বিজ্ঞাপন

‘চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের নেতৃত্বের পথে ডিজিটাল বাংলাদেশ’

September 12, 2020 | 4:02 pm

সারাবাংলা ডেস্ক

ঢাকা: আগামীর বাংলাদেশ প্রযুক্তির দিক দিয়ে বিশ্বের মধ্যে অগ্রগণ্য ভূমিকা রাখবে। শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর) ‘চতুর্থ শিল্প বিপ্লব এবং ডিজিটাল বাংলাদেশ’ শীর্ষক ওয়েবিনারে দেশের তথ্যপ্রযুক্তিবিদ, শিক্ষাবিদ, অধ্যাপক ও তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞদের আলোচনায় বিষয়টি উঠে এসেছে।

বিজ্ঞাপন

আইসিটি পেশাজীবীদের শীর্ষ সংগঠন বাংলাদেশ কম্পিউটার সোসাইটি আয়োজিত ওয়েবিনারে সভাপতিত্ব করেন অধ্যাপক ড. হাফিজ মুহম্মদ হাসান বাবু। কাউন্সিলর মো. জারাফাত ইসলামের সঞ্চালনায় ওয়েবিনার অনুষ্ঠিত হয়।

ওয়েবিনারে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ কম্পিউটার সোসাইটির জেনারেল সেক্রেটারি মো. তমিজ উদ্দীন আহমেদ।

ওয়েবিনারের প্রধান অতিথি ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার জানান, আইসিটি ক্যাডারের প্রতি তার পূর্ণ সমর্থন রয়েছে এবং কম্পিউটার পেশাজীবীদের জন্য পৃথক ক্যাডার খোলার ব্যাপারে তিনি সর্বদা তার বলিষ্ঠ পদক্ষেপ অব্যাহত রাখবেন। এছাড়াও তিনি বাংলাদেশ কম্পিউটার সোসাইটিকে বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তিবিদদের একটি প্রাচীনতম সংগঠন হিসেবে উল্লেখ করে, এর সহযোগিতার জন্য তিনি সর্বদা প্রস্তুত বলেও জানান।

বিজ্ঞাপন

বিশেষ অতিথি বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ছাদেকুল আরেফিন বলেন, ‘চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের ধারা অব্যাহত থাকলে বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে দূর থেকে বহুদূর।’

বাংলাদেশ কম্পিউটার সোসাইটির প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক ড. হাফিজ মুহম্মদ হাসান বাবু বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর বলিষ্ঠ নেতৃত্বে এবং আইসিটি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের বলিষ্ঠ পদক্ষেপ গ্রহণের ফলে ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নের মাধ্যমে বাংলাদেশ ইতিমধ্যে অনেক দূর এগিয়ে গেছে। ভবিষ্যতে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবকে কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশের উন্নয়নের ধারাকে আরো বেগবান করতে হবে।’ বাংলাদেশ কম্পিউটার সোসাইটির সভাপতি একই সাথে প্রধানমন্ত্রী ও আইসিটি উপদেষ্টার কাছে তথ্যপ্রযুক্তিবিদদের নানামুখী সমস্যা সমাধানের জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করেন।

মূল আলোচক অধ্যাপক ড. রামেশ্বর দেবনাথ ডিজিটাল বাংলাদেশের প্রেক্ষাপট ও চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের অগ্রযাত্রার কথা তুলে ধরেন। এছাড়াও আলোচক হিসেবে যুক্ত ছিলেন অধ্যাপক ড. নাসিম আখতার এবং অধ্যাপক ড. মো. শামসুল আরেফিনসহ অন্যরা।

বিজ্ঞাপন

ভার্চুয়াল সেমিনারে জুমের মাধ্যমে শতাধিক তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ উপস্থিত ছিলেন।

সারাবাংলা/এমও

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন