বিজ্ঞাপন

কোচের ভূমিকায় তামিম, লেগ স্পিনার মুশি

September 22, 2020 | 7:11 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের আজকের স্কিল অনুশীলনে অভাবনীয় এক দৃশ্যই দেখল মিরপুর শের-ই-বাংলা। নেটে টেল এন্ডার তাইজুল ইসলামকে লেগ স্পিন করছেন মুশফিকুর রহিম। আর সেখানে ব্যাটিং কোচের ভুমিকা পালন করছেন তামিম ইকবাল।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) দুপুর ২টা নাগাদ মিরপুরে এক পশলা বৃষ্টি হল। মিনিট দশেকের বৃষ্টিতে পানি জমল না বটে কিন্তু মাঠ ভিজে সয়লাব। সেই ভেজা মাঠেই কোচিং স্টাফদের সঙ্গে কঠোর ফিল্ডিং অনুশীলনের মধ্য দিয়ে তৃতীর দিনের স্কিল অনুশীলন শুরু করলেন টাইগাররা।

ভেজা মাঠে টাইটিফিট ফিল্ডিং অনুশীলনের পর ড্রেসিংরুমে খানিকক্ষণের বিশ্রাম নিয়ে নিলেন টাইগাররা। হুট করেই বল হাতে সেন্টার উইকেটের দিকে এগুতে থাকলেন মুশফিকুর রহিম। খালি নেটে শুরু করলেন বোলিং। তাও আবার লেগ স্পিন! সংবাদ মাধ্যমকর্মীসহ উপস্থিত যে কয়েকজন দৃশ্যটা দেখছিলেন তাদের অনেকের চোখেই বিস্ময়। একি, মুশফিক তো উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। উইকেটরক্ষক আবার বোলার হয় কীভাবে?

বিজ্ঞাপন

তবে আশ্চর্যজনক হলেও সত্য যে, শুধু বোলিং নয় উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মুশফিকের প্রথম শ্রেনির ক্রিকেটে উইকেটও আছে! একটা সময় টুকটাক মিডিয়াম পেস করতেন। ১১৫ ম্যাচের প্রথম শ্রেনির ক্যারিয়ারে ১৫ ওভার বোলিং করেছেন মুশফিক। তাতে ৫১ রান খরচায় পেয়েছেন একটা উইকেট। সেই স্মৃতি আজ বুঝি হঠাৎ মনে পড়েছিল!

অবশ্য মুশফিক একা নন, আজ অনুশীলনে অনেক ব্যাটসম্যানকেই বোলার হতে দেখা গেল। মুশফিকের বোলিংয়ের সামনে নেমে পড়েছিলেন তাইজুল ইসলাম। তামিম ইকবালকে দেখা গেল তাইজুলের কোচের ভূমিকায়। বোলিং প্রান্তে দাঁড়িয়ে পুরোদস্তুর কোচের মতই নির্দেশনা দিয়ে যাচ্ছিলেন। শুভোধ ছাত্রের মত তাইজুলও তা অনুসরণ করছিলেন। অদূরে থেকে তা অবলোকন করছিলেন হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গো।

বিজ্ঞাপন

শ্রীলঙ্কা সফর সামনে রেখে জাতীয় দলের টেল এন্ডারদের ব্যাটিংয়ের এই অনুশীলনের এক পর্যায়ে তাইজুলের সঙ্গে জুটি বাঁধেন মেহেদী হাসান মিরাজ। বাড়ল বোলারের সংখ্যাও। মুশফিকের সঙ্গে বোলিংয়ে যোগ দিলেন ইমরুল কায়েস ও সাদমান ইসলাম। অফস্পিন বিশে নীল করতে চাইলেন দুই ব্যাটসম্যানকে। সঙ্গে ছিলেন একজন থ্রোয়ারও৷

পাশের নেটে তখন ব্যাটিং করেছেন তাসকিন আহমেদ ও রুবেল হোসেন। পেস বোলিং কোচ ওটিস গিবসনকে দেখা গেল লেগ স্পিনারের ভূমিকায়। সম্পুর্ণ ভিন্ন আঙ্গিকের অনুশীলন শেষে শেষ বিকেলে টিম হোটেলে ফিরে গেল টাইগার কন্টিনজেন্ট।

বিজ্ঞাপন

নেটে দীর্ঘক্ষণ ব্যাটিং করা তাসকিন জানালেন, সতীর্থ ব্যাটসম্যানদের সমর্থন দিতে এই অনুশীলন অপরিহার্য্য ছিল। 'আজকে আমাদের সব বোলারদের ব্যাটিং সেশন ছিল, তো এনজয় করেছি। যদিও নেটে আমাদের বেশ টাফটাইম দিচ্ছিলো থ্রোয়ার এবং বোলাররা। আসলে এ চ্যালেঞ্জগুলো নেওয়া শিখতে হবে আমাদের। ব্যাটসম্যানদের সমর্থন দিতে হলে আমাদের উন্নতি করতেই হবে। তো আমারাও চেষ্টা করছি, আগের থেকে উন্নতি হচ্ছে, আশা করি সামনে আমাদের শেষের সারির ব্যাটসম্যানরা আরও ভালো করবে।'

সারাবাংলা/এমআরএফ/এসএইচএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন