বিজ্ঞাপন

চট্টগ্রাম বন্দর থেকে ৯৬১ কোটি টাকা ‘নিয়ে যাচ্ছে’ সরকার

August 6, 2020 | 8:21 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো: স্বায়ত্তশাসিত সংস্থার উদ্বৃত্ত অর্থ সরকারি কোষাগারে জমা দেওয়ার আইন পাসের পর চট্টগ্রাম বন্দরের তহবিল থেকে প্রথমবারের মতো নেওয়া হচ্ছে ৯৬১ কোটি টাকা। এর মধ্যে ৪৬১ কোটি টাকা নির্মাণাধীন পায়রা বন্দরের জন্য ও ৫০০ কোটি টাকা অর্থ মন্ত্রণালয়ের জন্য নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

বুধবার (৫ আগস্ট) চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের বোর্ড সভায় সরকারি কোষাগারে টাকা জমা দেওয়ার বিষয়টি নথিভুক্ত হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

জানতে চাইলে চট্টগ্রাম বন্দরের চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল এস এম আবুল কালাম আজাদ সারাবাংলাকে বলেন, ‘সরকার সিদ্ধান্ত দিয়েছে, আমরা টাকা দিচ্ছি। খুব শিগগিরই তহবিল থেকে এই টাকা দেওয়া হবে। এটা তো দেশের টাকা। মন্ত্রণালয় নির্দেশ দিয়েছে, আমরা অবশ্যই টাকা দেবো।’

বোর্ড সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে কি না— জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘বোর্ড সভার সিদ্ধান্ত আমাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়। এটা আমরা প্রকাশ করব না।’

বিজ্ঞাপন

দেশের ৬১টি স্বায়ত্তশাসিত, সরকারি কর্তৃপক্ষ ও স্বশাসিত সংস্থার ব্যাংকে থাকা বিপুল পরিমাণ উদ্বৃত্ত অর্থ সরকারি কোষাগারে জমার বিধান রেখে একটি বিল গত ৫ ফেব্রুয়ারি জাতীয় সংসদে পাস হয়। সরকারের উন্নয়ন প্রকল্পের ব্যয় মেটাতে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বিলটি পাসের প্রস্তাব করলে তা কণ্ঠভোটে পাস হয়। তবে বিলটি পাসের তীব্র বিরোধিতা করেন বিরোধী দল জাতীয় পার্টি ও বিএনপির সংসদ সদস্যরা।

সূত্রমতে, গত জুলাই মাসে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে চট্টগ্রাম কর্তৃপক্ষের একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে চট্টগ্রাম বন্দরের তহবিল থেকে তিন হাজার কোটি টাকা নেওয়ার বিষয়ে আলোচনা হয়। পরবর্তী সময়ে অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে পাঁচশ কোটি টাকা দেওয়ার জন্য চিঠি দেওয়া হয় চট্টগ্রাম বন্দরকে।

এছাড়া পায়রা বন্দরের প্রস্তাবিত ‘রাবনাবাদ চ্যানেলের (ইনার ও আউটার) রক্ষণাবেক্ষণ ড্রেজিং প্রকল্প’ বাস্তবায়নে অনুদান হিসেবে ৪৬১ কোটি ৯০ লাখ টাকা চেয়ে চট্টগ্রাম বন্দরকে চিঠি দেয় নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়।

বিজ্ঞাপন

চট্টগ্রাম বন্দরের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বন্দরের তহবিল থেকে এই প্রথমবারের মতো টাকা নেওয়া হচ্ছে দেশের অন্যান্য খাতে। এ নিয়ে বন্দরের শ্রমিক-কর্মচারীদের অসন্তোষের কথাও এসেছে গণমাধ্যমে।

দেশের আমদানি-রফতানি বাণিজ্যের প্রধান খাত চট্টগ্রাম বন্দরের তহবিলে প্রায় আট হাজার কোটি টাকার মতো উদ্বৃত্ত আছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে।

সারাবাংলা/আরডি/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন