বিজ্ঞাপন

বগুড়া-১ উপনির্বাচন: ভোট পেছাতে আবেদন বিএনপি প্রার্থীর

July 8, 2020 | 3:07 am

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

বগুড়া: বগুড়া-১ আসনের উপনির্বাচন পেছানোর দাবিতে বিএনপি প্রার্থী এ কে এম আহসানুল তৈয়ব জাকির বগুড়া জেলা নির্বাচন অফিসে আবেদন করেছেন। চলমান করোনাভাইরাস পরিস্থিতির পাশাপাশি বন্যা কারণে ভোটগ্রহণের কোনো পরিবেশ নেই উল্লেখ করে তিনি ভোট পেছানোর এই আবেদন করেছেন বলে জানান। না পেছালে ভোট বর্জন করবেন বলে জানিয়েছেন এই বিএনপি প্রার্থী।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (৭ জুলাই) জেলা নির্বাচন কার্যালয়ে গিয়ে ভোট পেছানোর এই আবেদন জমা দেন এ কে এম আহসানুল তৈয়ব জাকির।

তিনি বলেন, মহামারি করোনা ও ভয়াবহ বন্যায় এখন ভোটের কোনো পরিবেশ নেই। গণসংযোগ, সভা, প্রচারণায় যদি জনগণ করোনায় আক্রান্ত হয় এবং মারা যায়, এর দায় কে নেবে?

বিজ্ঞাপন

ভোট আগে, না মানুষের জীবন আগে?— এমন প্রশ্ন রেখে জাকির বলেন, করোনা তো আছেই, তারওপর এই আসনের আটটি ইউনিয়ন যমুনার চরে। ১৪টি  ভোটকেন্দ্রে পানি উঠেছে। অনেক ভোটকেন্দ্রে চারিদিকে পানি, ভোটারা চরাঞ্চলে বাস করে। বন্যায় ভাসছে তারা। এখন তাদের ত্রাণ ও পুনর্বাসন প্রয়োজন। এ অবস্থায় সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা থাকলেও সংসদ অধিবেশনে বিল পাস করে কিংবা উচ্চ আদালতের আশ্রয় নিয়ে নির্বাচন পেছানো যেত।

করোনার মহামারিতে মানুষকে ভোটের কারণে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিয়ে এবং বন্যার পানিতে জনগণকে ভাসিয়ে, না খেয়ে রেখে সংসদে যাওয়ার মানসিকতা নেই উল্লেখ করে জাকির বলেন, আসলে এটি আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে বিনা ভোটে জেতানোর একটা কৌশল মাত্র। তবে নির্বাচন পিছিয়ে দিলে ভোটে যাব।

এর আগে, ১৮ জানুয়ারি বগুড়া-১ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নান মারা গেলে ওই আসনের উপনির্বাচনের তফশিল ঘোষণা করা হয়। ২৯ মার্চ নির্বাচন হওয়ার দিন নির্ধারিত ছিল। সে অনুযায়ী সব কার্যক্রম শেষ হয়েছিল, চলছিল প্রচারণা। তবে এর আগেই ৮ মার্চ দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হলে সপ্তাহখানেক আগে নির্বাচন স্থগিত হয়ে যায়।

প্রায় সাড়ে তিন মাস পর করোনা পরিস্থিতির মধ্যেই সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতার উল্লেখ করে আগামী ১৪ জুলাই স্থগিত এই উপনির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। তবে করোনা ও বন্যার কারণ দেখিয়ে বিএনপি নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিয়েছে।

সারাবাংলা/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন