বিজ্ঞাপন

মাদক গ্রুপের অ্যাডমিন দীপিকা, মুখোমুখি এনসিবি’র জেরায়

September 26, 2020 | 12:54 pm

এন্টারটেইনমেন্ট ডেস্ক

মাদক সংশ্লিষ্টতায় জড়িত থাকার সন্দেহে নার্কোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)’র তদন্তকারীদের মুখোমুখি বলিউডের এ সময়কার সবচেয়ে আলোচিত অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোন। আজ (শনিবার) তাকে জেরা করছেন এনসিবি’র গোয়েন্দারা।

বিজ্ঞাপন

ভারতীয় গণমাধ্যম সুত্রে জানা গেছে, আজ (শনিবার) সকাল ৯টা ৫০ মিনিট নাগাদ একটি ছোট গাড়িতে চেপে কোলাবায় এনসিবি’র কার্যালয়ে আসেন দীপিকা। সকাল থেকেই এনসিবি অফিসের বাইরে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা রাখা হয়। অফিসের চারপাশে ব্যারিকেড দিয়ে ব্যাপক পুলিস বাহিনী মোতায়ন করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, বুধবার বিকেলে এনসিবি’র পক্ষ থেকে সমন পাঠানো হয় দীপিকাকে। সেসময় পরিচালক শকুন বাত্রার সিনেমার শ্যুটিংয়ের জন্য গোয়ায় ছিলেন দীপিকা। কিন্তু এনসিবি’র সমন পাওয়ার পরপরই তড়িঘড়ি মুম্বাই ফেরেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

জানা গেছে, এনসিবি’র সমন পাওয়ার পরপরই তিনজন বর্ষীয়ান আইনজীবী-সহ ১২ জনের লিগ্যাল টিমের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন দীপিকা। মুম্বাই থেকে দীপিকার লিগ্যাল টিমের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আলোচনায় যোগ দিয়েছিলেন রণবীর সিংও। তার পর গোয়ায় গিয়ে স্ত্রীকে চাটার্ড ফ্লাইটে নিয়ে আসেন রণবীর। বিমানবন্দরে স্বামী রণবীর সিংয়ের হাত ধরে গাড়িতে উঠতে দেখা গিয়েছিল তাকে।

এদিকে, শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) প্রায় সাত ঘণ্টা জেরা করা হয় দীপিকার ম্যানেজার কারিশ্মা প্রকাশকে। জানা গেছে, এনসিবি’র থেকে তাকেও আজ (শনিবার) আবার হাজির থাকতে বলা হয়েছে। শোনা যাচ্ছে, দীপিকা আর করিশ্মাকে মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করবে এনসিবি। বলিউড আর মাদকের সম্পর্ক যে কতটা গভীর, নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর তদন্তে তা ক্রমশ স্পষ্ট হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

ভারতীয় গণমাধ্যম সুত্রে আরও জানা গেছে যে, নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো জানিয়েছে, মাদক সংক্রান্ত বিতর্কিত হোয়াটসঅ্যাপ’র যে গ্রুপটির সন্ধান পাওয়া গেছে, তার অ্যাডমিন স্বয়ং দীপিকা পাড়ুকোন। তিনিই ওই মাদক গ্রুপ তৈরি করে নানা সদস্যকে যোগ করেছিলেন। দীপিকা ছাড়াও ওই গ্রুপের আরেক অ্যাডমিন হচ্ছেন সুশান্তের ট্যালেন্ট ম্যানেজার জয়া সাহা। দীপিকার ম্যানেজার কারিশ্মা প্রকাশ ছিলেন গ্রুপের অন্যতম সদস্য। এই গ্রুপ চ্যাটেই কারিশ্মার কাছে ‘হ্যাশ’ চেয়েছিলেন দীপিকা। এটা পরিষ্কার, দীপিকার তৈরি এই গ্রুপের একমাত্র উদ্দেশ্য ছিল মাদক জোগানের কাজটা সহজ করা।

সারাবাংলা/এএসজি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন