বিজ্ঞাপন

হাড্ডাহাড্ডি লড়াই শেষে শেষ হাসি ওয়েস্ট ইন্ডিজের

July 13, 2020 | 12:12 am

স্পোর্টস ডেস্ক

সাউদাম্পটন টেস্টে জয়ের জন্য ঠিক ২০০ রানের লক্ষ্যে চতুর্থ ইনিংসে খেলতে নেমে শুরুটা যাচ্ছে-তাই হয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের। জোফরা আর্চারের পেস আগুনে ২৭ রানে তিন উইকেট হারিয়ে বসে সফরকারীরা। এর মধ্যে ওপেনার জন ক্যাম্পাবলও আর্চারের বাউন্সারের আঘাতে মাঠ ছাড়তে ব্যধ্য হয়। তবে তারপরও ৪ উইকেটের স্মরণীয় এক জয় পেয়েছে সফরকারীরা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের এমন স্মরণীয় জয়ে শেষ দিনের নায়ক জার্মেইন ব্ল্যাকউড। এক প্রান্ত আগলে রেখে ৯৫ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলে সফরকারীদের জিতিয়েছেন তরুণ মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান।

বিজ্ঞাপন

এই জয়ে তিন ম্যাচ সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে গেল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সাউদাম্পটন টেস্ট ছিল সকলের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দু। করোনাভাইরাসের মধ্যে এটাই যে প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ। মাঠের লড়াইও হলো হাড্ডহাড্ডি। রোজ বোলে টেস্টের প্রথম দুই দিন ছিল বৃষ্টির দাপট। পরের তিন দিন কেউ কাউকে ছেড়ে কথা বলেনি। লড়াই শেষে শেষ হাসি হাসল ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

জয়ের জন্য ক্যারিবিয়ানদের টার্গেট ছিল ঠিক ২০০। টেস্ট ইতিহাসে অতীতে দুইশ বা তার কম টার্গেটে কখনোই হারেনি ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তবে ২৭ রানে তিন উইকেট হারিয়ে শুরুতে পরিসংখ্যানের এই বড়াইটা করতে পারেনি জেসন হোল্ডারের দল। শুরুর ধাক্কা কাটিয়ে পরে ম্যাচ বের করে নিয়েছেন ব্ল্যাকউড। একপ্রান্ত আগলে রেখে দলকে প্রায় একই টেনেছেন। রোস্টন চেজ, শেন ডাউরিচের ছোট ছোট অবদানগুলো সঙ্গী করে দলকে জয়ের কাছে পৌঁছে দেন তরুণ মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান।

বিজ্ঞাপন

অবশ্য ইংলিশ ফিল্ডারদেরও 'অবদান'ও ছিল এতে! সহজ-কঠিন বেশ কয়েকটি ক্যাচ মিস করেছেন ইংলিশ ফিল্ডাররা। ব্ল্যাকউডের সহজ দুটি ক্যাচ মিস করেছেন জস বাটলার ও ররি বার্নস। সহজ রান আউটের সুযোগও মিস হতে দেখা গেল।

হাড্ডাহাড্ডি লড়াই শেষে শেষ হাসি ওয়েস্ট ইন্ডিজের

দলকে জেতালেও ব্ল্যাকউড অবশ্য ফিরেছেন কিছুটা হতাশা নিয়ে। জয় থেকে দল যখন মাত্র ২১ রান দূরে তখন বেন স্টোকসের বলে জেমস অ্যান্ডারসনের হাতে ধরে পরেন, তার ব্যক্তিগত রান তখন ৯৫। অর্থাৎ মাত্র ৫ রানের জন্য মিস করেছেন ক্যারিয়িারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি। ব্ল্যাকউডের ১৫৪ বলের ইনিংসটিতে ছিল ১২টি চারের মার। রোস্টন চেজ ৮৮ বলে ৩৭ ও ডাউরিচ ৩৭ বলে ২০ রান করেছেন। ৩৬ বলে ১৪ রান করে অপরাজিত ছিলেন জেসন হোল্ডার।

এর আগে ৮ উইকেটে ২৮৪ রান নিয়ে পঞ্চম দিনের খেলা শুরু করা ইংল্যান্ড শেষ পর্যন্ত থেমেছে ৩১৩ রানে। জোফরা আর্চারের ছোট তবে গুরুত্বপূর্ণ একটা ইনিংসের কল্যাণেই মূলত তিনশ পেরিয়ে কিছুটা এগুতে পেরেছে স্বাগতিকরা। ৩৫ বলে ৪টি চারের সাহায্যে ২৩ রান করেন আর্চার। আজ ইংল্যান্ডের পতন হওয়া দুটি উইকেটই নিয়েছেন শ্যানন গ্যাব্রিয়েল। দ্বিতীয় ইনিংসে দীর্ঘদেহী পেসারের বোলিং ফিগার ৫/৭৫। দুই ইনিংস মিলিয়ে নয় উইকেট নেওয়া গ্যাব্রিয়েলের হাতেই উঠেছে ম্যাচ সেরার পুরস্কার। দ্বিতীয় ইনিংসে দুটি করে উইকেট পেয়েছেন আলগরি জোসেফ ও রোস্টন চেজ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংস ২০৪ ও দ্বিতীয় ইনিংস ৩১৩, ওভার ১১১.২ (ক্রাওলি ৭৬, সিবলি ৫০, স্টোকস ৪৬, বার্নস ৪২; গ্যাব্রিয়েল ৫/৭৫, জোসেফ ২/৪৫, চেজ ৭১/২)।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথম ইনিংস ৩১৮ ও দ্বিতীয় ইনিংস ২০০/৬, ওভার ৬৪.২ (ব্ল্যাকউড ৯৫, চেস ৩৭, ডাউরিচ ২০; আর্চার ৩/৪৫, স্টোকস ২/৩৯)।

ফল: ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৪ উইকেটে জয়ী।

ম্যাচ সেরা: শ্যানন গ্যাব্রিয়েল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)।

সারাবাংলা/এসএইচএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন