বিজ্ঞাপন

দ্রুত ছন্দে ফেরার আশা নাঈমের

August 10, 2020 | 6:16 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

জুলাইয়ের ১৯ তারিখ থেকে বিসিবি'র ব্যবস্থাপনায় চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ব্যক্তিগত অনুশীলন করে আসছেন টাইগার অফস্পিনার নাঈম হাসান। প্রথম ধাপের অনুশীলন করেছেন এক সপ্তাহ। দ্বিতীয় ধাপে আজ তৃতীয় দিনের মতো অনুশীলন করলেন। মোট ১০ দিনের অনুশীলন শেষে নিজের প্রতি তার মূল্যায়ন হলো, এভাবে অনুশীলন চালিয়ে গেলে ছন্দে ফিরতে খুব বেশি সময় লাগবে না।

বিজ্ঞাপন

মহামারির সময়টি সতীর্থদের মতো নাঈম হাসানের ও ঘরে বসেই কাটছিল। কিন্তু তাতে খুব একটা স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করছিলেন না তরুণ উদীয়মান এই টাইগার। কিন্তু ১৯ জুলাই থেকে যখন আউটডোর অনুশীলন শুরু হলো, প্রিয় মাঠে ফিরলেন তখন থেকেই তার পরিচিত এক অনন্য অনুভূতি কাজ করতে শুরু করেছে।

অনুশীলনের শুরুটা করেছেন রানিং ও জিম সেশন দিয়ে। বোলিং শুরু করেছেন খুব বেশিদিন হয়নি, কোরবানির ঈদের পর। অর্থাৎ সাকুল্যে তিনদিন বল নিয়ে অনুশীলনের সুযোগ পেয়েছেন। ১০ দিন অনুশীলন শেষে ফিটনেসের উন্নতি টের পেয়েছেন। বোলিংটা এভাবে চালিয়ে যেতে পারলে ছন্দে ফেরাটা খুব বেশি কঠিন হবে না বলে মত তার।

বিজ্ঞাপন

সোমবার (১০ আগস্ট) হোয়াটসঅ্যাপে বিসিবি'র পাঠানো এক ভিডিও বার্তায় তিনি এ কথা জানান।

নাঈম বলেন, 'আমরা শুরু করেছিলাম রানিং, জিম দিয়ে। কুরবানির পর বোলিংও এড হয়েছে, আল্লাহর রহমতে খুব ভালো লাগছে। কুরবানির আগে রানিং, জিম করা হয়েছিল, ফিটনেসে ইম্প্রুভ হচ্ছে। সাথে বোলিং এড হয়েছে, খুব ভালো লাগছে। আস্তে আস্তে ইম্প্রুভ করার চেষ্টা করছি। অনেকদিন পর আসছি, বোলিং করছি। একটু আনইজি লাগছিল। যদি ধারাবাহিকভাবে অনুশীলন করি তবে আগের জায়গায় দ্রুত ফিরতে পারবো।'

বিজ্ঞাপন

'চার মাস পর অনুশীলনে এসেছি, খুব ভালো লাগতেছে। কারণ গ্রাউন্ডে প্র্যাকটিস করা হয়না সাধারণত। আমাদের বাসার মধ্যে জিম, রানিং যতটুকু পেরেছি ফিটনেস ধরে রাখার জন্য ট্রাই করছি। এখন যখন গ্রাউন্ডে আসছি খুব ভালো লাগছে কারণ আমাদের তো সবসময় গ্রাউন্ডেই থাকা হয়। আর একটু নতুন নতুন লাগতেছিল প্রথম দিকে।'-যোগ করেন নাঈম হাসান।

সারাবাংলা/এমআরএফ/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন