বিজ্ঞাপন

এনু-রুপনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন শুনানি ৪ নভেম্বর

September 24, 2020 | 2:34 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ক্যাসিনোকাণ্ডে গ্রেফতার হয়ে কারাগারে থাকা দুই ভাই এনামুল হক এনু ও রুপন ভুঁইয়ার বিরুদ্ধে অর্থ পাচারের মামলায় অভিযোগ গঠনের শুনানি নিতে আগামী ৪ নভেম্বর দিন নির্ধারণ করেছেন আদালত। এদের মধ্যে এনু রাজধানীর গেন্ডারিয়া থানা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও রুপন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। ক্যাসিনোকাণ্ডে জড়িত অভিযোগ গ্রেফতার হওয়ার পর তাদের বহিষ্কার করা হয়।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টম্বর) দুপুরে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানির দিন ঠিক করার এ আদেশ দেন।

পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) গত ২২ জুলাই আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন। চার্জশিটে ১ কোটি ৯৯ লাখ ৯০ হাজার টাকার মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগ আনা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

মামলার এজাহারে সূত্রে জানা গেছে, এনামুলের আয়কর নথি, বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ ও গোপন সূত্রে পাওয়া তথ্য পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, তার বৈধ আয়ের কোনো উৎস নেই। তিনি ক্যাসিনো ব্যবসাসহ অবৈধ উপায়ে আয় করা অর্থ দিয়ে প্রচুর সম্পদ অর্জন করেছে। এসব তার আয়ের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ নয়। সে অবৈধ আয়ের মাধ্যমে দেশ-বিদেশে বিপুল পরিমাণ সম্পদ অর্জন করেছেন বলে দুদকের কাছে তথ্য আছে।

এনামুলের ভাই রুপন ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগে বলা হয়, রুপন ভূঁইয়া অসৎ উদ্দেশ্যে বিভিন্ন অবৈধ ব্যবসা ও অবৈধ কার্যক্রমের মাধ্যমে নামে-বেনামে ১৪ কোটি ১২ লাখ ৯৫ হাজার ৮৮২ টাকার জ্ঞাত আয়বহির্ভূত অবৈধ সম্পদ অর্জন করেছেন।

বিজ্ঞাপন

বর্তমানে এনু-রুপনকে কয়েকদফা রিমান্ড শেষে কারাগারে রয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে অর্থ পাচার আইনে পাঁচটি মামলা হয়েছে। এর মধ্যে চারটি মামলার তদন্ত শেষ করে চার্জশিট দাখিল করেছে সিআইডি।

এর আগে, গত ১৩ জানুয়ারি ভোরে ক্যাসিনোকাণ্ডে জড়িত এনু-রুপনকে ঢাকার কেরানীগঞ্জ থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে ২২টি জমির দলিল, পাঁচটি গাড়ির কাগজপত্র ও ৯১টি ব্যাংক হিসাবে ১৯ কোটি টাকা থাকার প্রমাণ পাওয়া যায়। এছাড়াও তাদের কাছ থেকে নগদ ৪০ লাখ টাকা ও ১২টি মোবাইল জব্দ করা হয়।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এআই/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন