বিজ্ঞাপন

‘বোন লাফ দিলেও মা পারেনি’

June 29, 2020 | 8:02 pm

উজ্জল জিসান, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ‘আমরা তিন ভাই তিন বোন। মা আসছিল হাসপাতালে ডাক্তার দেখাতে। কিন্তু নির্মম পরিহাস মাকে লাশ হয়ে ফিরতে হচ্ছে। বোন বেঁচে গেছে। তাদের আর কিছুক্ষণ পরেই সদরঘাটে নামার কথা ছিল। কিন্তু তার আগেই ময়ুর-২ লঞ্চের ধাক্কায় মর্নিং বার্ড লঞ্চটি ডুবে যায়। এ সময় বোন লাফ দিলেও মা দিতে পারেনি। কারণ লাফ দেওয়ার কোনো সুযোগই নাকি ছিল না। খুব দ্রুত লঞ্চটি ডুবে গেছে।’- এভাবেই বলছিলেন লঞ্চ দুর্ঘটনায় নিহত সুফিয়া বেগমের (৪৫) ছেলে সুজন।

বিজ্ঞাপন

সোমবার (২৯ জুন) রাজধানীর শ্যামবাজার ফরাশগঞ্জ লঞ্চঘাটের বুড়িগঙ্গা নদীতে নৌকার মধ্যে সারাবাংলার এই প্রতিবেদকের কাছে মায়ের মৃত্যুর খবর এভাবেই জানান সুজন। এ সময় সুজনের ভাই পাভেলও তার সঙ্গে ছিল।

দুই ভাই জানান, তাদের মা সুফিয়া বেগম কয়েকদিন ধরেই বুকে ব্যাথা নিয়ে বাসায় ছটফট করছিলেন। গতকাল (২৮ জুন) ঠিক হয় আজ (২৯ জুন) ঢাকায় পিজি হাসপাতালে ডাক্তার দেখানোর জন্য আসবেন। তাদের বাবার কাজ থাকায় বড় বোন সুমা আক্তারকে সঙ্গে নিয়ে সকাল পৌনে আটটার দিকে মর্নিং বার্ড লঞ্চে রওনা দেন পাভেল-সুজনের মা। এরপর লঞ্চটি সদরঘাটের কাছাকাছি এলে আরেক লঞ্চের ধাক্কায় ডুবে যায়।

বিজ্ঞাপন

পাভেল বলেন, ‘সকাল ১০টার দিকে আপা ফোন করে জানায়, আমাদের লঞ্চটি ডুবে গেছে। সে লঞ্চ থেকে লাফ দিয়ে সাঁতার কেটে কিনারে যেতে পেরেছে। পরে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আপা জানায়, মাকে পাওয়া যাচ্ছে না। তখন মীর কাদিমের কাঠপট্টি থেকে আমরা এখানে এসেছি।’

সুজন বলেন, ‘অনেক কষ্টে ফায়ার সার্ভিসের সহায়তায় মায়ের মৃতদেহ দেখতে পেয়েছি। আমরা মৃতদেহটি নিয়ে যেতে চাই। তবে তারা দিচ্ছে না। বলছে, কিছু প্রক্রিয়া আছে, সেগুলো শেষ হলেই মৃতদেহ আপনাদের কাছে দেওয়া হবে।’

সোমবার (২৯ জুন) সকাল সাড়ে নয়টার দিকে মর্নিং বার্ড লঞ্চটি ডুবে যায়। ময়ুর-২ লঞ্চ ধাক্কা দিলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ফায়ার সার্ভিস জানিয়েছে, বিকেল ৪টা পর্যন্ত মোট ৩৬ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে ফায়ার সার্ভিস ছাড়াও বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড, নৌ পুলিশ, বিআইডব্লিউটিএসহ বিভিন্ন সংস্থার ডুবুরি দল উদ্ধার কাজ চালাচ্ছে। উদ্ধারকারী জাহাজ প্রত্যয় ও হামজা নারায়ণগঞ্জ থেকে সকাল ১১টার দিকে রওনা হলেও বিকেল চারটা পর্যন্ত এসে পৌঁছায়নি।

লঞ্চ ডুবির ঘটনায় বিআইডব্লিউটিএ’র পক্ষ থেকে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এছাড়া এরই মধ্যে ময়ুর-২ লঞ্চটি আটক করা হয়েছে।

সারাবাংলা/ইউজে/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন