বিজ্ঞাপন

পরিস্থিতি একটু ভাল হলেই ফিরবে ক্রিকেট

June 29, 2020 | 4:16 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

করোনাকালে ক্রিকেট ফেরাতে সব ধরনের প্রস্ততিই নিয়েছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবি। মহামারির সময় আইসিসির গাইডলাইন অনুসরণ করে ক্রিকেটারদের অনুশীলনের জন্য মেডিকেল বিভাগকে যে মডিউল তৈরির নির্দেশনা লাল সবুজের ক্রিকেটের সর্বোচ্চ এই প্রশাসন দিয়েছিল তাদানুযায়ী ত্রিমুখী পরিকল্পনাও গ্রহণ করেছিলেন তারা। কিন্তু চলতি মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে করোনা পরিস্থিতি বিরুপ আকার ধারণ করলে আর অনুশীলনে ফেরা হয়নি মুশফিক, তামিমদের।

বিজ্ঞাপন

বলা বাহুল্যই হবে, চলতি মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে আজ অব্দি আক্রান্তের সংখ্যা গড়ে প্রায় ৩ হাজার কিংবা তারও ওপরে। আর মৃতের গড় প্রায় ন্যূনতম ৩০। উদ্ভুত পরিস্থিতিতে ক্রিকেটারদের নিয়ে কোনো রকম ঝুঁকি নিতে চায়নি বিসিবি। এমতাবস্থায় আকরাম খান জানালেন, করোনা পরিস্থিতির একটু উন্নতি হলেই তামিম-মুশফিকদের অনুশীলনে ডাকা হবে।

সোমবার (২৯ জুন) সংবাদ মাধ্যমকে একথা জানান তিনি।

বিজ্ঞাপন

বিসিবি'র ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান আকরাম খান বললেন, ‘সব বন্দোবস্ত তো আমরা করেই রেখেছি। তবে এখনই ক্রিকেটারদের অনুশীলনে নামিয়ে ঝুঁকি আমরা নিতে পারি না। কেউ যদি করোনায় আক্রান্ত হয় সেটি আরও ভয়ের কারণ হবে। পরিস্থিতি একটু ভালো হলেই আমরা মাঠে নামব। পরিস্থিতি বিবেচনা করেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।'

প্রাণঘাতী করানোভাইরাসের কারণে ইতোমধ্যেই বাংলাদেশের সবগুলো টেস্ট সিরিজ স্থগিত হয়ে গেছে। কাজেই লাল বলের অনুশীলন যে হবে না সেটা একরকম নিশ্চিত। কিন্তু যেহেতু সেপ্টেম্বরে এশিয়া কাপ ও তার পরের মাসেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ রয়েছে তাই সেটা মাথায় রেখে জুলাই মাসের মাঝামাঝি সাদা বলে অনুশীলনের ইঙ্গিত দিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাবেক এই কাপ্তান। তবে তার আগে করোনা পরিস্থিতির উন্নতির বিকল্প নেই, সেকথাও সাফ জানিয়ে দিলেন।

'অনুশীলন শুরুর পর সামনে আমরা যে সিরিজ/টুর্নামেন্ট পাব সেটি দিয়েই শুরু করব। টেস্টকে আমরা প্রাধান্য দিয়ে এসেছিলাম কিন্তু সেটি দিয়ে শুরু করা সম্ভব হবে কিনা এ মুহুর্তে বলা কঠিন।'

শুধু আন্তর্জাতিক ক্রিকেটই কেন? করোনার দাপটে দেশের ঘরোয়া ক্রিকেটও অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ হয়ে আছে। কবে ফিরবে তা কেউই নির্দিষ্ট করে বলতে পারছে না। ফলে প্রায় চার মাস ঘরে অবরুদ্ধ ক্রিকেটাররা। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বিসিবি তাকিয়ে আছে কখন পরিস্থিতির একটু উন্নতি হয়।

সারাবাংলা/এমআরএফ/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন