বিজ্ঞাপন

বন্যার্তদের পাশে দাঁড়াতে বিত্তবানদের আহ্বান রাষ্ট্রপতির

August 2, 2020 | 12:30 am

সারাবাংলা ডেস্ক

ঢাকা: কোভিড-১৯ মহামারির মধ্যে দেশের বিভিন্ন জেলায় বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের পাশে দাঁড়াতে বিত্তবানদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। ঈদুল আজহা উপলক্ষে শনিবার (১ আগস্ট) বঙ্গভবনে দেওয়া এক বক্তৃতায় তিনি এ আহ্বান জানান।

বিজ্ঞাপন

অসহায় মানুষ যাতে ঈদের আনন্দ থেকে বঞ্চিত না হয় সেদিকে সবাইকে খেয়াল রাখতে হবে উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘ঈদের আনন্দ নিজের ও পরিবারের মধ্যে সীমাবদ্ধ না রেখে সবার মাঝে ছড়িয়ে দিতে বিত্তবান ও সামর্থ্যবান সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। বন্যার্ত মানুষরাও যাতে ঈদের আনন্দে শরিক হতে পারে সে ব্যাপারে দলমত নির্বিশেষে সবাইকে কাজ করতে হবে।’

বর্তমানে দেশের বিভিন্ন জেলায় অনেক লোক জলাবদ্ধতার মধ্যে জীবন যাপন করছেন এবং সরকার তাদের খাদ্য ও নগদ সহায়তা দেওয়াসহ সম্ভাব্য সব সহায়তা দিচ্ছে উল্লেখ করে আবদুল হামিদ বলেন, ‘এ বছর এমন একটা সময়ে ঈদুল আজহা অনুষ্ঠিত হচ্ছে যখন মহামারি করোনার ছোবলে বিশ্ববাসী বিপর্যস্ত। বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে কর্মহীন হয়ে অনেক মানুষই মানবেতর জীবনযাপন করছে।’

বিজ্ঞাপন

রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘এসব মানুষের কল্যাণে নিজ নিজ অবস্থান থেকে সকলকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে হবে। করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির চিকিৎসা ও পরিচর্যায় ডাক্তার-নার্সদের পাশাপাশি মানবিকতাকে যেন আমরা ভুলে না যাই। করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির চিকিৎসা ও পরিচর্যায় ডাক্তার-নার্সদের পাশাপাশি পরিবার ও আত্মীয়-স্বজনসহ সকলকে আন্তরিক হতে হবে।’

রাষ্ট্রপ্রধান করোনা মোকাবিলায় সকলকে সচেতনতার সঙ্গে এবং জীবনযাপনে ও চলাফেরায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, ‘নিজে সুস্থ থাকি, অন্যকেও সুস্থ রাখি- এটাই হোক সকলের অঙ্গীকার।’

আবদুল হামিদ বলেন, ‘ধর্ম মানুষকে কল্যাণ ও আলোর পথ দেখায়। প্রকৃত ধর্মীয় শিক্ষা ও আচার-আচরণ সমাজে আলোকিত মানুষ তৈরিতে সহায়তা করে। সমাজ থেকে অন্ধকার ও কুসংস্কার দূর করে। ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবার মাঝে গড়ে তোলে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির অনন্য বন্ধন।’

তিনি কোরবানির শিক্ষা ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ঐতিহ্যকে ব্যক্তি ও সমাজ জীবনে সঠিকভাবে কাজে লাগিয়ে জাতীয় উন্নয়নকে তরান্বিত করতে সকলের প্রতি আহ্বান জানান। [সূত্র: বাসস]

সারাবাংলা/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন