বিজ্ঞাপন

আশুলিয়ায় পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ নিধন, কোটি টাকার ক্ষতি

August 14, 2020 | 5:37 pm

লোকাল করেসপন্ডেন্ট

আশুলিয়া: আশুলিয়ায় রাতের অন্ধকারে পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ নিধন করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। স্থানীয় শরিফুল ইসলাম বেপারীদের পুকুরে এই ঘটনা ঘটে। তারা পাঁচ ভাই মিলে ৪০ বিঘা আয়তনের একটি পুকুরে গত ২২ বছর ধরে মাছ চাষ করে আসছিলেন। বড় ধরনের ক্ষতি পুষিয়ে উঠতে সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এই মাছ চাষিরা।

বিজ্ঞাপন

শুক্রবার (১৪ আগস্ট) সকালে আশুলিয়ার জিরাবো এলাকার দেওয়ান ইদ্রিস আলী স্কুল অ্যান্ড কলেজ সংলগ্ন এলাকার প্রাণ প্রকৃতি এগ্রো মাছের খামারে এই ঘটনা ঘটে।

পুকুরের মালিক শরিফুল ইসলাম ব্যাপারী বলেন, ‘১৯৯৮ সাল থেকে আমরা পাঁচ ভাই মিলে পুকুরে মাছচাষ করে আসছি। গতকাল রাতে একদল দুর্বৃত্ত রাতের আঁধারে কোনো একসময়ে মাছের পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে। বিষক্রিয়ায় পুকুরে চাষ করা কার্পজাতীয় মাছ মারা গেছে। এতে প্রায় ৫ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে।’

এদিকে, পুকুরে বিষ প্রয়োগের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে একটি তদন্ত দল পাঠান উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. হারুন অর রশিদ। তিনি জানান, প্রাথমিকভাবে পানিতে বিষক্রিয়ার লক্ষণ পাওয়া যায়নি। তবে খাবারের বিষক্রিয়ায় মাছ মারা যাওয়ার লক্ষণ দেখা গেছে। প্রাথমিকভাবে দেখা যায়, যেহেতু পানিতে এমোনিয়া গ্যাস ও পিএইচ বা পানির ক্ষারীয় বেড়ে গেছে । ফলে অক্সিজেন কমে গিয়ে মাছ মারা গেছে। তবে মাছের ল্যাব পরীক্ষার পরই বিষয়গুলো আরও নিশ্চিত হওয়া যাবে।

বিজ্ঞাপন

আশুলিয়ায় পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ নিধন, কোটি টাকার ক্ষতি

তিনি আরও জানান, এই খামারে প্রায় ৫০০ মণ মাছ মারা গেছে। যার বাজার মূল্য আনুমানিক কোটি টাকার অধিক। যেসব মাছ মারা গেছে সেগুলো অবশ্যই মাটিতে পুতে ফেলতে হবে। এছাড়া এই মাছ কোনভাবেই খাওয়া যাবে না। যদি বিষক্রিয়া হয়ে থাকে তাহলে মানুষ খেলেও তার শরীরে বিষক্রিয়ার সম্ভবনা থাকবে।

সাভার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শামীমা আরা নিপা বলেন, ‘এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনা হবে। প্রশাসন এ বিষয়ে কাজ করছে।’

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এমও

বিজ্ঞাপন

Tags: ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন