বিজ্ঞাপন

হাসপাতালে অভিযানের আগে জানাতে হবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে

August 5, 2020 | 10:54 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: নভেল করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) পরিস্থিতিতে দেশের সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিভিন্ন শাখার অভিযানে স্বাভাবিক চিকিৎসা কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। এমন অবস্থায় যেকোনো সরকারি বা বেসরকারি হাসপাতালে অভিযান পরিচালনা থেকে বিরত থাকা এবং জরুরি অভিযান পরিচালনার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করলে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে সমন্বয় করে তা করতে হবে।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (৪ আগস্ট) স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের বেসরকারি স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা-১ শাখার সিনিয়র সহকারী সচিব উম্মে হাবিবা স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত একটি চিঠি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিবকে আদেশক্রমে অনুরোধ জানিয়ে চিঠি দিয়েছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়।

চিঠিতে বলা হয়েছে, দেশে করোনাভাইরাস মহামারীর প্রাদুর্ভাবের পর থেকে বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালসমূহে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা নানা বিষয়ে অভিযান পরিচালনা করছেন। একটি হাসপাতালে একাধিক আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অভিযান পরিচালনা করাতে তাদের স্বাভাবিক চিকিৎসা কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে এবং এ কারণে স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানসমূহে একধরনের চাঁপা অসন্তোষ বিরাজ করছে।

চিঠিতে আরও বলা হয়, এরইমধ্যে স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ থেকে সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে সার্বিক কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করার জন্য একটি টাস্কফোর্স কমিটি গঠন করা হয়েছে যেখানে জননিরাপত্তা বিভাগের একজন যুগ্ম সচিবপর্যায়ের কর্মকর্তা সদস্য হিসেবে আছেন। ভবিষ্যতে স্বাস্থ্য সেবা প্রতিষ্ঠানে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কোনো অভিযান পরিচালনার প্রয়োজনীয়তা দেখা দিলে স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সঙ্গে পরামর্শক্রমে তা করা যাবে।

বিজ্ঞাপন

এ অবস্থায় যে কোনো সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে অভিযান পরিচালনা থেকে বিরত থাকা এবং জরুরি অভিযান পরিচালনার প্রয়োজনীয়তা অনুভব হলে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ এবং প্রযোজ্য ক্ষেত্রে চিকিৎসা শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সাথে সমন্বয়ে পরিচালনা করার জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হয়। এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর আলোচনা হয়েছে বলে চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, দেশে নভেল করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে রিজেন্ট হাসপাতাল, শাহাবুদ্দিন মেডিকেল কলেজসহ বেশ কয়েকটি হাসপাতালে অভিযান চালিয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এ সময় প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম ও জালিয়াতির প্রমাণ পাওয়া যায়। ফলে প্রতিষ্ঠানগুলো সিলগালা ও তাদের মালিক এবং পরিচালনাকারীদের গ্রেফতার করা হয়।

সারাবাংলা/এসবি/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন