে সব কিছু থেমে যায়। তবে এবারও অবশ্যই বাইরের কাউকে নিব।’

বিজ্ঞাপন

কবে নাগাদ নতুন কোচ নিয়োগ দেওয়া হতে পারে? সংবাদ মাধ্যমের করা এমন প্রশ্নে নাদেল জানালেন, ‘করোনায় বিশ্বের যে পরিস্থিতি তাতে সব কিছুতেই একটু সময় লাগছে। তারপরও আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আশা করছি আগামি এক মাসের মধ্যেই নতুন কোচ নিয়োগ দিতে পারব।’

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালের মে মাসে সাবেক ইংলিশ কোচ ডেভিড ক্যাপেলের স্থলাভিষিক্ত হয়েছিলেন ভারতীয় আনজু জেইন। প্রাথমিকভাবে তার সঙ্গে ৬ মাসের চুক্তি হলেও পরে তা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত বাড়ানো হয়।

সারাবাংলা/এমআরএফ/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন