বিজ্ঞাপন

অনুশীলনে কোচদের পেয়ে খুশি রাব্বি

September 26, 2020 | 8:21 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

শ্রীলঙ্কা সিরিজকে সামনে রেখে ২০ সেপ্টেম্বর থেকে দলীয় অনুশীলন শুরু করেছে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। তার আগে একা একা অনুশীলন করতে হয়েছে ক্রিকেটারদের। করোনাভাইরাসের কারণে অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও ক্রিকেটীয় কার্যক্রম বন্ধ হয়েছিল গত মার্চে। তারপর ভাইরাসটি কিছুটা সহনশীল অবস্থায় এলে ক্রিকেটাররা যখন অনুশীলন শুরু করলেন সেই সময়টা মোটেও স্বাভাবিক ছিল না।

বিজ্ঞাপন

স্টেডিয়ামে গিয়ে অনুশীলন করা সম্ভবপর হয়নি অনেক ক্রিকেটারের। সেক্ষেত্রে জীমসহ অনুশীলনের পর্যাপ্ত সুবিধা মিলেনি। কেউ কেউ স্টেডিয়ামে যেতে পারলেও প্রতিজনকে আলাদা আলাদা সময়ে একক অনুশীলন করতে হয়েছে। তাছাড়া স্ব-শরীরে কোনো কোচের দীক্ষাও পাচ্ছিলেন না ক্রিকেটাররা। কিন্তু দলীয় অনুশীলন শুরুর পর এসবই মিলছে। তরুণ ব্যাটসম্যান ইয়াছির আলী রাব্বি এতে বড্ড খুশি।

শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) মিরপুর-শের-ই বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুশীলনের ফাঁকে নিজের অভিব্যক্তি জানিয়েছেন রাব্বি। তরুণ সম্ভাবনাময়ী ব্যাটসম্যান বলছিলেন, 'চট্টগ্রামে অনেকদিন অনুশীলন করেছি। যেখানে একজন মেন্টরের অভাব ছিল, কোচের অভাব ছিল। এখানে (মিরপুর) আসার পর কোচের সঙ্গে কথা হয়েছে। আমি যে বিষয় নিয়ে কাজ করতে চাই সে বিষয়ে কথা বলেছি এবং সে অনুযায়ী কাজ করেছি। তাছাড়া চট্টগ্রামে পেস বোলার ছিল না্। এখানে পেসাররা ছিলেন, তাদের বল ফেস করেছি অনেকদিন পর। একটু অন্য রকম লাগছিল অবশ্য, তবে সময় যাচ্ছিল ব্যাটিং ততো ভালো হচ্ছিল। সব মিলিয়ে ভালো অনুশীলন হচ্ছে আমাদের।'

বিজ্ঞাপন

দলীয় অনুশীলন শুরুর আগে ক্রিকেটারদের জৈব সুরক্ষিত বলয়ে নেওয়া হয়েছে। নির্দিষ্ট হোটেলে তোলা হয়েছে ক্যাম্পে ডাক পাওয়া ক্রিকেটারদের। অনুশীলনও হচ্ছে জৈব সুরক্ষিত পরিবেশে। রাব্বি বলছেন, এটা তার জন্য বিশেষ অভিজ্ঞতা।

তরুণ ক্রিকেটার বলেন, 'অনেকদিন পর আমরা জাতীয় দলের ক্যাম্প করছি। বায়ো বাবলের মধ্যে আমরা ক্যাম্পটা করছি, পরিবেশে আমাদের ক্যাম্প হচ্ছে। এটা আমাদের জন্য একটা অন্য রকম অভিজ্ঞতা। এটা আসলে খারাপ অভিজ্ঞতা নয়। কারণ আমরা অনেকে একটু আতঙ্কিত ছিলাম, যে বাইরে গেলে আক্রান্ত (করোনায়) হয়ে যাবো কিনা। সেই জায়গা থেকে একটু স্বস্তি লাগছে। এখন আমরা সেভ আছি।'

বিজ্ঞাপন

রাব্বি বলেন, 'জাতীয় দলের ক্যাম্প আগেও করেছি। তবে এই ক্যাম্প পুরোপুরি আলাদা। কারণ এতো বেশি সুবিধা বা এমন পরিবেশে আগে কখনো ক্যাম্প হয়নি। সব মিলিয়ে বলব, এভাবে সবার সঙ্গে অনুশীলন করে খুব ভালো লাগছে। এতোদিন তো একা একা অনুশীলন করতাম। কিন্তু একা একা অনুশীলন আর দলীয় অনুশীলন ভিন্ন বিষয়। এটা অবশ্যই ভালো লাগছে।'

উল্লেখ্য, তিনটি টেস্ট ম্যাচ খেলতে সেপ্টেম্বরের ২৭ তারিখে শ্রীলঙ্কার বিমান ধরার কথা ছিল বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের। কিন্তু লঙ্কান বোর্ডের বিভিন্ন শর্তের জেরে চলতি মাসে মুশফিক, তামিমদের শ্রীলঙ্কা সফরে যাওয়া হচ্ছে না। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের আওতায় এই সিরিজটা স্থগিতের শঙ্কাও দেখা দিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এমআরএফ/এসএইচএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন