বিজ্ঞাপন

পূবালী ব্যাংকের বুথে জালিয়াতি, গ্রেফতার দু’জন রিমান্ডে

June 24, 2020 | 6:23 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো: জালিয়াতির মাধ্যমে পূবালী ব্যাংকের বুথ থেকে টাকা তুলে নেওয়ার ঘটনায় গ্রেফতার দু’জনকে পাঁচ দিন হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশকে অনুমতি দিয়েছেন চট্টগ্রামের একটি আদালত।

বিজ্ঞাপন

নগরীর ডবলমুরিং থানায় দায়ের হওয়া এ সংক্রান্ত মামলায় রিমান্ড আবেদনের শুনানি শেষে বুধবার (২৪ জুন) এ আদেশ দিয়েছেন চট্টগ্রামের মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবু ছালেম মো. নোমান।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডবলমুরিং থানার উপপরিদর্শক (এসআই) অর্ণব বড়ুয়া সারাবাংলাকে বলেন, ‘গ্রেফতার হওয়া দুই আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেছিলাম। শুনানি শেষে আদালত পাঁচ দিন মঞ্জুর করেছেন। তাদের হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।’

বিজ্ঞাপন

দুই আসামির একজন জালিয়াত চক্রের হোতা মোহাম্মদ শরীফুল ইসলাম (৩৪) মেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলার হেমায়েতপুর গ্রামের ইয়াজ উদ্দিন বিশ্বাসের ছেলে। থাকেন ঢাকার ক্যান্টনমেন্ট থানার নসরুদ্দিন রোডে।

আরেকজন শরীফুলের সহযোগী মো. মহিউদ্দিন মনির (৩০)। তিনি চট্টগ্রামের রাউজান উপজেলার নোয়াপাড়া গ্রামের মৃত হাজী আহম্মদ হোসেনের ছেলে।

বিজ্ঞাপন

গত বছরের (২০১৯) ১৭ নভেম্বর সন্ধ্যা ৬টা ৩৯ মিনিটে নগরীর চকবাজার থানার কলেজ রোডে পূবালী ব্যাংকের বুথ থেকে এটিএম মেশিনে জালিয়াতির মাধ্যমে ৩ লাখ ৩০ হাজার টাকা তুলে নেওয়া হয়। একইদিন একই প্রক্রিয়ায় রাত ৮টা ৫৫ মিনিটে ডবলমুরিং থানার চৌমুহনী ফারুক চেম্বারের নিচে পূবালী ব্যাংকের আরেকটি বুথ থেকে তুলে নেওয়া হয় ৩ লাখ ১০ হাজার টাকা। এ ঘটনায় চকবাজার ও ডবলমুরিং থানায় পৃথক মামলা দায়ের করা হয়। বুথের সিসি ক্যামেরায় ধারণ হওয়া ফুটেজে শরীফুলের তথ্য পায় পুলিশ।

এরপর পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে উঠে আসে, শরীফুল ১৬ নভেম্বর কুমিল্লা জেলার কোতোয়ালি থানার কান্দিরপাড় এলাকায় পূবালী ব্যাংকের প্রধান শাখার এটিএম বুথ থেকে ১৩ লাখ ৩০ হাজার টাকা তুলে নেন। ১৫ নভেম্বর একই তিনিই নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাড়া এলাকায় পূবালী ব্যাংকের আরেকটি বুথ থেকে পরীক্ষামূলক ১০ হাজার টাকা উত্তোলন করেন।

বিজ্ঞাপন

গত ২২ জুন নগরীর কোতোয়ালি থানার জিপিও এলাকায় বিকেল পৌনে ৪টায় সাউথইস্ট ব্যাংকের বুথ ও ৫টায় আগ্রাবাদে মিডল্যান্ড ব্যাংকের বুথে ঢুকে জালিয়াতির মাধ্যমে টাকা তোলার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন শরীফুল ও তার সহযোগী মনির। পরদিন নগরীর আগ্রাবাদ থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

এর আগে, ২০১৯ সালে শরীফুল ইসলামী ব্যাংক এবং আরব-বাংলাদেশ ব্যাংকের বুথে ঢুকে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/আরডি/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন