বিজ্ঞাপন

ইন্ডাস্ট্রিতে ‘স্বজনপ্রীতি’র বিষয়টি মানতে চান না বাপ্পি লাহিড়ী

June 29, 2020 | 5:28 pm

এন্টারটেইনমেন্ট ডেস্ক

বলিউড মিউজিক ইন্ডাস্ট্রিতে ‘স্বজনপ্রীতি’র বিষয়টি মানতে চান না সংগীত পরিচালক বাপ্পি লাহিড়ী। তার মতে, ‘স্রষ্টার উপর ভরসা রেখে ইন্ডাস্ট্রিতে প্রত্যেককে লড়াই করতে হবে’।

বিজ্ঞাপন

স্বজনপ্রীতি নিয়ে বলিউডে চলছে বিতর্কের ঝড়। আর সে ঝড় এখন ছড়িয়ে পড়েছে বলিউডের সংগীত জগতেও। সম্প্রতি গায়ক সোনু নিগম দাবি করেছেন এই সংগীত জগতে দুজন মাফিয়া রয়েছে। যারা এই সঙ্গীত জগতকে চালনা করে। সোনুর মন্তব্যের সমর্থনে একে একে মন্তব্য লরেছেন গায়িকা মোনালি ঠাকুর, গায়ক আদনান সামি ও গায়িকা আলিশা চিনয়। এবার এই ইস্যুতে মন্তব্য করলেন সংগীত পরিচালক বাপ্পি লাহিড়ী। বললেন, ‘যদি কারওর ভাগ্যে স্টার হওয়া লেখা থাকে, তাহলে তাকে কেউ আটকাতে পারবে না। এতে ‘ইনসাইডার’ বা ‘আউটসাইডার’র কোনও প্রসঙ্গই আসে না’। এ প্রসঙ্গে উদাহরণ হিসেবে নিজেকেই টেনে এনেছেন তিনি।

ভারতীয় গণমাধ্যমে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বাপ্পি লাহিড়ী বলেছেন, ‘বহু বছর ধরে আমি বলিউডের সঙ্গে জড়িত। আমার প্রথম গান ছিল বিনোদ খান্নার লিপে ‘বোম্বাই সে আয়া মেরা দোস্ত’। গানটি যে বিপুল হিট হয়েছিল, তাতে সন্দেহ নেই। তারপর থেকে আমি যে গানগুলি গেয়েছি সেগুলি বেশিরভাগই সুপারহিট। অনেকে আমার গান এখন রিমেক করে। আমি নিজেও আমার গান ‘তাম্মা তাম্মা’ রিমেক করেছি। আলিয়া ভাট ও বরুণ ধাওয়ানের ছবি ‘বদ্রিনাথ কি দুলহনিয়া’য় সেটি ব্যবহার করা হয়েছিল। টাইগার শ্রফের ‘বাঘি ৩’ ছবির জন্য কিশোর কুমারের ‘ভঙ্কাস’ গানটি নতুনভাবে শ্রোতাদের উপহার দেই’। কিন্তু ইন্ডাস্ট্রিতে স্বজনপ্রীতি হয়, সেটা মানতে নারাজ তিনি। তার মতে, ‘ইন্ডাস্ট্রিতে প্রত্যেককে লড়াই করতে হবে। ভাগ্যে যা আছে, তা প্রত্যেকেই পাবেন। যদি কারওর ভাগ্যে তারকা হওয়া লেখা থাকে, তাহলে একদিন না একদিন সে তারকা হবেই। কেউ আটকাতে পারবে না। শুধু স্রষ্টার উপর ভরসা রাখতে হবে’।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এএসজি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন