বিজ্ঞাপন

করোনা মোকাবিলায় সরকারের কোনো ত্রুটি নেই— সুলতান মনসুর

August 7, 2020 | 10:29 am

সুলতান মোহম্মদ মনসুর আহমেদ, যিনি সুলতান মনসুর নামেই খ্যাত। মৌলভীবাজার- (কলাউড়া উপজেলা) সংসদীয় আসনের নির্বাচিত সংসদ সদস্য তিনি। ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মনোনয়নে ধানের শীষ প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে বিজয়ী হন সুলতান মনসুর।

বিজ্ঞাপন

সিলেট এম সি কলেজে পড়াকালীন সুলতান মনসুরের রাজনীতি জীবন শুরু হয়। সে সময় তিনি ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। ছাত্রলীগের নেতৃত্বের জন্য আশির দশকে সারাদেশে পরিচিতি লাভ করেন। সুলতান মনসুর স্বাধীন বাংলাদেশে ছাত্রলীগের একমাত্র সভাপতি, যিনি একইসঙ্গ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) ভিপিও ছিলেন।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট সপরিবারে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকাণ্ডের পরে যে কয়জন এর প্রতিবাদে সরব হন, তাদের মধ্যে সুলতান মনসুর অন্যতম। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদকও ছিলেন তিনি। আওয়ামী লীগের রাজনীতিবিদ হিসেবে পরিচিত থাকলেও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে গঠিত আওয়ামী বিরোধী জোটজাতীয় ঐক্যফ্রন্টে প্রথম সারির নেতা হিসেবে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন সুলতান মনসুর।

বিজ্ঞাপন

তবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা আনুগত্য প্রদর্শনের ক্ষেত্রে তিনি ছিলেন অবিচল। বিএনপি নেতাদের সঙ্গে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মঞ্চে উঠলেওজয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু স্লোগান দিতে ভুল করেননি তিনি। নির্বাচনের পর বিএনপি জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্যরা শপথ নেওয়ার ব্যাপারে গরিমসি করলেও নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই তিনি শপথ নিয়ে সংসদে যোগ দেন।

একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাস মোকাবিলা, নির্বাচনি এলাকায় সরকারি ব্যক্তিগত পর্যায়ে ত্রাণ বিতরণ, করোনা সংকট উত্তরণে সরকারের পক্ষ থেকে নেওয়া উদ্যোগ সম্পর্কে নিজের মতামত তুলে ধরেছেন সারাবাংলাকে দেওয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে। সাক্ষাৎকার গ্রহণ করেছেন সারাবাংলার স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট আসাদ জামান মোবাইলে ফোনে নেওয়া সাক্ষাৎকারের চুম্বক অংশ নিচে তুলে ধরা হলো।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা: কেমন আছেন?

সুলতান মনসুর: করোনাকালে সারা পৃথিবীর মানুষ যেমন আছে, আমিও তেমনই আছি। আলাদাভাবে থাকার তো সুযোগ নেই।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা: কোথায় আছেন?

সুলতান মনসুর: এখন ঢাকায় আছি। একটা বিশেষ কাজে ঢাকায় এসেছি।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা: আপনার নির্বাচনি এলাকা কি বন্যা কবলতি?

সুলতান মনসুর: আমার কলাউড়াতে বন্যা নেই। ওখানে হাওর আছে। হাকালুকি হাওর। প্রবল বর্ষণে পানি বেড়েছে। ওটা বৃষ্টির পানি। বন্যার পানি নয়।

সারাবাংলা: করোনা পরিস্থিতির খবর কী?

সুলতান মনসুর: ওটা বলতে পারবেন চিকিৎসকেরা। আপনি তাদের জিজ্ঞাসা করুন।

সারাবাংলা: একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে নিজ এলাকার করোনা মহামারি সম্পর্কে তো আপনাকে আপডেট থাকতে হবে। সে জন্যই জিজ্ঞাসা করলাম।

সুলতান মনসুর: সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে যদি বলতে বলেন, তাহলে বলব— সারা পৃথিবীর যে অবস্থা, আমার নির্বাচনি এলাকারও সেই একই অবস্থা। ব্যতিক্রম কিছু নেই। টেস্ট হচ্ছে, রোগী শনাক্ত হচ্ছে— এই আর কী!

সারাবাংলা: করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে ত্রাণ তৎপরতা কেমন চলছে?

সুলতান মনসুর: সরকার থেকে যে বরাদ্দ, সেটা যথাযথভাবে টিএনও-ইউএনওদের মাধ্যমে বণ্টন করা হয়েছে, হচ্ছে। এ ব্যাপারে কোনো গাফিলতি নেই। আমি নিজে উপস্থিত থেকে সব কিছু তদারকি করেছি।

সারাবাংলা: ত্রাণ তৎপরতার সময় স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের সহযোগিতা কতটুকু পেয়েছেন?

সুলতান মনসুর: এটা তো রাজনৈতিক কর্মসূচি না, পুরোটাই মানবিক কর্মসূচি। এখানে রাজনৈতিক দল বা নেতাকর্মীদের কথা কেন আসছে? আমি স্পষ্ট করে বলছি, সবকিছু ঠিক ঠাক মতো চলছে। কোথাও কোনো ঝামেলা নেই।

সারাবাংলা: করোনা মোকাবিলায় এখন পর্যন্ত সরকার যে উদ্যোগগুলো গ্রহণ করেছে, সেটাকে কি আপনি যথার্থ মনে করেন?

সুলতান মনসুর: করোনা মোকাবিলায় সরকারের কোনো ত্রুটি-বিচ্যুতি নেই। মাঠ পর্যায়ে হয়তো কিছু অনিয়ম হয়েছে, সেটি ভিন্ন বিষয়। কিন্তু সরকার এখন পর্যন্ত যে উদ্যোগ নিয়েছে, সেগুলোতে তেমন কোনো ত্রুটি দেখি না।

সারাবাংলা: প্রথমে সাধারণ ছুটি, তারপর লকডাউন, আবার অঞ্চল ভাগ করে লকডাউন এবং একটা পর্যায়ে সব কিছু স্বাভাবিক  অবস্থায় ফিরিয়ে আনা— সরকারের এসব সিদ্ধান্তকে কি যথার্থ মনে করেন?

সুলতান মনসুর: এটা তো সরকারের নীতিনির্ধরকেরা বলতে পারবনে। আমি তো সরকারের নীতিনির্ধারক পর্যায়ের কেউ না।

সারাবাংলা: আমি আপনার ব্যক্তিগত মতটা জানতে চেয়েছি।

সুলতান মনসুর: এ বিষয়ে ব্যক্তিগত মত দেওয়ার কিছু নেই। তবে একটুকু বলতে পারি, যা কিছু করা হয়েছে, তা জাতিসংঘ ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইডলাইন মেনেই করা হয়েছে।

সারাবাংলা: আপনাকে ধন্যবাদ, ভালো থাকুন।

সুলতান মনসুর: আপনাকেও ধন্যবাদ, ভালো থাকুন। নিরাপদে থাকুন, জয়বাংলা।

সারাবাংলা/এজেড/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন