বিজ্ঞাপন

সেই ছয় পাকিস্তানি ক্রিকেটার যেতে পারবেন ইংল্যান্ড তবে…

June 30, 2020 | 3:09 pm

স্পোর্টস ডেস্ক

পাকিস্তানের ইংল্যান্ড সফর নিয়ে কম নাটকীয়তা হলো না। দফায় দফায় করোনা পরীক্ষা নিয়ে নাটকীয়তা। শেষমেষ ২০ সদস্যের দল নিয়ে গতকাল (২৯ জুন) ইংল্যান্ডে পৌঁছেছে পাকিস্তান দল। তবে দেশে রেখে যেতে হয়েছে প্রাথমিক দলে সুযোগ পাওয়া ৬ ক্রিকেটারকে। কেননা করোনা পরীক্ষায় তাদের ফলাফল পজিটিভ এসেছিল প্রথমবার। এবার তাদের জন্য আশার দুয়ার খুলছে। ২য় দফায় করোনা পরীক্ষায় ফলাফল নেগটিভ আসলেই উড়াল দিতে পারবেন ইংল্যান্ডে।

বিজ্ঞাপন

রোববার (২৮ জুন) রাতে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড-পিসিবি টুইটারের মধ্যমে জানান দেয় তিন টেস্ট ও তিনটি টি-টোয়েন্টি ২০ জন খেলোয়াড়, কোচসহ সাপোর্ট স্টাফ ১১ জনের দল ইংল্যান্ডের উদ্দেশে রওনা দেবে। পাকিস্তানের যে ১০ ক্রিকেটারের প্রথম দফায় করোনা পরীক্ষার ফলাফল পজিটিভ এসেছিল তাদের মধ্যে আবার দ্বিতীয় পরীক্ষায় ৬ জনের নেগেটিভ রিপোর্ট আসে। তবে দ্বিতীয় দফায় নেগেটিভ আসা স্বত্ত্বেও তারা ইংল্যান্ডের বিমানের টিকিট পায়নি। এই ছয় ক্রিকেটার হলেন ফখর জামান, মোহাম্মদ হাসনাইন, মোহাম্মদ হাফিজ, মোহাম্মদ রিজওয়ান, শাদাব খান ও ওয়াহাব রিয়াজ। পরপর দুটি পরীক্ষায় নেগেটিভ এলেই এদের ইংল্যান্ড যাত্রার অনুমিত দেবে পিসিবি। অন্যদিকে দুইবার পরীক্ষাতেই পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে হায়দার আলী, হ্যারিস রউফ, কাসিফ ভাট্টি ও ইমরান খান।

মোহাম্মদ হাফিজসহ ছয়জন ক্রিকেটারের দ্বিতীয় কোভিড-১৯ টেস্ট নেগেটিভ এসেছে, এই সপ্তাহেই তাদের দলের বাকিদের সঙ্গে যোগ দেওয়ার কথা ইংল্যান্ডে।

বিজ্ঞাপন

কিছুদিন আগে প্রথমে তিন জন ক্রিকেটারের করোনাভাইরাস পরীক্ষায় পজিটিভ এসেছিল। এরপর হাফিজসহ আরও সাতজনের পজিটিভ আসে। তবে ঝামেলাটা হয় এরপর, যখন হাফিজ ব্যক্তিগতভাবে নিজের টেস্ট করিয়ে নেগেটিভ রেজাল্ট পান। একইভাবে ওয়াহাব রিয়াজও আলাদাভাবে পরীক্ষা করিয়ে নেগেটিভ রেজাল্ট পেয়েছেন। তবে পিসিবি সেটা গ্রহণ করেনি, নিজেদের নীতিমালার বাইরে তারা কোনো পরীক্ষার ফল গ্রহণ করেনি।

আর তাই তো আবারও তাদের কভিড-১৯'র টেস্ট করানো হয়। আর তাতেই মেলে স্বস্তি, দ্বিতীয় দফায় হাফিজ, ওয়াহাব ছাড়াও নেগেটিভ এসেছে ফাখার জামান, মোহাম্মদ হাসনাইন, মোহাম্মদ রিজওয়ান ও শাদাব খানের। এই মুহূর্তে লাহোরের এক হোটেলে আইসোলেশনে আছেন তারা। পিসিবির নিয়ম অনুযায়ী দুইটি নেগেটিভ রিপোর্ট আসলে দলের সঙ্গে যোগ দেওয়ার অনুমতি পাবেন তারা। সবকিছু ঠিক থাকলে এই সপ্তাহেই ইংল্যান্ডে যাওয়ার কথা তাদের।

দ্বিতীয় দফায়ও পজিটিভ এসেছে কাশিফ ভাট্টি, হায়দার রালী, হারিস রউফ ও ইমরান খানের। তবে তাদের মধ্যে কোনো ধরনের সংক্রমণের লক্ষণ দেখা যায়নি। আপাতত তারাও আইসোলেশনে আছেন, দুইবার পরীক্ষার পর নেগেটিভ রিপোর্ট এলে তারাও যোগ দিতে পারবেন দলের সঙ্গে।

ম্যানচেস্টারের এমিরেটস ওল্ড ট্রাফোর্ডে ১৪ দিনের কোয়ারেনটাইনে থাকবেন পাকিস্তানের পুরো দল। এরপরে আবারও পুরো দলের কোভিড-১৯'র পরীক্ষা করাবে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড-ইসিবি। তবে পাকিস্তান দলের স্বস্তির সংবাদ আইসোলেশনে থাকা অবস্থাতেও অনুশীলন করতে পারবে দল। এরপর আইসোলেশন শেষে ১৩ জুলাই মিসবাহ-উল-হকের দল পাড়ি দেবে ডার্বিশায়ারে। সেখানেই আগস্ট-সেপ্টেম্বরের তিন টেস্ট ও তিন টি-টোয়েন্টির জন্য মিসবাহর দল নেবে চূড়ান্ত প্রস্তুতি।

পাকিস্তানের ২০ সদস্যের দল: আজহার আলী (অধিনায়ক টেস্ট দল), বাবর আজম (অধিনায়ক টি-টোয়েন্টি), আবিদ আলী, আসাদ শফিক, ফাহিম আশরাফ, ফাওয়াদ আলম, ইফতিখার আহমেদ, ইমাদ ওয়াসিম, ইনাম-উল-হক, খুশদিল শাহ, মোহাম্মদ আব্বাস, মুসা খান, নাসিম শাহ, রোহেল নাজির, সরফরাজ আহমেদ, শাহীন শাহ আফ্রিদি, শান মাসুদ, সোহেল খান, উসমান শিনওয়ারি এবং ইয়াসির শাহ।

সারাবাংলা/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন