বিজ্ঞাপন

ঢেঁকি স্বর্গে গেলেও ধান ভাঙে, জন্টি ফিল্ডে…

September 15, 2020 | 7:53 pm

স্পোর্টস ডেস্ক

আধুনিক ক্রিকেটে ফিল্ডিংকে অনেকেই ব্যাটিং, বোলিংয়ের মতো গুরুত্বপূর্ণ মনে করেন। তবে একটা সময় ক্রিকেটে এই বিষয়টাকে 'সৎ ভাই'য়ের মতোই মনে করা হতো। শুধু ব্যাটিং-বোলিংকেই ভাবা হতো 'আপন'। এই কম গুরুত্বপূর্ণ জিনিসটাকে যে এখন গুরুত্বপূর্ণ ভাবা হচ্ছে তাতে জন্টি রোডসের বড় অবদান। ফিল্ডিংয়ের কিংবদন্তি বলা হয় তাকে। দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটোরকে সর্বকালের সেরা ফিল্ডারও বলা হয়।

বিজ্ঞাপন

কেউ কেউ মনে করেন, অনেক সময় শুধু ফিল্ডিং সামর্থের বিবেচনায় দক্ষিণ আফ্রিকা দলে জায়গা পেয়েছেন রোডস। অসাধারণ ক্ষিপ্রতা, দুর্দান্ত গতি আর শূন্যে লাফানোর অদ্ভূত ক্ষমতার কারণে 'বাজপাখি' বলে ডাকা হতো জন্টিকে। তার কিছু ডাইভ, ক্যাচ ও রান আউটের দৃশ্য কোনদিনই ভুলবেন না ক্রিকেট সমর্থকরা।

ক্রিকেট ছেড়ে জন্টি এখন পুরোদমে কোচ। ধারাভাষ্যকার হিসেবেও কাজ করেন। তবে কোচ হিসেবেই এখন বেশি দেখা যায় তাকে। এই মুহূর্তে আইপিএলের দল সানরাইজার্স হায়দরাবাদের ফিল্ডিং কোচ হিসেবে কাজ করছেন। সোমবার দক্ষিণ আফ্রিকান এই তারকার ২০ সেকেন্ডের একটি ভিডিও ক্লিপ পোস্ট করা হয়েছে হায়দরাবাদের অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টে। নেটিজেনরা তাতে হামলে পড়েছেন।

২০ সেকেন্ডের ভিডিওতে দুটি ক্যাচ নিতে দেখা যাচ্ছে জন্টিকে। প্রথম ক্যাচটিকে 'কেউ কেউ নিতে পারবেন' মনে হলো। কিন্তু দুই নম্বর ক্যাচে বিস্মিত করেছেন দক্ষিণ আফ্রিকান কোচ। বাঁ-দিকে অনেকটা ঝাঁপিয়ে যেভাবে বল তালুবন্দি করলেন সেটা বর্তমান বিশ্বের সেরা ফিল্ডারকেও নিশ্চয় লজ্জা দিবে! অথচ জন্টি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ছেড়েছেন প্রায় ১৭ বছর আগে, তার বয়স চলছে এখন ৫২ বছর!

বিজ্ঞাপন

হায়দরাবাদ ভিডিওর ক্যাপশনে লিখেছে, 'তুমি (জন্টি) তুমি কি সত্যিই এটা ধরেছো?' রিটুইট করেছেন জন্টি রোডস। লিখেছেন, 'মাঠে মজা করতে পারব না এমন বুড়ো আমি হবো না কখনো! ৫১ বছরেও উড়তে পারি আমি। তবে ল্যান্ডিংটা একটু সমস্যা ছিল।'

বর্তমান ক্রিকেটের ধীর গতির ফিল্ডাররা ৫১ বছরের জন্টির কথা শুনছেন তো!

সারাবাংলা/এসএইচএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন