বিজ্ঞাপন

উড়তে থাকা রোনালদোদের মাটিতে নামাল মিলান

July 8, 2020 | 4:09 am

স্পোর্টস ডেস্ক

এসি মিলানের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে দুর্দান্ত ফর্মে ছিল ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর জুভেন্টাস। সিরি আ শুরু হওয়ার পর থেকে টানা চার ম্যাচে জয় সবগুলোতেই। এই ম্যাচের শুরুটাও ঠিক তেমনই করেছিল জুভেন্টাস। ছয় গোলের রোমাঞ্চকর ম্যাচে শেষ পর্যন্ত রোনালদোদের ৪-২ গোলের ব্যবধানে বিধ্বস্ত করেছে এসি মিলান। ম্যাচের ৬২ মিনিট থেকে ৮০ মিনিট পর্যন্ত চার গোল করে জুভেন্টাসকে ম্যাচ থেকেই ছিটকে দেয় স্বাগতিক এসি মিলান।

বিজ্ঞাপন

স্তাদিও গুইসেপ্পে মেজ্জাতে শুরুটা বেশ আক্রমণাত্মকই করেছিল জুভেন্টাস। মিলানকে তাদের ঘরের কোণঠাসা করে রেখেছিল রোনালদোরা। ম্যাচের ১০ মিনিটেই প্রথম লিড নেওয়ার সুযোগ ছিল তুরিনের বুড়িদের কিন্তু বেনটাকারের দুর্দান্ত এক ফ্রিকিক থেকে বলে মাথা ছোঁয়াতে ব্যর্থ হন লিওনার্দো বনুচ্চি। এর মিনিট তিনিকে পরেই রোনালদো দূরপাল্লার শটে নিজের ভাগ্য পরীক্ষা করেন কিন্তু এদিন ভাগ্যদেবী যেন তাদের পক্ষেই ছিল না।

প্রথমার্ধের শেষ দিকে ইব্রাহিমোভিচ ম্যাচের প্রথম গোল করেন এবং মিলানকে এগিয়ে নেন। তবে তার গোল বাতিল হয়ে যায় অফ সাইডের কবলে পড়ে। আর তাতেই প্রথমার্ধ শেষ হয় গোলশূন্য ভাবেই।

বিজ্ঞাপন

উড়তে থাকা রোনালদোদের মাটিতে নামাল মিলান

দ্বিতিয়ার্ধের শুরু থেকে আক্রমণাত্মক জুভেরা। গোল পেতে সময় লাগে মাত্র দুই মিনিট। মধ্যমাঠ থেকে বল পেয়ে একক প্রচেষ্টায় জুভেদের প্রথম গোল করেন আদ্রিয়েন র‍্যাবিওট। জুভেরা মিলানের বিপক্ষে ১-০ গোলের লিড নেয়। এর মাত্র মিনিট পাঁচেক পর স্কোরশিটে নাম লেখান ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। হুয়ান কুয়াদ্রাদোর অ্যাসিস্ট থেকে চলতি মৌসুমে সিরি আ'তে নিজের ২৬তম গোল করেন রোনালদো। আর সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ৩০তম গোল করেন রোনালদো।

ম্যাচে তখন ২-০'তে পিছিয়ে মিলান। অনেকে হয়তো ধরেই নিয়েছে এখান থেক আর ফিরে আসা অসম্ভব। তবে দলটা যখন এসি মিলান তখন কোনো কিছুই অসম্ভব নয়। কেননা গত কয়েক ম্যাচে লিচ, রোমা এবং লাৎসিওকে হারিয়ে দুর্দান্ত ছন্দে দলটি। ম্যাচের ৬২ মিনিটে পেনাল্টি স্পট থেকে মিলানের ব্যবধান ২-১ করেন ইব্রাহিমোভিচ। এরপরেই ম্যাজিক শুরু। ৬৬ মিনিটে ইব্রার অ্যাসিস্ট থেকে মিলানকে সমতায় ফেরান ফ্র্যাঙ্ক কেসসি, এর পরের মিনিটেই অ্যান্তে রেবিচের অ্যাসিস্ট থেকে রাফায়েল লেয়াওর গোলে ম্যাচে প্রথমবারের মতো লিড নেয় মিলান।

উড়তে থাকা রোনালদোদের মাটিতে নামাল মিলান

তবে নাটক সেখানেই শেষ নয়, গোল করতে মরিয়া জুভের বিপক্ষে সুযোগের অপেক্ষায় থাকে মিলান। ম্যাচের ৮০ মিনিটে রেবিচের গোলে ৪-২ গোলে এগিয়ে যায় তারা। আর শেষ পর্যন্ত জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে মিলান। এই জয়ে পয়েন্ট টেবিলে জুভেন্টাসের কোনো পরিবর্তন না আসলে লিগ টেবিলের পাঁচ নম্বরে উঠে এসেছে এসি মিলান। ৩১ ম্যাচ শেষে ২৪ জয়, ৩ ড্র এবং ৪ হারে ৭৫ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই আছে জুভেন্টাস, অন্যদিকে সমান ম্যাচে ১৪ জয়, ৭ ড্র এবং ১০ হারে ৪৯ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার ৫ম স্থানে এসি মিলান। এছাড়া ৬৮ পয়েন্ট নিয়ে ২য় স্থানে লাৎসিও, ৬৪ পয়েন্ট নিয়ে ৩য় স্থানে অবস্থান ইন্টার মিলানের।

সারাবাংলা/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন