বিজ্ঞাপন

রেকর্ড রেমিট্যান্সে ৩৬ বিলিয়ন ডলারের নতুন উচ্চতায় রিজার্ভ

July 2, 2020 | 8:33 pm

গোলাম সামদানী, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: সদ্য বিদায়ী ২০১৯-২০ অর্থবছরে দেশে রেমিট্যান্স প্রবাহের নতুন রেকর্ড হয়েছে। বিদায়ী অর্থবছরের শেষ দুই মাসে (মে ও জুন) প্রবাসীরা রেকর্ড রেমিট্যান্স পাঠানোয় বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভও নতুন উচ্চতায় পৌঁছেছে। বর্তমানে এর পরিমাণ ৩৬ দশমিক ১৪৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। এর মাধ্যমে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ প্রথমবারের মতো ৩৬ বিলিয়নের মাইলফলক অতিক্রম করেছে।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) সন্ধ্যায় এই মাইলফলকে পৌঁছায় বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ। এ নিয়ে গত এক মাসের ব্যবধানে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ তিন তিনটি মাইলফলক অর্জন করেছে। এর আগে গত ৪ জুন প্রথমবারের মতো ৩৪ বিলিয়ন এবং গত ২৪ জুন ৩৫ বিলিয়ন ডলারের সীমা অর্জিত হয়েছিল। বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভে এর আগের রেকর্ড ছিল ৩৩ দশমিক ৬৮ বিলিয়ন ডলার, যা অর্জিত হয়েছিল ২০১৭ সালে।

আরও পড়ুন- ৩ সপ্তাহের ব্যবধানে রিজার্ভে নতুন রেকর্ড, এবার ছাড়াল ৩৫ বিলিয়ন

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক কাজী সাইদুর রহমান বৃহস্পতিবার রাতে সারাবাংলাকে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভের নতুন রেকর্ডের তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, গত অর্থবছরে (২০১৯-২০) প্রবাসীরা রেকর্ড রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন। এর মধ্যে একমাসে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্সের রেকর্ড ছিল মে মাসে। জুনে সেই রেকর্ডও ভেঙেছে। এর প্রভাবে রিজার্ভ বেড়েছে। ২ জুলাই বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভের পরিমাণ ৩৬ দশমিক ১৪৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ছাড়িয়ে গেছে।

কাজী সাইদুর রহমান বলেন, বাংলাদেশে ব্যাংকের বিভিন্ন পদক্ষেপের কারণে রেমিট্যান্স প্রবাহ বেড়েছে। বিশেষ করে হুন্ডি প্রতিরোধে কড়াকড়ি ও ব্যাংকিং চ্যানেলে রেমিট্যান্স বাড়াতে নেওয়া নানা উদ্যেগের সুফল পাওয়া যাচ্ছে।

বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্র জানায়, বিদায়ী অর্থবছরে (জুলাই ২০১৯ থেকে জুন ২০২০) পর্যন্ত সময়ে প্রবাসীরা দেশে রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন ১ হাজার ৮২০ কোটি ৩০ লাখ মার্কিন ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রায় এর পরিমাণ ১ লাখ ৫৪ হাজার ৭২৫ কোটি টাকা। এর আগে ২০১৮-১৯ অর্থবছরে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্সের চেয়ে এই পরিমাণ ১০ দশমিক ৮৫ শতাংশ বেশি। ওই বছর ১ হাজার ৬০০ কোটি ৩১ লাখ মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছিলেন প্রবাসীরা। এক অর্থবছরের হিসাবেও এটি সর্বোচ্চ রেমিট্যান্সের রেকর্ড। আর এর ধাক্কাতেই রিজার্ভও ছাড়াচ্ছে রেকর্ড।

কেবল অর্থবছর নয়, মাসের হিসাবেও রেমিট্যান্স নতুন রেকর্ড গড়ছে। গত মে মাসে ১৭৪ কোটি ৮০ লাখ ডলারের রেমিট্যান্স পাঠিয়ে একমাসের সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স পাঠানোর রেকর্ড গড়েছিলেন প্রবাসীরা। জুনে সেই রেকর্ডও ভেঙেছে। এ মাসে রেমিট্যান্স এসেছে ১৮৩ কোটি ৩০ লাখ মার্কিন ডলার।

আরও পড়ুন- বাংলাদেশ ব্যাংকে রিজার্ভ রেকর্ড ৩৪ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়েছে

বছরভিত্তিক রেমিট্যান্স

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৯-২০ অর্থবছরে প্রবাসীরা রেকর্ড পরিমাণ ১ হাজার ৮২০ কোটি ৩০ লাখ মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন। এর আগে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের রেমিট্যান্স আসে ১ হাজার ৬৩১ কোটি  মার্কিন ডলার। এছাড়া, ২০১৭-১৮ অর্থবছরে ১ হাজার ৪৯৮ কোটি ডলার, ২০১৬-১৭ অর্থবছরে ১ হাজার ২৭৬ কোটি ৯৪ লাখ ডলার, ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ১ হাজার ৪৯৩ কোটি ডলার এবং ২০১৪-১৫ অর্থবছরে দেশে এসেছিল ১ হাজার ৫৩১ কোটি ৬৯ লাখ ডলার রেমিট্যান্স।

পঞ্জিকা বছরের হিসাবে, ২০১৯ সালে রেকর্ড ১ হাজার ৮৩৩ কোটি মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স আসে দেশে। এটি বাংলাদেশের ইতিহাসে একবছরে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স। ২০১৮ সালে দেশে ১ হাজার ৫৫৩ কোটি ৭৮ লাখ মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স এসেছিল। এর আগে, ২০১৭ সালে ১ হাজার ৩৫৩ কোটি মার্কিন ডলার, ২০১৬ সালে ১ হাজার ৩৬১ কোটি মার্কিন ডলার, ২০১৫ সালে ১ হাজার ৫৩১ কোটি মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স এসেছিল।

প্রসঙ্গত, বর্তমানে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এক কোটির বেশি প্রবাসী বাংলাদেশি অবস্থান করছেন। প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্স জিডিপিতে অবদান রেখেছে ১২ শতাংশের বেশি। বাংলাদেশে রেমিট্যান্স পাঠানোর শীর্ষ ১০টি দেশ হলো যথাক্রমে সৌদি আরব, আরব আমিরাত, যুক্তরাষ্ট্র, মালয়েশিয়া, কুয়েত, ওমান, যুক্তরাজ্য, কাতার, ইতালি ও বাহরাইন।

সারাবাংলা/জিএস/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন