বিজ্ঞাপন

কামাল লোহানীর মৃত্যুতে যারা গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন

June 20, 2020 | 12:50 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: প্রথিতযশা সাংবাদিক ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক আন্দোলনের সংগঠক কামাল লোহানীর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন বিভিন্ন স্তরের ব্যক্তিরা। পাশাপাশি মরহুমের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি তারা সমবেদনা জানান।

বিজ্ঞাপন

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কামাল লোহানী শনিবার (২০ জুন) সকালে মারা যান। তিনি মহাখালীতে শেখ হাসিনা গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

সিরাজগঞ্জ জেলার উল্লাপাড়া গ্রামের খান মনতলা গ্রামে জন্মগ্রহণকারী সাংবাদিক কামাল লোহানী সামাজিক-সাংস্কৃতিক বিভিন্ন আন্দোলনে প্রথম সারিতে ছিলেন। এই কারণে তাকে একাধিকবার তাকে জেলে যেতে হয়েছে। লেখনির মাধ্যমে অসাম্প্রদায়িক-গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ বিনির্মাণে আজীবন লড়াই চালিয়ে গেছেন একুশে পদকপ্রাপ্ত গুণী এই সাংবাদিক।

বিজ্ঞাপন

জাতীয় প্রেস ক্লাব: কামাল লোহানীর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছে সাংবাদিকদের জাতীয় সংগঠন জাতীয় প্রেস ক্লাব।

জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাইফুল আলম এবং সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন আজ এক বিবৃতিতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেন।

বিজ্ঞাপন

শোক বিবৃতিতে তারা বলেন, কামাল লোহানী আমাদের মুক্তিযুদ্ধ,সাংবাদিকতা ও সাংস্কৃতিক আন্দোলনে অসামান্য অবদান রেখেছেন। তার অবদান জাতি চিরদিন শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করবে।

আইমন্ত্রীর শোক: কামাল লোহানীর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। শোক বার্তায় মন্ত্রী বলেন, ‘সাংবাদিকতা ও সাংস্কৃতিক জগতে কামাল লোহানী একটি অবিস্মরণীয় নাম। আজীবন দেশ ও মানুষের সেবায় নিবেদিত এ মহান ব্যক্তির মৃত্যুতে দেশ এক কৃতী সন্তানকে হারালো । তার মৃত্যুতে দেশের সাংবাদিকতা ও সাংস্কৃতিক জগতের যে ক্ষতি হলো তা সহজে পূরণ হওয়ার নয়।’

বিজ্ঞাপন

এলজিআরডি মন্ত্রীর শোক: গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় (এলজিআরডি) মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।

শোক বার্তায় আরও বলেন, কামাল লোহানী বাংলাদেশের সংস্কৃতি ও সাংবাদিক জগতে অন্যতম পুরোধা ব্যক্তিত্ব ছিলেন। তিনি উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী, ছায়ানট, একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটিসহ অসংখ্য সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলেন। তার মৃত্যুতে সাংস্কৃতিক অঙ্গনে এক অপূরণীয় ক্ষতি হলো।
বিজ্ঞাপন

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রীর শোক: কামাল লোহানীর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

মন্ত্রী এক শোক বার্তায় মরহুমের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

শোক বার্তায় মন্ত্রী জানান, সাংবাদিকতা জগতে কামাল লোহানী ছিলেন অনন্য উচ্চতায় আসীন এক ব্যক্তিত্ব। স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের অন্যতম সংগঠক ও কণ্ঠযোদ্ধা কামাল লোহানী দেশের শিল্প ও সংস্কৃতির উৎকর্ষ সাধনে আমৃত্য একনিষ্ঠ অবদান রেখে গেছেন। একুশে পদক প্রাপ্ত এই কৃতি ব্যক্তিত্বের মৃত্যু দেশ ও জাতির জন্য অপূরণীয় ক্ষতি।

ডিএসসিসি মেয়রের শোক: শোকবার্তায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার তাপস বলেন, ‘কামাল লোহানী সাম্প্রদায়িক অপশক্তি ও কুসংস্কারের বিরুদ্ধে সম্মুখযোদ্ধা হিসেবে সবসময় সরব থেকে দেশ ও জাতিকে আলোর পথের সন্ধান দিতে আমৃত্যু নিবেদিত ছিলেন। সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে তার সরব পদচারণা ও কর্মযজ্ঞ এদেশের প্রতিটি মানুষকে প্রেরণা যোগাবে। তার এ মৃত্যু বাংলাদেশের রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনে এক অপূরণীয় ক্ষতি।

ডিএনসিসি মেয়রের শোক: কামাল লোহানীর মৃত্যুতে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেন। সকালে এক শোকবার্তায় মেয়র বলেন, ‘এদেশের সাংবাদিকতার জগতে কামাল লোহানী একটি বিশিষ্ট নাম। সাংবাদিকতা জগতে তার অবদান অনস্বীকার্য। দেশের শিল্পাঙ্গনেও তিনি নেতৃত্ব দিয়েছেন সাবলীলভাবে। কামাল লোহানীর মৃত্যুতে জাতি এক মেধাবী সন্তানকে হারালো।’

রওশন এরশাদের শোক: ভাষাসৈনিক কামাল লোহানীর মৃত্যুতে বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

শোক বার্তায় বিরোধীদলীয় নেতা বলেন, ‘স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের অন্যতম সংগঠক কামাল লোহানীর রয়েছে এদেশের ঐতিহাসিক সকল ঘটনার সঙ্গে যুক্ততা।
ভাষা আন্দোলনসহ মহান মু্ক্তিযুদ্ধে কামাল লোহানী অগ্রণী ভূমিকা পালন করে এসেছেন।’

বিরোধীদলীয় নেতা আরও বলেন, ‘দেশের শিল্প ও সংস্কৃতির উৎকর্ষ সাধনে এবং সাংবাদিকদের অধিকার আদায় ও দক্ষতা উন্নয়েন তিনি আমৃত্যু একনিষ্ঠ অবদান রেখেছেন। একুশে পদকপ্রাপ্ত এই কৃতি ব্যক্তিত্বের মৃত্যুতে দেশ ও জাতির জন্য অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেল - যা সহজে পূরণ হওয়ার নয়।’

বিরোধীদলীয় নেতা মরহুমের বিদেহী আত্নার মাগফেরাত কামনা এবং শোক-সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন

জাপা চেয়ারম্যানের শোক: কামাল লোহানীর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের এমপি। তিনি আজ এক শোক বার্তায় প্রয়াত কামাল লোহানীর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেছেন। পাশাপাশি শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান।

জি এম কাদের বলেন, ‘কামাল লোহানী সাংবাদিকদের অধিকার আদায় এবং দক্ষতা উন্নয়নে অসাধারণ ভূমিকা রেখেছিলেন। শিল্পকলা একাডেমীর সাবেক মহাপরিচালক হিসেবে দেশের সংস্কৃতি বিকাশে অসামান্য অবদান রেখেছিলেন। এ ছাড়া ছায়ানটের সাধারণ সম্পাদক ও উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর সভাপতি হিসেবেও দেশের সাংস্কৃতিক অঙ্গনকে এগিয়ে নিতে কাজ করেছেন।’

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, ‘কামাল লোহানীর মৃত্যুতে দেশ এক আদর্শবান অভিভাবক হারালো।’

একইভাবে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন জাতীয় পার্টি মহাসচিব ও বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ মো. মসিউর রহমান রাঙ্গাঁ।

আইজিপির শোক: সাংবাদিকতা ও সাংস্কৃতিক জগতে কামাল লোহানী ছিলেন এক উজ্জ্বল নক্ষত্র ও অন্যতম পুরোধা ব্যক্তিত্ব। দেশের শিল্পাঙ্গন ও সাংস্কৃতিক জগতে অনন্য সাধারণ অবদানের জন্য তিনি চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবেন। ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থানে পূর্ব বাংলার শিল্পীদের নিয়ে কামাল লোহানী গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করে দেশকে শত্রুমুক্ত করেছেন।

একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির উপদেষ্টা হিসেবে কামাল লোহানীর সাহসী ভূমিকা বাঙালি জাতি আজীবন শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ রাখবে। জনগণের মৌলিক অধিকার আদায়ের আন্দোলনে আজীবন সোচ্চার ছিলেন তিনি।

কামাল লোহানীর মৃত্যুতে আমাদের সাংবাদিকতা, শিল্প ও সাংস্কৃতিক জগতে এক গভীর শূন্যতার সৃষ্টি হল। জাতি হারালো একজন আদর্শবান, মেধাবী ও গুণী মানুষ।

সারাবাংলা/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন