বিজ্ঞাপন

২৪ ঘণ্টায় আরও ৪২ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৩১১৪

July 3, 2020 | 2:43 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৪২ জন। একই সময়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ৩ হাজার ১১৪ জন শনাক্ত হয়েছেন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৬০৬ জন।

বিজ্ঞাপন

এ নিয়ে দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মোট ১ হাজার ৯৬৮ জন মারা গেলেন। আর করোনাভাইসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ১ লাখ ৫৬ হাজার ৩৯১ জনে। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৬৮ হাজার ৪৮ জন।

শুক্রবার (৩ জুলাই) দুপুরে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত অনলাইন বুলেটিনে এসব তথ্য তুলে ধরেন অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

বিজ্ঞাপন

ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে ৭১টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ হয়েছে। এর মধ্যে ৬৩টি ল্যাব থেকে নমুনা পরীক্ষার ফল এসেছে। বেসরকারি সাতটি ল্যাবের নমুনা পরীক্ষার ফল আসেনি, কারিগরি ত্রুটির কারণে একটি ল্যাবে পরীক্ষা বন্ধ আছে। সব ল্যাব মিলিয়ে এদিন নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ১৪ হাজার ৭৮১টি। আগের দিনের নমুনাসহ মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৪ হাজার ৬৫০টি। এ নিয়ে দেশে মোট ৮ লাখ ১৭ হাজার ৩৪৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হলো।

বুলেটিনের তথ্য অনুযায়ী, নমুনা পরীক্ষা কমে যাওয়ায় কোভিড শনাক্তের পরিমাণও কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ৩ হাজার ১১৪ জনের শরীরে কোভিড-১৯-এর উপস্থিতি পাওয়া গেছে। এ নিয়ে দেশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১ লাখ ৫৬ হাজার ৩৯১ জনে। তবে সংক্রমণ শনাক্তের সংখ্যা কমলেও নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার প্রায় একই রকম রয়েছে। গত কয়েকদিনের মতোই গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ বিবেচনায় শনাক্তের হার ২১ দশমিক ২৬ শতাংশ। আর এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ১৩ শতাংশ।

এদিকে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ৪২ জন গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন। এ নিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৯৬৮ জনে। আক্রান্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৬ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে পুরুষ ৩২ জন, নারী ১০ জন। এদের মধ্যে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন ৩১ জন, বাসায় মারা গেছেন ১১ জন।

অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১ হাজার ৬০৬ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়েছেন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হলেন ৬৮ হাজার ৪৮ জন। আক্রান্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৪৩ দশমিক ৫১ শতাংশ।

সারাবাংলা/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন