বিজ্ঞাপন

‘সেপ্টেম্বরে নয়, করোনা কমলেই এইচএসসি পরীক্ষা’

August 12, 2020 | 3:46 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: সেপ্টেম্বর মাসে নয়, করোনা কমলে তারপর আয়োজন করা হবে উচ্চ মাধ্যমিক (এইচএসসি) ও সমমান পরীক্ষা। বুধবার (১২ আগস্ট) সারাবাংলাকে এই খবরটি নিশ্চিত করেছেন আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সাব কমিটি ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান মু. জিয়াউল হক।

বিজ্ঞাপন

মু. জিয়াউল হক বলেন, ‘এইচএসসি পরীক্ষা আয়োজন নিয়ে এখন আমরা তেমন ভাবছিও না। আমাদের পুরোটা মনোযোগ এখন একাদশ শ্রেণির ভর্তিতে। এইচএসসি আয়োজনের জন্য কিছু রোডম্যাপ করা আছে। করোনা কমে যাওয়ার আগে সেটি বাস্তবায়ন সম্ভব নয়।’

এর আগে মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) গণমাধ্যমে খবর প্রকাশ হয় যে, সেপ্টেম্বরে এইচএসসি পরীক্ষা হবে। এ বিষয়ে বোর্ড প্রধান বলেন, ‘এটি পুরোপুরি ভুল খবর। সেম্টেম্বরে পরীক্ষা হওয়ার কোনো সুযোগই নেই। সংবাদ প্রকাশের আগে উৎস যাচাই করে নেওয়া জরুরি। আমি যেহেতু বোর্ড প্রধান আমাকেও জিজ্ঞেস করে নেওয়া যেত। এর কোনোটাই না করে খবর প্রকাশ করা হয়েছে। এই খবর পরীক্ষার্থীদের বিচলিত করেছে এবং মানসিক পীড়ার কারণ হয়েছে।’

এদিকে এইচএসসির খবর প্রসঙ্গে কাছাকছি বক্তব্য দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ও। মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে সুনির্দিষ্ট কোনো সিদ্ধান্ত না আসা পর্যন্ত কোন সংবাদ বা গুজব আমলে না নেওয়ার জন্যও অনুরোধ করেছেন তারা।

বিজ্ঞাপন

শিক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, ‘দেশের সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা ও বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনা করে সবকিছু বিশ্লেষণ করেই পরীক্ষা অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এই সিদ্ধান্ত যথা সময়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানিয়েও দেওয়া হবে।’

চলতি বছরের ১ এপ্রিল এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে এ পরীক্ষাসূচি স্থগিত করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। প্রায় ১২ লাখ পরীক্ষার্থী এই পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পরে।

এদিকে বোর্ডের একটি সূত্র নাম প্রকাশ না করার শর্তে সারাবাংলাকে বলেছে, ‘অক্টোবর মাসের কোনো এক তারিখে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরুর সম্ভাবনা রয়েছে। তবে এটি আন্তঃশিক্ষা বোর্ডের প্রাথমিক সিদ্ধান্ত।’

বিজ্ঞাপন

সেক্ষেত্রে করোনা সংক্রমণ না কমলেও যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে এইচএসসি পরীক্ষা আয়োজন করা হবে। সূত্র বলছে, পরীক্ষার কেন্দ্র বাড়িয়ে প্রতি দুই বেঞ্চে একজন করে পরীক্ষার্থী বসানো হবে। এছাড়া সংক্রমণ রোধে মাস্ক ও স্যানিটাইজার ব্যাবহারেও কড়াকড়ি আরোপ করা হবে।

তবে সূত্রের এই বক্তব্য পুরোপুরি নাকচ করে দিয়েছেন আন্তঃশিক্ষা বোর্ডের সমন্বয়ক মু. জিয়াউল হক। তিনি বলেন, ‘পরীক্ষা অবশ্যই হবে। তবে সেটি কোন মাসে হবে তা এখনও নির্ধারিত হয়নি। যে বা যারা এই তথ্য দিয়েছে, তারা ভুল বলেছে। সঠিক হলো, আজকে যদি করোনা সংক্রমণ কমে যায়, তাহলে পনের দিনের মধ্যে আমার পরীক্ষা আয়োজন করব।’

সারাবাংলা/টিএস/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন