বিজ্ঞাপন

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে চবি শিক্ষকের মানববন্ধন

June 22, 2020 | 4:52 pm

চবি করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো: ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল ও এই আইনের ফাঁদে আটক ব্যক্তিদের মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) সমাজতত্ত্ব বিভাগের শিক্ষক মাইদুল ইসলাম।

বিজ্ঞাপন

সোমবার (২২ জুন) বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে এই মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

মাইদুল ইসলাম বলেন, ‘সারা বাংলাদেশে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের নিয়ে ‘বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক নেটওয়ার্ক’ নামে একটা নেটওয়ার্ক আছে। মূলত তাদের আয়োজনে আজ যে যেখান থেকে পারে, সেখান থেকে প্রতিবাদ কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছেন। তাই আমিও দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় শহীদ মিনারের সামনে অংশ নিয়েছি। আমাদের কথা, ভাষা, শব্দ এগুলো সমস্তকিছু মানুষ জন্মগতভাবে পেয়ে থাকে। এগুলোর ওপর কোনভাবে সেন্সরশিপ আরোপ করা ঠিক না। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন যেটা আছে। আমি দেখছি এই আইনের ফাঁদে পড়ে শিক্ষক, সাংবাদিকসহ অনেক মানুষ গ্রেফতার করা হচ্ছে। সুতরাং ভাষার ওপর, শব্দের ওপর, কথার ওপর, লেখার ওপর সেন্সরশিপ আরোপ করা অযৌক্তিক।’

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, ‘আর এটা যদি করা হয় তাহলে ৫২’র ভাষা আন্দোলন থেকে ৭১-এর আন্দোলনে সর্বজনকে নিয়ে গণতান্ত্রিক বাংলাদেশের যে একটা চেতনা সেখান থেকে আমরা ছিটকে পড়ি। অবিলম্বে এই আইন বাতিলের দাবিতে আমরা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে দাঁড়িয়েছিলাম। এই আইনটা যেহেতু জনগণের কথা বলা, লেখা, স্বাধীনতার বিপক্ষে যায়। সুতরাং এই আইনটা বাতিল চাই।’

মানববন্ধনে সংহতি জানিয়েছেন চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের দফতর সম্পাদক রাজেশ্বর দাশগুপ্ত ও পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ চবি শাখা সাংগঠনিক সম্পাদক রুমেন চাকমা।

বিজ্ঞাপন

সংহতি বক্তব্যে চবি শাখা পাহাড়ী ছাত্র পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক রুমেন চাকমা বলেন, ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন যাদের আটক করা হয়েছে তাদের অতিদ্রুত মুক্তি দেওয়া হোক। স্বাধীন বাংলাদেশে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নামে বাক স্বাধীনতা হরণ করা খুবই নিন্দনীয়। বাক স্বাধীনতা মানুষের জন্মগত অধিকার। এখান থেকে বঞ্চিত করা রাষ্ট্রের অদিকার নেই।’

সারাবাংলা/সিসি/এমআই

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন