বিজ্ঞাপন

নারীবাদ প্রয়োজন নাকি বিলাসিতা: নারীবাদ এখনও কেন প্রাসঙ্গিক

July 31, 2020 | 8:56 pm

আনুশা মেহরিন

গত তিন পর্বের আলোচনার প্রেক্ষিতে অনেকেই বলবেন ‘ঠিক আছে মানলাম আগে নারীর প্রতি অবিচার করা হতো বলে নারীবাদ দরকার ছিলো, কিন্তু এখন তো চারিদিকে নারীরই আধিপত্য। এখন তো নারীবাদ নিয়ে লাফালাফি করার প্রয়োজন নেই’
আছে, প্রয়োজন আছে। আপনার যদি মনে হয় বিশ্বে নারীদের অধিকার সম্পূর্ণরূপে প্রতিষ্ঠিত হয়ে গেছে, নারীদের চেয়ে সুখে আর কেউ নেই, তাহলে আমি বলবো হয় আপনার জানায় প্রচণ্ডরকম ভুল আছে, নাহয় আপনি সহজ বিষয় দেখেও সেগুলো এড়িয়ে যেতে চাইছেন। দ্বিতীয়টি যদি হয়ে থাকে, তাহলে আপনাকে বলার মতো আমার কিছু নেই। কিন্তু যদি আসলেই আপনার জানায় ভুল থেকে থাকে, তাহলে চলুন দেখি একবিংশ শতাব্দীর নারীরা কেমন আছেন আর নারীবাদ আসলেই প্রয়োজন আছে কিনা।

বিজ্ঞাপন

নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ নারীকে এখনও জীবনের প্রতিটি পদে বাঁধার সম্মুখীন হতে হয়। নারীর ওপর অপরের সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দেওয়া হয়। এখনও নারীর নিজের শরীরের ওপর শতভাগ অধিকার নাই। নারীকে এখনও তার নিজের পছন্দমতো জীবনসঙ্গী নির্বাচন করতে দেওয়া হয় না। নারীকে এখনও অনেক সমাজে নিচুজাতের মানুষ বলে মনে করা হয়। উদাহরণ হিসেবে বলা যায় অনেক ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে নারীর প্রবেশাধিকার বন্ধ থাকা।
- নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ এখনও আমি ঘর থেকে বের হলে অনিরাপদ বোধ করি। এখনও আমি রাস্তায় গিয়ে সংকুচিত বোধ করি কারণ আমার শরীরের দিকে নোংরা কিছু চোখ তাকিয়ে থাকে। এখনও আমাকে দেখে নোংরা মন্তব্য করা হয় । এখনও আমার শরীরে কেউ হাত দিলে তার শাস্তি পাওয়ার আগে আমার নিজের চরিত্রের অগ্নিপরীক্ষা দিতে হয়। এখনও আমি ধর্ষিত হলে আমাকে বাজে মেয়ে হিসেবে পরিচিত হতে হয়। এখনও প্রতি ৩ জনের মধ্যে ১ জন নারী যৌন নির্যাতনের শিকার হন। এই প্রতি ৩ জনে ১ জন হয়ত আপনারই কাছের কেউ। আর হয়রানি করছে যারা তারাও আপনারই পরিচিত বা আপনি নিজে। নারী নির্যাতন হয় পুরুষতান্ত্রিক চিন্তাভাবনার জন্য। আর পুরুষতান্ত্রিক চিন্তাভাবনা নারী-পুরুষ উভইয়ই ধারণ করে। আর নারীও তাই ঘরে বাইরে সবা জায়গায় নির্যাতনের শিকার হচ্ছে।
- নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ এখনও ফিমেইল অর্গাজমকে পাপ হিসেবে দেখা হয়। নারী যাতে যৌনসম্পর্কে আনন্দ না পায় তার জন্যে এখনও বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে তার জননাঙ্গ কেটে ফেলা হয়। এর শিকার কিশোরী-তরুণী থেকে ৫ মাসের শিশু পর্যন্ত। গড়ে প্রায় ২০০ মিলিয়ন নারীকে এর মধ্যে দিয়ে যেতে হয়।
- নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ এখনও পৃথিবীর বহু দেশে নারীকে শিক্ষার অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হয়। এখনও সারা বিশ্বে গড়ে ৬২ মিলিয়ন মেয়েশিশুকে শিক্ষার অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে। এখনও নারীর ক্যারিয়ারের চেয়ে বেশি তার সংসারের দিকে গুরুত্ব দিতে হয় বেশি। এখনও নারী শিক্ষাকে সেকেন্ডারি প্রয়োজন হিসেবে ধরা হয়।
- নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ এখনও বহু দেশে অনার কিলিং করা হয়। অর্থাৎ পরিবার, ধর্ম ও সমাজের সম্মান রক্ষার্থে নারীকে মেরে ফেলা হয়।
- নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ, এখনও মেয়ে শিশু জন্মের পর হত্যা করা হয়। এখনও মেয়ে শিশুকে অভিশাপ বলে মনে করা হয়। এখনও কন্যাসন্তান জন্ম দেয়ার ‘অপরাধে’ মায়ের উপর অত্যাচার হয়।
- নারীবাদ প্রয়োজন কারণ, এখনও পৃথিবীর প্রতিটি দেশে কোটি কোটি নারী অত্যাচারিত হচ্ছে নানাভাবে। নারীকে ধর্ষণ করা হয়, তাকে নির্যাতন করে খুন করে ফেলা হয়। এমনকি ডমেস্টিক ভায়োলেন্স বা গৃহ নির্যাতনকে এখনও খুব বড় ইস্যু হিসেবে ধরা হয় না।
- নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ এখনও বহু দেশের আইনে ম্যারিটাল রেইপকে অপরাধ হিসেব গণ্য করা হয় না। এখনও মনে করা হয় নারীর একমাত্র কাজ তার জীবনসঙ্গি অনুগত যৌন দাসী হওয়া। এখনও নারীদের ‘বিয়ে হয়’ আর পুরুষ ‘বিয়ে করে’। এখনও নারীকে বাইরে কাজ করতে দেওয়া হয় না। এখনও নিজের যৌনজীবনে বহু বহু নারীর কোনো মতামত নেই।

আরও পড়ুন,
নারীবাদ প্রয়োজন নাকি বিলাসিতা: নারীবাদ আছে, পুরুষবাদ কেন নাই!

বিজ্ঞাপন

- নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ এখনও কর্মজীবি দম্পতি ঘরে ফিরলে অধিকাংশ সময় নারীকে আদেশ করা হয় ঘরের কাজ করতে। এখনও নারীকে কেয়ার গিভার ছাড়া আর কোনো ভূমিকায় দেখতে চাওয়া হয় না। এখনও বাড়ি ফিরে পুরুষটি তার স্ত্রীকে বলে ‘সারাদিন কী করেছো বসে বসে’। এখনও আশা করা হয় নারীর একমাত্র কাজ ঘর সামলানো ও সন্তান পালন।
- নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ, এখনও আমার বহু বছর ধরে চাকরি করা মাস্টার্স পাশ মায়ের ধারণা বাসার রান্নাবান্না ঘর সামলানোর দায়িত্ব শুধুমাত্র তার। এখনও আমরা মনে করি আমাদের মায়েদের জীবন বলতে কিছু নেই। আমাদের সেবায় নিয়োজিত থাকা তাদের জীবনের আর কোনো লক্ষ্য নেই।
- নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ এখনও নারীকে অর্থনৈতিকভাবে স্বাধীন হওয়াকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়া হয় না। এখনও নারীকে বোঝা হিসেবে গণ্য করা হয়। এখনও নারী শিক্ষা অপ্রয়োজনীয় বলে মনে করা হয়। এখনও নারীকে শুনতে হয় ‘বিয়ে হলে জামাইর সাথে যাইস’।
- নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ এখনও প্রতিদিন প্রায় ৪০,০০০ মেয়ে শিশুকে বিয়ে করতে বাধ্য করা হয়।
- নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ এখনও আমাদের নারীরা ধর্ষিত হয় এবং ধর্ষকদের শাস্তি হয় না। ২০১৬ সালের স্ট্যাটিস্টিকস বলছে বাংলাদেশে প্রায় ৯৫ শতাংশ ধর্ষকের কোনো বিচার হয় না। নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ এখনও ধর্ষিত হলে নারীদের ‘ইজ্জত চলে যায়’।
- নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ এখনও একজন নারীর সাফল্য অর্জন সবকিছু থেকে সে দেখতে কেমন কিংবা তার পোশাক-আশাক কেমন তা নিয়ে তাকে যাচাই-বাছাই করা হয় বেশি।
- নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ এখনও নারীকে ভোগ্যপণ্য হিসেবে বিশ্বের সব জায়গায় বিবেচনা করা হয়। এখনও ভাবা হয় শরীর ছাড়া একজন নারীর আর কিছু নেই।
- নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ এখনও কর্মক্ষেত্রে নারীকে যথেষ্ট গুরুত্ব দেওয়া হয় না। এখনও নারীর কাজকে ‘শখ’ হিসেবে গণ্য করা হয়।
- নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ এখনও কোটি কোটি নারী তার সমান যোগ্যতাসম্পন্ন একজন পুরুষ থেকে গড়ে ৯ শতাংশ কম বেতন পান। ২০১৫ সালের ইউএস নারী সকার টিমের খেলোয়াড়রা বিশ্বকাপ জেতার পর যা পুরষ্কার পায় তার তুলনায় ইউএস পুরুষ সকার টিমের সদস্যেরা ৪০ গুণ বেশি টাকা পান। ভাবা যায়, চল্লিশ গুণ বেশি! যারা এখন পর্যন্ত বৈশ্বিক ফুটবলে তেমন কিছু অর্জন করতে পারেনি। তারপর আমাদের নারী ক্রিকেট দলের কথা একবার মনে করে দেখুন তো? দলের কোন সদস্যকে মনে করতে পারছেন।
- নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ এখনও হিউম্যান ট্রাফিকিংয়ের শিকার হওয়া মানুষগুলোর মধ্যে ৭১ শতাংশ নারী ও মেয়ে শিশু।
- নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ এখনও আমি আমার আশেপাশে একটা মেয়ে খুঁজে পাই না যাকে গণপরিবহণে হয়রানির শিকার হতে হয়নি।
- নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ এখনও পিরিয়ডকে ট্যাবু হিসেবে ধরা হয়। এখনও স্যানিটারি ন্যাপকিনকে কাগজে মুড়ে বাড়ি আনতে হয়। এখনও উন্নত দেশ যুক্তরাজ্যের ১৪-২১ বছরের মেয়েদের মধ্যে ১০ জনে ১ জনের মেনস্ট্রুয়াল প্রোডাক্ট কেনার সামর্থ্য নাই। এখনও কোটি মেয়েকে পিরিয়ডের সময়ব অস্বাস্থ্যকর কাপড় ব্যবহার করতে হয়। নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ একটি সিগারেটের দাম থেকে একটি স্যানিটারি ন্যাপকিনের দাম বেশি।
- নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ এখনও তানজানিয়াতে প্রতি বছর ৮০০০ মেয়ে গর্ভধারণের জন্যে স্কুল থেকে ড্রপআউট হয়।
- নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ এখনও অপুষ্টিতে ভোগা মানুষের মধ্যে ৬১ শতাংশ নারী ও মেয়ে শিশু।
- নারীবাদ এখনও প্রয়োজন কারণ এখনও নারীবাদের প্রয়োজনীয়তা নিয়ে আমাকে পাতার পর পাতা লিখে যেতে হচ্ছে।
বিশ্বাস করুন, আমাদের নারীরা এখনও নারী হওয়ার কারণে ব্যক্তিগত, সামাজিক ও কর্মজীবনে বৈষম্য ও অত্যাচারের শিকার হচ্ছে। উঁচু চেয়ারে বসে চোখ বন্ধ করে বলা খুবই সহজ পৃথিবীতে সমঅধিকার প্রতিষ্ঠিত হয়ে গিয়েছে। চোখ খুলে আশেপাশে তাকালেই বোঝা যাবে আসলে ব্যাপারটা তা না। ‘If you don’t speak for all women, you speak for no women’। আর তাই সমাজের বৃহত্তর অংশে না তাকিয়ে হিসেব করলে মনমতো উত্তর আসবেই যা বাস্তবতার সাথে মিলবে না।

লেখক- তরুণ উদ্যোক্তা (ডিজাইনার ও ফাউন্ডার, ময়নার গয়না)

সারাবাংলা/আরএফ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন